তৃষ্ণার হ্যাটট্রিকের দিনে রেকর্ড ব্যবধানে জিতেছে বাংলাদেশ

বাংলাদেশ নারী 5
Vinkmag ad

পাকিস্তানের বিপক্ষ বাজেভাবে হেরে মানসিকভাবে পিছিয়ে গেলো কীনা বাংলাদেশ নারী দল এই প্রশ্ন উঠেছিল। তবে মালয়েশিয়ার বিপক্ষে যেভাবে দাপট দেখিয়ে জিতে নিল তাতে বোঝাই যায় মনের জোর অন্তত হারায়নি টাইগ্রেসরা। ব্যাট হাতে মুর্শিদা খাতুন-নিগার সুলতানা জ্যোতি ও বল হাতে অভিষিক্ত ফারিহা ইসলাম তৃষ্ণার হ্যাটট্রিকের দিনে এলো রেকর্ড ৮৮ রানের জয়।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের মূল মাঠে টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত বাংলাদেশের। ৫ উইকেটে ১২৯ রানের সংগ্রহের পথে সর্বোচ্চ ৫৬ রান মুর্শিদার ব্যাটে, তবে ৫৩ রান করা জ্যোতি খেলেছেন দ্রুত গতিতে।

বল হাতে আরও দাপুটে বাংলাদেশ, মালয়েশিয়াকে গুটিয়ে দিয়েছে মাত্র ৪১ রানে। দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেনি কোনো ব্যাটারই।

৮৮ রানের জয়টি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি রানের বিচারে বাংলাদেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের জয়। সর্বোচ্চ ব্যবধানের জয় হিসেবে এখনো সবার উপরে মালদ্বীপের বিপক্ষে ২৪৯ রানের জয়টি।

ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের প্রথম বলেই উইকেট হারায় বাংলাদেশ। ওপেনার শামীমা সুলতানা (০) আরেক দফা হলেন ব্যর্থ। এরপর আরেক ওপেনার ফারজানা হক পিংকি ও মুর্শিদা খাতুন জুটিতে যোগ করেন ৩৪ রান।

নবম ওভারে অবশ্য ২৪ বলে ১০ রান করে ফেরেন ফারজানাও। সেখান থেকে অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতিকে নিয়ে মুর্শিদা দলকে টেনে নেন। জুটিতে আরও উঠেছে খানিক দ্রুত গতিতে।

১৬তম ওভারের তৃতীয় বলে মুর্শিদা ছুঁয়েছেন ফিফটি, ৪৭ বলে ৬ চারের সাহায্যে। একই সাথে জুটিরও ফিফটি হয়, লেগেছে ৪৩ বল।

পরের ওভারে অবশ্য চড়াও হন অধিনায়ক জ্যোতিও। ওভারে এক ছক্কার সাথে দুই চার, রান আসে ১৮। এরপর সময় যত গড়িয়েছে জ্যোতি শুধু দ্যুতি ছড়িয়েছেন। সুযোগ পেলেই হাঁকিয়েছেন বাউন্ডারি।

১৯তম ওভারের প্রথম বলে দারুণ এক সুইপ শটে চার মেরে ৩২ বলে ফিফটি ছুঁয়েছেন জ্যোতি। তবে ফিরেছেনও একই ওভারে, নামের পাশে ৩৪ বলে ৬ চার ১ ছক্কায় ৫৩ রান। তার বিদায়ে ভাঙে ৬২ বলে ৮৭ রানের জুটি। রান আউটে এক বলের ব্যবধানে ফেরেন তার সঙ্গী মুর্শিদাও। ৫৪ বলে ৫৬ রানের ইনিংসটি তিনি সাজান ৬ চারে।

শেষ পর্যন্ত ৫ উইকেটে ১২৯ রানে থামে বাংলাদেশ। শেষ ৫ ওভারে টাইগ্রেসরা তোলে ৫২ রান।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে বেশ ধীর গতির শুরু মালয়েশিয়ার। টাইগ্রেসদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ৫ ওভারে বিনা উইকেটে ১২ রান তুলতে পারে দলটি। তবে ৬ষ্ঠ ওভারে এসে অভিষিক্ত ফারিহা ইসলাম তৃষ্ণা দেখালেন ঝলক, গড়লেন হ্যাটট্রিকের কীর্তি।

ওভারের দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ বলে উইকেট নেন তৃষ্ণা। তার শিকার হয়েছেন উইনফ্রেড দুরাইসিঙ্গাম (৫), ম্যাস এলিসা (০) ও মাহিরাহ ইসমাইল (০)। বাঁহাতি এই পেসার তিনজনকেই করেছেন বোল্ড।

১৩ রানে ৩ উইকেট হারানো মালয়েশিয়ান মেয়ারা আর স্বস্তিতে থাকতে পারেনি। নিয়মিত বিরতিতে হারিয়েছে উইকেট। তৃষ্ণার সাথে ফাহিমা খাতুন,সানজিদা আক্তার মেঘলা ও রুমানা আহমেদরা যোগ দিলে ৪১ রানেই অলআউট হতে হয়।

১২ রানের তৃষ্ণার ৩ উইকেট, ফাহিমা, সানজিদা ও রুমানা নেন ২ টি করে উইকেট।

সিলেট থেকে ক্রিকেট৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

অভিষেকেই হ্যাটট্রিক উৎসবে মাতলেন বাংলাদেশের তৃষ্ণা

Read Next

সাকিব ফেরায় খুশি মিরাজ, ওপেনিং নিয়ে আত্মবিশ্বাসী

Total
1
Share