চট্টগ্রাম-খুলনায় হারল ঘরের দল; ঢাকা মেট্রোর রোমাঞ্চকর জয়

1746130467757299
Vinkmag ad

২৪তম জাতীয় ক্রিকেট লিগে (এনসিএল) নিজেদের প্রথম ম্যাচে চট্টগ্রাম বিভাগের বিপক্ষে ৯ উইকেটে জিতেছে সিলেট বিভাগ। আরেক ম্যাচে রোমাঞ্চকর লড়াই শেষে খুলনা বিভাগকে ২ উইকেটে হারিয়েছে ঢাকা মেট্রো।

চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে চলমান এনসিএলের টায়ার ওয়ান এর ম্যাচে স্বাগতিকরা প্রথম ইনিংসে নিয়মিত উইকেট হারিয়ে অল্পতে গুটিয়ে যায়। তাদের ১৪১ রানের বিপরীতে সিলেট বিভাগ স্কোরবোর্ডে জমা করে ৩১২ রান। লিড দাঁড়ায় ১৭১ রানের।

সিলেট দ্বিতীয় ইনিংসে চট্টগ্রামকে গুটিয়ে দেয় ২২১ রানে। ঘরের মাঠে জ্বলে ওঠতে পারেননি তামিম ইকবালরা। পরে ১ উইকেট হারিয়ে মাত্র ৭.৫ ওভারেই জয়ের জন্য ৫২ রান তুলে ফেলে সিলেট। বড় জয়ে মৌসুম শুরু জাকির হাসানের দলের।

প্রথম ইনিংসে পাঁচ উইকেট শিকার পর দ্বিতীয় ইনিংসেও বল হাতে জাদু দেখান সিলেটের নাবিল সামাদ। মোট ৯ উইকেট পাওয়া এই স্পিনারের হাতে ওঠল ম্যাচ সেরার পুরস্কার।

অন্যদিকে, টায়ার টু’য়ের ম্যাচে খুলনায় নিজ নিজ দলের হয়ে ব্যর্থতার ষোলকলা পূর্ণ করলেন দুই অধিনায়ক ইমরুল কায়েস ও মোহাম্মদ নাইম। তবুও দুই উইকেটের জয় পেয়েছে নাইমের ঢাকা মেট্রো। শেষদিনে শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে ছড়িয়েছে রোমাঞ্চ।

ঘরের দল প্রথম ইনিংসে অলআউট হয় মাত্র ১৩১ রানে। জবাব দিতে নেমে ঢাকা মেট্রোর ইনিংস সমাপ্ত ১৫৬’তে। দ্বিতীয় ইনিংসেও খুলনার ব্যাটারদের সেই বিপর্যয়; ব্যর্থতার বৃত্তে অধিনায়ক ইমরুল কায়েস।

তবে প্রান্তিক নওরোজ নাবিল ও জিয়াউর রহমানের ফিফটিতে বাঁচে স্বাগতিকদের মান। ১৯১ রান জমা করে খুলনা পায় ১৬৬ রানের লড়াকু সংগ্রহ। জয়ের জন্য আজ শেষ দিন মেট্রোর প্রয়োজন ছিল ৪১ রান; হাতে ৪ উইকেট।

দিনের শুরুতেই ১ রানের ব্যবধানে সেট ব্যাটার জাহিদুজ্জামান ও রাকিবুল হাসানকে ম্যাচের চিত্র বদলে দেন আল-আমিন হোসেন। খুলনা ফিরে ম্যাচে।

এরপর আবু হায়দার রনি আর কাজী অনিক করেন লড়াকু ব্যাটিং। এই দুইয়ের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে আর কোনো বিপদ দেখেনি মেট্রো। ৩৪ বল খেলে রনি অপরাজিত থাকেন ১৮ রানে, তার সঙ্গী কাজি অনিক ২৮ বল খেলে করেন ১১। শেষের রোমাঞ্চে ঢাকা মেট্রো পেল ২ উইকেটের রোমাঞ্চকর জয়।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ভিসা জটিলতা কাটেনি, আপাতত মিঠুনরা খেলবেন জাতীয় লিগ

Read Next

‘বাংলা ওয়াশ’ ট্রফি পাকিস্তানের হাতে

Total
6
Share