রুশোর সেঞ্চুরিতে দক্ষিণ আফ্রিকা ছাড়িয়েছে ২০০

featured photo updated 6
Vinkmag ad

সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে বাংলাদেশের বিপক্ষে রানের পাহাড় গড়ল দক্ষিণ আফ্রিকা। বাংলাদেশি বোলারদের ধ্বংসস্তূপে পরিণত করে রাইলি রুশো তুলে নেন সেঞ্চুরি। এছাড়া ফিফটি হাঁকান ওপেনার কুইন্টন ডি কক। আর তাতেই বাংলাদেশকে ২০৬ রানের টার্গেট ছুঁড়ে দিয়েছে প্রোটিয়ারা।

টস হেরে বোলিং করতে নেমে বাংলাদেশ শুরুর ওভারেই পায় সাফল্য। ফের তাসকিন আহমেদের চমক! প্রোটিয়া অধিনায়ক টেম্বা বাভুমাকে (২) ক্যাচ বানান উইকেটকিপার সোহানের হাতে। মাত্র দুই রান খরচায় ওভার শেষ করেন তাসকিন। কিন্তু তাসকিন নিজের পরের ওভারে এসে খরচ করেন ২১ রান।

ম্যাচ শুরুর আগে বৃষ্টি চোখ রাঙালেও খেলা শুরু হয় ঠিক সময়েই। তবে ৫.৩ ওভার খেলার পর সিডনিতে বাগড়া বাধিয়েছে বৃষ্টি। ক্ষণিক বিরতির পর ফের শুরু হয় ম্যাচ। প্রথম পাওয়ার প্লেতে ৬৩ রান তুলে দক্ষিণ আফ্রিকা। রাইলি রুশো আর কুইন্টন ডি ককের ঝড় থামেনি। এরমাঝে দুই দফা রিভিউ নিয়ে নষ্ট করে বাংলাদেশ।

৩০ বলে ফিফটি হাঁকান রাইলি রুশো। দশ ওভার শেষে স্কোরবোর্ডে দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ ৯১/১। নিজের করা প্রথম ওভারে এক নো বল করে সাকিব দেন ২১ রান! ব্যক্তিগত ৮৮ রানে তাসকিনের বলে রুশোর ক্যাচ ছাড়েন হাসান মাহমুদ।

১৫তম ওভারে আফিফ এসে ব্রেকথ্রু এনে দেন বাংলাদেশকে। ভাঙে রুশো-ককের ১৬৮ রানের জুটি। ৩৮ বলে ৬৩ রানের ইনিংসে বিদায় নেন কক। এরপর সাকিব নিজের দ্বিতীয় ওভার করতে এসে প্রথম বলেই ফেরান ট্রিস্টান স্টাবসকে (৭)। রীতিমতো ঝড় তুলে ৫২ বলে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন রুশো। শেষপর্যন্ত রুশোকে ১০৯ রানে থামান সাকিব। ৫৬ বল খেলে ৮ ছক্কা ও ৭ চারে সাজান এই ইনিংস।

ইনিংসের শেষ ওভারে এইডেন মার্করামকে (১০) তুলে নেন হাসান মাহমুদ। ৫ উইকেট হারিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংস শেষ হয় ২০৫ রানে। 

উইকেটশূন্য থাকলেও এদিন বল হাতে কম রান খরচ করেন মুস্তাফিজুর রহমান। ৪ ওভারের কোটায় রান দেন মোট ২৫। ৩৩ রান খরচায় সর্বোচ্চ ২ উইকেট সাকিবের ঝুলিতে। এছাড়া একটি করে উইকেট নেন তাসকিন, আফিফ ও হাসান মাহমুদ।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

দক্ষিণ আফ্রিকাঃ ২০৫/৫ (২০ ওভার) বাভুমা ২, কক ৬৩, রুশো ১০৯, স্টাবস ৭, মার্করাম ১০, মিলার ২*; তাসকিন ১/৪৬, আফিফ ১/১১, সাকিব ২/৩৩, হাসান ১/৩৬

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

সোহানের ভুলে বাংলাদেশের ‘৫ রান’ জরিমানা

Read Next

দক্ষিণ আফ্রিকার অর্ধেক রানও করতে পারল না বাংলাদেশ

Total
1
Share