রিজওয়ানের ব্যাটে পাকিস্তানের বড় সংগ্রহ

পাকিস্তান বাংলাদেশ
Vinkmag ad

বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে শুরু ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজ। মোহাম্মদ রিজওয়ানের হার-না-মানা ৭৮ রানের ইনিংসে পাকিস্তানের সংগ্রহ ৫ উইকেট হারিয়ে ১৬৭ রান। ৪ ওভারে ৪৮ রান খরচায় উইকেটশূন্য থাকেন মুস্তাফিজ।

ক্রাইস্টচার্চের হেগলি ওভালে টস জিতে আগে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান। নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ভ্রমণ ক্লান্তির কারণে বিশ্রামে। বল হাতে নেমেই তাসকিন আহমেদ করলেন দাপুটে শুরু। প্রথম ওভারে খরচ করেন কেবল ১ রান।

পরের ওভারে মুস্তাফিজকে দুই বাউন্ডারি হাঁকিয়ে বাবর আজম তুলে নেন ১০ রান। নাসুম আহমেদের করা ইনিংসের ৪র্থ ওভারের পঞ্চম বলে রান-আউটের চান্স মিস করেন সাব্বির রহমান। প্রথম পাওয়ার-প্লেতে চার বোলার এনেও সাফল্য পায়নি বাংলাদেশ। ৬ ওভার শেষে বাবর-রিজওয়ান জুটি স্কোরবোর্ডে জমা করে ৪৩ রান।

এদিন রুদ্রমূর্তি ধারণ করেন বাবর ও রিজওয়ান। টাইগার বোলারদের করে দেন দিশেহারা। কোনও লাইন বা লেন্থে বল করলে আটকানো যাবে এই দুই ওপেনারকে, তা যেন কিছুতেই খুঁজে পাচ্ছিল না মুস্তাফিজরা।

তবে মেহেদী হাসান মিরাজ বোলিংয়ে আসতেই বাংলাদেশ পায় ব্রেকথ্রু। নিজের প্রথম ওভারের প্রথম বলেই মিরাজ বাবরকে ফেলেন ফাঁদে। ব্যক্তিগত ২২ রানে পাক অধিনায়ক মুস্তাফিজের হাতে সহজ ক্যাচ তুলে ফেরেন সাজঘরে। ভাঙে ৫২ রানের উদ্বোধনী জুটি।

তিনে নামা শান মাসুদ ধীরগতির শুরু করলেও একপর্যায়ে মারমুখী রূপ নেন। রিজওয়ানের সঙ্গে জুটি গড়ে এগোতে থাকেন। তবে নাসুমকে মারতে যেয়ে হাসান মাহমুদের হাতে ক্যাচ তুলেন শান। ফেরার আগে ২২ বলে করেন ৩১ রান।

তাসকিনের বলে বাউন্ডারি লাইনে লাফিয়ে ওঠে ইয়াসির আলির দুর্দান্ত ক্যাচ। ৬ বলে ৬ করে বিদায় নেন হায়দার আলি। এরপর ৩৮ বলে ফিফটি পূর্ণ করেন ওপেনার রিজওয়ান। এরপর রিজওয়ানের ব্যাটে বাড়ে ঝড়ের গতি।

মুস্তাফিজের তৃতীয় ওভারে রিজওয়ান-ইফতিখার মিলে তুলে নেন ১৬ রান। পরের ওভারেই হাসান মাহমুদ তুলে নেন ইফতিখার আহমেদের উইকেট। আফিফের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরার আগে তার ব্যাট থেকে আসে ৮ বলে ১৩।

নিজের শেষ ওভার করতে এসে তাসকিন দখলে নেন দ্বিতীয় উইকেট। আসিফ আলি তাসকিনের বলে ফিরতি ক্যাচ দেন ব্যক্তিগত ৪ রানে। তবে ফেরানো যায়নি রিজওয়ানকে। শুরু থেকে খেলেন শেষপর্যন্ত। ৭৮ রানের হার-না-মানা ইনিংসে পাকিস্তানকে এনে দেন ১৬৭ রানের বড় সংগ্রহ। ৫০ বলের স্থায়ী ইনিংসে রিজওয়ান হাঁকান ২ ছয় ও ৭টি চার। মোহাম্মদ নওয়াজ ৫ বলে ৮ রানে অপরাজিত। 

বাংলাদেশের হয়ে বল হাতে ২৫ রান খরচায় সর্বোচ্চ ২ উইকেট তুলে নেন তাসকিন আহমেদ। এছাড়া মেহেদী হাসান মিরাজ, নাসুম আহমেদ ও হাসান মাহমুদ দখলে নেন ১টি করে উইকেট। 

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

পাকিস্তান: ১৬৭/৫ (২০ ওভার) বাবর ২২, রিজওয়ান ৭৮*, শান ৩১, হায়দার ৬, ইফতিখার ১৩, আসিফ ৪, নওয়াজ ৮*; তাসকিন ২/২৫, মিরাজ ১/১২, নাসুম ১/২২, হাসান ১/৪২

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

সাকিবকে ছাড়া আগে বোলিংয়ে বাংলাদেশ

Read Next

ত্রিদেশীয় সিরিজ শেষ ড্যারিল মিচেলের

Total
4
Share