তামিমের বিতর্কিত আউটের দিনে হেরেছে ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোন

মুশফিকের সংগ্রাম করার দিনে ইস্ট জোনের ত্রাণকর্তা রাব্বি

আগের ম্যাচে তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম খুব বড় কিছু করতে না পারলেও দল জিতেছে বিশাল ব্যবধানে। বিসিএলে (বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগ) নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে আজও ব্যর্থ দুজনে, বিসিবি নর্থ জোনের কাছে দলও হেরেছে ৬১ রানে। তবে তামিমের আউট নিয়ে আছে বিতর্ক, আরও একবার প্রশ্নবিদ্ধ দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটের আম্পায়ারিং।

বিকেএসপির ৩ নম্বর মাঠে আগে ব্যাট করে ৮ উইকেটে ২১৬ রানের পুঁজি বিসিবি নর্থ জোনের। ৯০ রানে আউট হয়ে সেঞ্চুরি মিসের আক্ষেপ ফজলে মাহমুদ রাব্বির। জবাবে ১৫৫ রানেই গুটিয়ে যায় ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোন।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে দলীয় ৯ রানেই ফিরেছেন তামিম। ফিরেছেন বলার চেয়ে অবশ্য ফেরানো হয়েছে বলাটাই শ্রেয়। রিপন মন্ডলের করা ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারের ঘটনা। তৃতীয় বলটি অফ স্টাম্পের খানিক বাইরে পড়ে বেশ লাফিয়ে উইকেট রক্ষকের গ্লাভসে জমা হয়।

শট খেলবেন চিন্তা করেও শেষ মুহূর্তে ব্যাট সরিয়ে নেন তামিম। খালি চোখেও স্পষ্ট ব্যাট-বলের বিশাল ফারাক। বোলারের আলতো আবেদনেই আঙ্গুল তুলে দিলেন আম্পায়ার আলি আরমান রাজন।

ক্রিজেই হতবাক তামিম (৫ বলে ৭), আম্পায়ারকে পাগল বলেও সম্বোধন করেন। রাগান্বিত তামিমকে সামলে নেন আরেক আম্পায়ার মাসুদুর রহমান মুকুল, পিঠ চাপড়ে দেন প্রতিপক্ষ ফিল্ডার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও।

তবে তামিম যেন কিছুতে মানতে পারছিলেন না, ড্রেসিং রুমে ফিরে ম্যাচ রেফারির কক্ষেও যান। সেখানে উপস্থিত ছিলেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নুও।

তামিমের পর ৩ নম্বরে নামা ইমরুল কায়েসও রিপন মন্ডলের শিকার হন কোন রান করার আগেই। আগের ম্যাচে ৪৪ রান করা মুশফিকুর রহিমকে ১ রানের বেশি করতে দেননি বাঁহাতি পেসার শফিকুল ইসলাম।

১৬ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়া ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোন আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি। ১৫৫ রানে অলআউট হওয়ার পথে সর্বোচ্চ ৪৭ ওপেনার মাহমুদুল হাসান জয়ের ব্যাটে। ৪১ রান করেছেন আগের ম্যাচে ৮০ রান করা ইয়াসির আলি রাব্বি।

রিপন মন্ডল ও শফিকুল ইসলাম নেন ২ টি করে উইকেট।

এর আগে বিসিবি নর্থ জোনের শুরুটাও হয় বাজে। ৪৪ রানে হারায় ৪ উইকেট। আগের ম্যাচে না খেলা লিটন দাস করতে পারেননি ৪ রানের বেশি। আরেক দফা ব্যর্থ মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (৯)।

এক পাশ আগলে রেখে দলকে টেনে নেন ফজলে রাব্বি। ১২৬ বলে ৭ চার ১ ছক্কায় ৯০ রান করে বোল্ড হন আশিকুর জামানের বলে।

দলীয় সংগ্রহ ২০০ পার করতে বড় অবদান মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনেরও। ৫৮ বলে ৩ চার ১ ছক্কায় তার ব্যাটে ৪৪ রান।

ইস্ট জোনের হয়ে ২ টি করে উইকেট ভাগাভাগি করেন আশিকুর জামান, শেখ মেহেদী ও রেজাউর রহমান রাজা।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

নাইম-নাসিরের দিনে জিতেছে বিসিবি সাউথ জোন

Read Next

চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডকে ওয়ানডেতে হোয়াইটওয়াশ করল অস্ট্রেলিয়া

Total
0
Share