পন্টিংয়ের সেরা পাঁচে ভারতের দুই

পন্টিংয়ের সেরা পাঁচে ভারতের দুই
Vinkmag ad

আইসিসি হল অব ফেমার, অস্ট্রেলিয়ার তথা ক্রিকেট ইতিহাসের সর্বকালের অন্যতম সেরা ব্যাটার রিকি পন্টিং সম্পরতি বেছে নিয়েছেন তার চোখে সেরা ৫ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটার।

সাদা বলের ক্রিকেটে রিকি পন্টিং ছিলেন বোলারদের জন্য আতঙ্কের নাম। অস্ট্রেলিয়ার সফলতম এই অধিনায়ক অজিদের প্রথম আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ছিলেন অধিনায়ক। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি অভিষেকে ৫৫ বলে অপরাজিত ৯৮ রানের ইনিংস খেলে দলকে জিতিয়েছিলেন পন্টিং।

খেলোয়াড়ি জীবন শেষে কোচিং ও ধারাভাষ্যে মন দেওয়া রিকি পন্টিং অন্য যেকারও তুলনায় টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটটা বেশি দেখেন।

আইসিসি রিভিউয়ের সর্বশেষ এপিসোডে উপস্থাপিকা সানজানা গানাসেন তাকে জিজ্ঞাসা করেন ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টি টিম বানাতে হলে কোন পাঁচ ক্রিকেটারকে দলে রাখতেন তিনি।

উত্তরে ক্রমানুসারে ৫ ক্রিকেটারের নাম নেন পন্টিং-

১. রাশিদ খান (আফগানিস্তান)-

‘আমি ১ নম্বরে রাশিদ খানকে রাখব। কারণ যদি আইপিএল নিলামে তার নাম ওঠে সেখানে কোন স্যালারি ক্যাপ থাকবে না, তার দামই সবচেয়ে বেশি হবে।’

‘লম্বা সময় ধরে তার ধারাবাহিকতা, উইকেট নেবার ক্ষমতার জন্য তাকে শীর্ষে রাখব। এছাড়া টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তার ইকোনমিও নজরকাড়া। যখন আপনি তার দলের বিপক্ষে খেলবেন তার আগের রাতে আপনার সবচেয়ে কম ঘুম হবে।’

২. বাবর আজম (পাকিস্তান)-

‘দুই নম্বরে আমি বাবর আজমকে রাখব। কারণ বেশ কিছুদিন ধরেই সে টি-টোয়েন্টিতে শীর্ষ ব্যাটার। এবং শীর্ষস্থান সে ডিজার্ভ করে।’

‘তার রেকর্ডই তার হয়ে কথা বলে। গেল কয়েক বছর পাকিস্তান দলকে সে নিজে টেনে নিচ্ছে।’

৩. হার্দিক পান্ডিয়া (ভারত)-

‘বর্তমান ফর্ম বিবেচনায় হার্দিক পান্ডিয়াকে তিন নম্বরে না রাখাটা কঠিন। আইপিএলে সে দুর্দান্ত ছিল। তাকে বোলিং করতে দেখা দারুণ। অনেক ইনজুরির কারণে সে আর এভাবে বল করতে পারবে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ ছিল।’

‘তবে সে বোলিংয়ে ফিরেছে। ১৪০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টায় বল করছে যেমনটা সে ৪/৫ বছর আগে করত। ব্যাটিংটাতেও ম্যাচিউরিটি বেড়েছে। সে খেলাটা খুব ভালো করে বুঝতে পারছে, নিজের খেলাটা বুঝতে পারছে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সেই সম্ভবত সেরা অলরাউন্ডার। আর ওয়ানডেতেও তার সেরা হবার সক্ষমতা আছে।’

৪. জস বাটলার (ইংল্যান্ড)-

‘আমাকে জস বাটলারকে রাখতেই হবে। যখন আপনি তার বিপক্ষে কোচিং করাচ্ছেন তখন আপনি জানেন তার এমন কিছু আছে যা অন্য অনেকের নেই। কম সময়ের মধ্যে তার খেলা প্রতিপক্ষের নাগালের বাইরে নেবার ক্ষমতা আছে।’

‘গেল আইপিএলে তার পারফরম্যান্স ছিল দারুণ। ৩ বা ৪ সেঞ্চুরি করা অভাবনীয়। গেল কয়েক বছরে তার ব্যাটিং অন্য মাত্রায় গেছে।’

৫. জাসপ্রীত বুমরাহ (ভারত)-

‘জাসপ্রীত বুমরাহকে ৫ নম্বরে রাখব। এই মুহূর্তে সেই সম্ভবত তিন ফরম্যাট মিলে সবচেয়ে পূর্নাঙ্গ বোলার। নতুন বলে সে খুবই ভাল।’

‘ভারত তাকে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে নতুন বল হাতে দিতে পারে, যেখানে বল সুইং করবে। যেহেতু সে স্লো বল ও বাউন্সার করতে পারে তাই সে হাই কোয়ালিটির ডেথ ওভার স্পেশালিস্টও।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

আইসিসিঃ আগস্ট মাসের সেরা হবার দৌড়ে যারা

Read Next

রিজওয়ান, দাহানির ইনজুরির আপডেট জানাল পিসিবি

Total
18
Share