ভারত নারী দলের ‘যুবরাজ সিং’ খ্যাত দিপ্তীই হলেন টুর্নামেন্ট সেরা

ভারত নারী দলের 'যুবরাজ সিং' খ্যাত দিপ্তীই হলেন টুর্নামেন্ট সেরা
Vinkmag ad

পুরুষদের ক্রিকেটে ভারত জাতীয় দলের অলরাউন্ডার যুবরাজ সিং ছিলেন তারকা। ব্যাটে-বলে লম্বা সময় ধরে দলকে দিয়ে গেছেন সেবা। ভারত নারী দলেও একজন অলরাউন্ডার আছেন যাকে সতীর্থরা যুবরাজের সাথে তুলনা করেন, তিনি দিপ্তী শর্মা। সদ্য সমাপ্ত নারী এশিয়া কাপে দলকে শিরোপা জেতানোর পথে রেখেছেন বড় ভূমিকা, জিতেছেন টুর্নামেন্ট সেরার পুরষ্কার।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শ্রীলঙ্কা নারী দলকে ৮ উইকেটে উড়িয়ে দিয়ে ৭ম বারের মতো নারী এশিয়া কাপ জিতেছে ভারত। আগে ব্যাট করা শ্রীলঙ্কা ৬৫ রানের বেশি করতে পারেনি। ৪ ওভারে মাত্র ৭ রান খরচ দিপ্তীর, যদিও পাননি কোনো উইকেট।

আজ উইকেট না পেলেও টুর্নামেন্ট সেরার পুরষ্কার জিতেছেন ২৫ বয়সী এই অলরাউন্ডারই। টুর্নামেন্টে বল হাতে ১৩ উইকেট (যৌতভাবে সর্বোচ্চ)। ৮ ম্যাচে ৫ ইনিংসে ব্যাট করে ২৩.৫০ গড়ে ১৩২.৩৯ স্ট্রাইক রেটে দীপ্তি শর্মার ব্যাটে রান ৯৪। সর্বোচ্চ রানের ইনিংস ৬৪।

ভারতের হয়ে দুই টেস্ট, ৮০ ওয়ানডে ও ৭৭ টি-টোয়েন্টি খেলা দিপ্তী পুরষ্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে বলেন,

‘টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচ থেকে আমরা যেভাবে পারফর্ম করেছি তাতে খুব খুশি। আমরা টিম মিটিংয়ে যা আলোচনা করেছি সেটাই প্রয়োগ করতে পেরেছি। আমি কেবল আমার শক্তির জায়গায় ফিরে গেছি, আর এটাই আমাকে টুর্নামেন্টে বেশ সাহায্য করেছে। উইকেট স্লো ছিল। আর টুর্নামেন্ট শুরু আগে আমি আমার ব্যাটিং নিয়েও কাজ করেছি। সেসব অনেক কাজে লেগেছে।’

এদিকে পুরো টুর্নামেন্টে নিজের ছায়া হয়েই ছিলেন ভারতের তারকা ব্যাটার স্মৃতি মান্ধানা। তবে ফাইনালে ঠিকই ঝলক দেখিয়েছেন। ৬৬ রানের লক্ষ্য তাড়ায় নেমে একাই করলেন ২৫ বলে অপরাজিত ৫১। তবে এরপরও সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় সেরা পাঁচেও নেই তার নাম।

সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় সবার উপরে অবশ্য আছেন এক ভারতীয়ই। জেমিমা রড্রিগুয়েজ ৮ ম্যাচে ৬ ইনিংসে ৫৪.২৫ গড় আর ১৩৫.৬২ স্ট্রাইক রেটে রান করেছেন ২১৭, সর্বোচ্চ ৭৬। তার পরেই অবশ্য আছেন শ্রীলঙ্কার হারসিথা মাধবী, ৮ ম্যাচে ৮ ইনিংসে ২৫.২৫ গড়ে তার রান ২০২, সর্বোচ্চ ৮১।

তবে ঠিক টি-টোয়েন্টি ঘরানার ব্যাটিং করতে পারেননি মাধবী, স্ট্রাইক রেট ৯২.২৩। ৬ ম্যাচে ৬ ইনিংসে ব্যাট করে ভারতীয় ওপেনার শেফালি ভার্মা ২৭.৬৬ গড় ও ১২২.০৫ স্ট্রাইক রেটে রান করেছেন ১৬৬। তালিকার তিনে থাকা এই ব্যাটারের সর্বোচ্চ ৫৫।

ব্যাটিংয়ের মতো বোলিংয়ে শীর্ষে ভারতীয়। ৮ ম্যাচে সমান ১৩ উইকেট নিয়ে যৌথভাবে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি দীপ্তি শর্মা ও ইনোকা রনভীরা। বাংলাদেশ লিগ পর্ব থেকে বাদ পড়লেও ৫ ম্যাচে ১০ উইকেট নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে লেগ স্পিনার রুমানা আহমেদ। ৭ ম্যাচে তার সমান ১০ উইকেট নিয়েছেন সেমি-ফাইনালে বাদ পড়া পাকিস্তানি ওমাইমা সোহেল।

সিলেট থেকে ক্রিকেট৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

৮ম আসরে ভারতের ৭ম শিরোপা

Read Next

আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে দক্ষিণ কোরিয়ার অভিষেক

Total
28
Share