স্কুল শিক্ষক আমিনউদ্দিনের কাছে কৃতজ্ঞ হ্যাটট্রিক করা তৃষ্ণা

বাংলাদেশ নারী 4
Vinkmag ad

বাংলাদেশের মতো দেশে নারী ক্রিকেটের যাত্রাটা বেশ কঠিন। তৃণমূলে গেলে অবস্থাটা যেন আরও খারাপ। বন্ধুর পথ পাড়ি দিয়ে জাতীয় দলে জায়গা করা যেন আলাদা সিনেমার গল্প। তেমনই এক গল্পের মূল চরিত্র ফারিহা ইসলাম তৃষ্ণা। আগেই ওয়ানডে অভিষেক হয়েছে, আজ (৬ অক্টোবর) এশিয়া কাপে মালয়েশিয়ার বিপক্ষে হল টি-টোয়েন্টিও। অভিষেকেই গড়লেন কীর্তি, করলেন হ্যাটট্রিক। পঞ্চগড় থেকে উঠে আসা এই পেসার শোনালেন পথ পাড়ি দেওয়ার কথা, তুলে ধরলেন স্কুল শিক্ষকের অবদান।

দেশের সর্ব উত্তরের পঞ্চগড় জেলার সদর উপজেলার ধাক্কামারা ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী এলাকার মীরগড় গ্রামে জন্ম এই তৃষ্ণার। তার বাবা দবিরুল ইসলাম দুলু, মা বেবী জেসমিন আকতার।

মীরগড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়াশোনার শুরু, সেখানেই পাশ করেন সমাপনী। পরে পঞ্চগড় সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত পড়েন। পড়াশোনার বাকি অধ্যায় বিকেএসপিতে (বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান)।

বিকেসপিতে ভর্তির পরই যেন নিজেকে আরও বেশি মেলে ধরতে পারেন। মেয়ে হয়ে বিশেষ করে প্রত্যন্ত অঞ্চলের মেয়ে হয়েও তৃষ্ণার ক্রিকেটে আসার পেছনে বাবা-মা ও স্কুল শিক্ষকের অবদান অনেক। তবে পর্যাপ্ত মাথ, অনুশীলনের সুযোগ না পাওয়া কাজটা কঠিন করে দিচ্ছিল।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি যেমনটা বলছিলেন,

‘প্রথমত হ্যাঁ, পঞ্চগড়ে ক্রিকেটটা মেয়েদের জন্য অনেক কঠিন। ক্রিকেট বলতে ছেলেদের ছাড়া মেয়েদের কিছুই নেই। আমাদের মাঠ আছে অথচ অনুশীলন করা যাচ্ছে না। সমর্থনের কথা যদি বলেন, তাহলে বাবা-মায়ের অনেক সমর্থন পেয়েছি। ক্রিকেটে আসার পেছনে আমার স্কুলের শিক্ষক আমিনউদ্দিন স্যারের অনেক সাহায্য ছিল।’

বাংলাদেশ পুরুষ দলের বাঁহাতি পেসার শরিফুল ইসলামও পঞ্চগড়ের ছেলে। তবে শরিফুল ইসলামের সাথে পরিচয়টা জাতীয় দলে আসার পর বলে জানালেন তৃষ্ণা।

নিজের টি-টোয়েন্টি অভিষেকের কথাটা কখন জেনেছেন? আর পরিকল্পনাইবা কি ছিল?

এমন প্রশ্নের জবাবে তৃষ্ণা বলেন,

‘দলে ছিলাম। চেষ্টা ছিল যেদিনই খেলবো ভালো কিছু করবো। অভিষেক হবে জানতে পেরেছি আজকে সকালে। প্রতিটি অনুশীলনেই নিজেকে তৈরি করেছি যেদিন খেলবো, দলকে ভালো কিছু দেওয়ার চেষ্টা করবো।’

অভিষেক ক্যাপটা নিয়েছেন বাংলাদেশের অন্যতম সেরা পেসার জাহানারা আলমের কাছ থেকে।

এ নিয়ে নিজের অনুভূতি জানাতে গিয়ে বলেন,

‘উনার কাছ থেকে ক্যাপ নিতে পেরে অনেক খুশি। উনি অভিজ্ঞ ক্রিকেটার, শুরু থেকে ক্রিকেটে আছে। বাংলাদেশের সেরা পেস বোলার। উনার কাছ থেকে ক্যাপ নিতে পেরে খুশি লেগেছে। উনি উইশ করেছে যেন ভালো করতে পারি।’

সিলেট থেকে ক্রিকেট৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

বিশ্বকাপ শেষ প্রোটিয়া অলরাউন্ডার ডোয়াইন প্রিটোরিয়াসের

Read Next

নেপালে ফিরেই গ্রেফতার লামিচানে

Total
1
Share