বাংলাদেশের আত্মবিশ্বাসে জল ঢেলে দিয়ে পাকিস্তানের বড় জয়

featured photo updated v 2
Vinkmag ad

পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে এর আগে ১৫ বারের দেখায় মাত্র একবার জিতেছিল বাংলাদেশ নারী দল। কিন্তু চলতি এশিয়া কাপের ম্যাচে মুখোমুখি হওয়ার আগে আত্মবিশ্বাসের কমতি ছিল না টাইগ্রেসদের। সে আত্মবিশ্বাসে জল ঢেলে দিয়ে নিগার সুলতানার দলকে ৯ উইকেটের বড় পরাজয় উপহার দিল পাকিস্তান।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের গ্রাউন্ড-২ আজ (৩ অক্টোবর) টস জিতে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় পাকিস্তান। কার্যত ওখানেই পিছিয়েই পড়ে বাংলাদেশ। নিজেদের স্পিন শক্তি দিয়ে ঘায়েল করতে চেয়েছে প্রতিপক্ষকে, যে কারণে একাদশে স্পিনারের আধিক্যতা বাড়ানো হয়। বাদ দেওয়া হয় পেসার জাহানার আলমকেও।

কিন্তু আগে ব্যাট করে উল্টো মুখ থুবড়ে পড়তে হয় পাকিস্তানি বোলারদের সামনে। পুরো ২০ ওভার খেলে ৮ উইকেটে ৭০ রানের বেশি করা যায়নি। ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ২৪ রান সালমা খাতুনের ব্যাটে। এর বাইরে ২০ রানও করতে পারেনি কোনো ব্যাটার। লক্ষ্য তাড়ায় নেমে ১২.২ ওভারের বেশি লাগেনি পাকিস্তানের।

পাকিস্তানি দুই ওপেনার মুনিবা আলি ও সিদরা আমিন যেভাবে ব্যাত করছিলেন তাতে ১০ উইকেটের জয়ই প্রত্যাশিত ছিল। কিন্তু সালমা খাতুনের শিকার হয়ে মুনিবা (১৯ বলে ১৪) ফিরলে ভাঙে ৭.৩ ওভারে দুজনের ৪৯ রানের জুটি।

তবে অধিনায়ক বিসমাহ মারুফকে নিয়ে এরপর আর কোনো বিপদ ঘটতে দেননি সিদরা। দুজনে জুটিতে অবিচ্ছেদ্য ২২ রানে। সিদরা ৩৫ বলে ৪ চারে ৩৬ রানে ও বিসমাহ ২০ বলে ১২ রানে অপরাজিত ছিলেন।

এর আগে পেসার ডায়ানার করা ইনিংসের প্রথম ওভারেই ওপেনার শামীমা সুলতানাকে (৫ বলে ১) হারায় বাংলাদেশ। এরপর মন্থর ব্যাটিংয়ের প্রদর্শনী, পরের দুই ওভারই মেইডেন। চতুর্থ ওভারেও রান আসে শেষ বলে, ছিল টানা ১৭ বল।

পঞ্চম ওভারে ডায়ানা ফিরে তুলে নেন রুমানা আহমেদকে (৭ বলে ১)। এতে ৩ রানে ৩ উইকেটে পরিণত হয় বাংলাদেশ। ওভারের শেষ দুই বলে টানা চার মারেন অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতি। এ দিয়েই ইনিংসে প্রথম বাউন্ডারির দেখা পায় টাইগ্রেসরা।

এরপর সময় গড়ালেও পথের দেখা পায়নি বাংলাদেশ। ১৪তম ওভার পর্যন্ত ক্রিজে টিকেও ৩০ বলে ১৭ রানের বেশি করতে পারেনি জ্যোতি। অন্য প্রান্তেও ব্যাটারদের নিয়মিত বিদায়ে ৫৭ রানে ৭ উইকেটে হারায় টাইগ্রেসরা।

১৮ তম ওভারের তৃতীয় বলে রিতু মণি (৭ বলে ৪) রান আউট হলে বৃষ্টি নামে। তখন ১৯ রানে অপরাজিত ছিলেন সালমা খাতুন।

বৃষ্টি শেষে খেলা শুরু হলে নাহিদা, সোহেলীদের নিয়ে আরও ১৩ রান যোগ করেন সালমা। শেষ পর্যন্ত তিনি অপরাজিত ২৯ বলে ২৪ রানে।

৮ উইকেটে বাংলাদেশকে ৭০ রানে আটকে দেওয়ার পথে ডায়ানা ও নিদা ধর নেন সর্বোচ্চ দুইটি করে উইকেট।

সিলেট থেকে ক্রিকেট৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

রেকর্ড পুঁজিতে ভারতের সিরিজ জয়, ঝড়ো সেঞ্চুরিতেও ম্লান মিলার

Read Next

দুই নতুন মুখ ভারতের ওয়ানডে দলে

Total
1
Share