তামিমের অধিনায়কত্ব, ২০২৩ বিশ্বকাপ ও পাপনের কিছু প্রশ্ন

নাজমুল হাসান পাপন তামিম ইকবাল তাইজুল ইসলাম মুস্তাফিজুর রহমান এবাদত হোসেন
Vinkmag ad

২০২০ সালে মাশরাফি বিন মর্তুজা ওয়ানডে অধিনায়কত্ব ছাড়লে তার জায়গা নেন তামিম ইকবাল। টাইগার বাঁহাতি ওপেনারকে লম্বা সময়ের জন্যই অধিনায়কত্ব দেওয়া হয়েছে বলা হলেও ছিল না কোনো নির্দিষ্ট সময়সীমা। ২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপ যখন কড়া নাড়ছে তখন তার অধিনায়কত্বের পাশাপাশি সহ অধিনায়ক ও ভবিষ্যত পরিকল্পনা নিয়ে প্রশ্ন উঠে। তবে বিসিবি সভাপতি এসব ইস্যুতে পাল্টা প্রশ্ন ছুঁড়ে দিলেন।

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের প্রেসবক্স নতুন করে সংস্কার করেছে বিসিবি। ভারত সিরিজ সামনে রেখে আজ (১ ডিসেম্বর) নতুন মোড়কে উদ্বোধন হল প্রেসবক্সটি। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন উপস্থিত থেকে এর উদ্বোধন করেছেন। পরে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হন বিসিবি বস।

ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ শুরুর ৩ দিন আগে আজ সকালে জানা গেছে চোটের কারণে স্কোয়াড থেকে ছিটকে গেছেন পেসার তাসকিন আহমেদ। হাঁটুর চোটে শঙ্কা আছে অধিনায়ক তামিমকে নিয়েও। তামিমের চোট ইস্যু সামনে আসতেই প্রশ্ন উঠেছে সহ অধিনায়ক নিয়েও। ওয়ানডে ফরম্যাটে তামিমের ডেপুটি নেই দীর্ঘ দিন ধরে। তবে এখনো এ নিয়ে ভাবছে না বোর্ড।

এ প্রসঙ্গে পাপন বলেন, ‘এখনো পর্যন্ত আমরা ঠিক করিনি। আগে শুনি তামিম খেলতে পারবে কীনা। তারপর শুনি কত দিনের জন্য? এটা একটা ম্যাচের জন্য হলে এক জিনিস, পুরো সিরিজের জন্য হএল আরেক জিনিস। এই সিদ্ধান্তগুলো হঠাত করে নেওয়া যায় না। পুরো তথ্য পেয়ে আমাদের সিদ্ধান্তটা নিতে হবে।’

তারপরেই প্রশ্ন আসে ২০২৩ বিশ্বকাপে আনুষ্ঠানিকভাবে অধিনায়কত্ব কি তামিমই করছেন? খানিক অবাক হয়ে বিসিবি সভাপতি বললেন তামিম ছাড়া অন্য কেউ তাদের ভাবনাতেও নেই এই মুহূর্তে।

পাপনের ভাষ্য, ‘এখন পর্যন্ত তো তাই-ই আছে। আমরাতো বদলাই নি। এভাবে কেউ বলে নাকি যে ওই সিরিজ পর্যন্ত? এভাবে সাধারণত আমরা বলি না। ও অধিনায়ক মানে অধিনায়ক। অধিনায়ক ইস্যু নিয়ে আমাদের এখনো পর্যন্ত কোনো চিন্তা নেই। অন্য কোনো দ্বিমত আমরা পাইনি যে কি করবো না করবো।’

যদি তামিমই অধিনায়ক থাকেন তবে তার নিশ্চয়ই বিশ্বকাপ নিয়ে আলাদা পরিকল্পনা আছে। সেসব পরিকল্পনা বোর্ডেরও জানার কথা। তামিম ও বোর্ড দুই পক্ষই কি পরিষ্কার?

পাপন পাল্টা প্রশ্ন করে বলেন, ‘মানে কাকে জানাবো? মিডিয়াকে? তামিম জানে না? ও কি বলেছে ও জানে না? আমি এ জিনিসটা বুঝলাম না। ওকে গিয়ে জিজ্ঞেস করেন না। ওর প্ল্যান আছে কীনা ওকে জিজ্ঞেস করেন না। আমরাতো জানি সবাই জানে। আমাদের মধ্যে কোনো দ্বিমত নাই। দ্বিধা দ্বন্ধও নাই।’

পরবর্তী ওয়ানডে বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে ২০২৩ সালের শেষ দিকে ভারতে। ৪ ডিসেম্বর শুরু হতে যাওয়া ভারত সিরিজ দিয়েই কি বিশ্বকাপ মিশন শুরু বাংলাদেশের? এমন প্রশ্নে বিসিবি সভাপতি বলছেন এ সিরিজ নয়, বরং জানুয়ারি থেকে বিশ্বকাপ সামনে রেখে কাজ করবে তারা।

পাপন জানান, ‘এটা আমার ধারণা এই সিরিজের পর। কারণ জানুয়ারি থেকে আমাদের টানা খেলা। আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি এই সিরিজের পর থেকে যে কয়টা খেলা হবে সবকটিই বিশ্বকাপ ভাবনা মাথায় রেখে পরিকল্পনা করা উচিৎ। বিশ্বকাপ সামনে রেখে যে স্কোয়াড, যে খেলোয়াড়েরা খেলবে তা তখনই ঠিক করে ফেলা হবে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

তাসকিনকে ছাড়াই ভারতের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডে, শঙ্কায় তামিমও

Read Next

বাংলাদেশ-ভারত সিরিজে ম্যাচ অফিশিয়াল যারা

Total
4
Share