জিম্বাবুয়ে ৪-০ বাংলাদেশ, পার্থক্য এটাই

featured photo updated v 7
Vinkmag ad

তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচ হেরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ইতোমধ্যে ওয়ানডে সিরিজ খুইয়েছে বাংলাদেশ। দুই ম্যাচেই জিম্বাবুয়ে করেছে অসাধারণ ব্যাটিং। সিকান্দার রাজার ব্যাক টু ব্যাক সেঞ্চুরির সাথে আছে আরও দুই সেঞ্চুরি। আজ (৭ আগস্ট) দ্বিতীয় ম্যাচে হারের পর অধিনায়ক তামিম ইকবাল বলছেন এই জায়গাতেই গড়েছে পার্থক্য।

প্রথম ম্যাচে ৩০৩ রানের পুঁজি নিয়েও হেরেছে বাংলাদেশ। কোনো সেঞ্চুরি না থাকলেও যে ম্যাচে চার ফিফটির দেখা পায় সফরকারীরা। জবাবে ৬৩ রানে ৩ উইকেট হারানোর পরেও সিকান্দার রাজা ও ইনোসেন্ট কায়ার জোড়া সেঞ্চুরিতে ৫ উইকেট জয় স্বাগতিকদের।

আজ হারারেতে দ্বিতীয় ওয়ানডেতেও আগে ব্যাট করে বাংলাদেশ। তামিমের আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে ৪৫ বলে ৫০ রানের ইনিংসে শুরু। তবে মাঝের ব্যাটাররা ক্রিজে থিতু হয়েও এমন শুরুকে টেনে নিতে পারেননি। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ব্যাটে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ৮০ রান।

তবে এই ইনিংস খেলার পথে বেশ ধিরে ব্যাট করেছেন। ৬৯ বলে ছুঁয়েছেন ফিফটি, যদিও পরের ১৫ বলে ৩০ রান নিয়ে ৮৪ বলে ৮০ রানে অপরাজিত ছিলেন। তার স্ট্রাইক রেট আরেকটু ভালো হলে ৯ উইকেটে ২৯০ এর পরিবর্তে আরও বড় সংগ্রহ পেরে পারতো দল।

যে সংগ্রহ ১৫ বল আর ৫ উইকেট হাতে রেখেই তাড়া করে জিম্বাবুয়ে। ৪৯ রানে ৪ উইকেট হারানোর পরও সিকান্দার রাজা ও অধিনায়ক রেগিস চাকাভার ২০১ রানের জুটিতে জয়টা মামুলি ব্যাপারে পরিণত হয়। দুজনেই পেয়েছেন সেঞ্চুরির দেখা, ৭৫ বলে চাকাভা ১০২ রান করে আউট হলেও ম্যাচ জিতিয়ে ১২৭ বলে ১১৭ রানে অপরাজিত রাজা।

ম্যাচ শেষে পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ দলপতি তামিম ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে বলেন, ‘পার্থক্যটা হল তাদের ৪ সেঞ্চুরির বিপরীতে আমাদের শূন্য সেঞ্চুরি। আমরা ভালো একটা সংগ্রহ পেয়েছিলাম। শুরুটাও ভালো হয়েছে কিন্তু কেউ সেটা টেনে নিতে পারেনি। শুরু থেকেই উইকেট ভালো ছিল।’

‘স্পিনারদের বিপক্ষে কাজটা সহজ ছিল না। পুরো কৃতিত্ব জিম্বাবুয়েকে দিতে হয়, সিরিজে তারা অনেক ভালো একটা দল হয়ে খেলেছে। আমরা আমাদের সেরা খেলাটা খেলতে পারিনি যে কারণে আমরা এখন এই অবস্থানে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

রাজা-চাকাভার জোড়া শতকে সিরিজ হারল বাংলাদেশ

Read Next

বিরল রেকর্ড গড়ে ভারতের বড় জয়

Total
7
Share