দেশের মাটিতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, রোমাঞ্চিত জ্যোতি

নিগার সুলতানা জ্যোতি

© ICC via Getty Images

Vinkmag ad

আইসিসির সর্বশেষ বোর্ড সভায় পরবর্তী চারটি নারী ইভেন্টের আয়োজক দেশ অনুমোদন দেয়। ২০২৪ সালের নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজনের সুযোগ পাচ্ছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশ ওয়ানডে অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতি ঘরের মাঠে দর্শকদের সামনে খেলার অপেক্ষায়।

এর আগে ২০১৪ সালে পুরুষদের পাশাপাশি নারীদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপও আয়োজন করে বাংলাদেশ। গতকাল (২৬ জুলাই) আইসিসি অনুমোদন দেওয়া চারটি ইভেন্টে নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০২৪ ও ২০২৬ এর আয়োজক বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ড। ২০২৫ নারী ওয়ানডে বিশ্বকাপের আয়োজক ভারত ও শর্ত সাপেক্ষে ২০২৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি আয়োজন করবে শ্রীলঙ্কা।

এমন খবরে দারুণ উচ্ছ্বসিত বাংলাদেশ নারী দলের ক্রিকেটাররা। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাছাই পর্ব সামনে রেখে মিরপুরে চলমান ক্যাম্পের ফাঁকে আজ (২৭ জুলাই) সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন জ্যোতি।

ঘরের মাঠের বিশ্বকাপ নিয়ে রোমাঞ্চিত জ্যোতি জানান, ‘খবরটা শোনার পর আমি খুব রোমাঞ্চিত। কারণ নিজের দেশে বিশ্বকাপ খেলার মতো সৌভাগ্য সবার হয় না। জানি না কি হবে..বেঁচে থাকলে, খেলার সুযোগ পেলে আমাদের জন্য বড় একটা বিষয়।’

‘নিজের দেশের একটা বাড়তি সুবিধা থাকে, দর্শকদের সমর্থন থাকে যা দলকে বুস্ট আপ করতে অনেক বেশি সাহায্য করে।’

আগে নারী ও পুরুষদের আইসিসি ইভেন্ট একসাথে আয়োজন হত। তবে সম্প্রতি আলাদা আলাদা সময় ও দেশে ইভেন্ট আয়োজনের পথে হাঁটছে আইসিসি। নারী ক্রিকেট ছড়িয়ে দেওয়ার লক্ষ্যে এমন সিদ্ধান্ত ইতিবাচক বলছেন জ্যোতি।

তার ভাষায়, ‘আইসিসি যখন থেকে নারীদের ইভেন্টগুলো ভাগাভাগি করতেছিল তখন থেকে ইন্টেনশন কিন্তু এটাই ছিল যেন আইসিসি নারী ক্রিকেটকে আরও বেশি প্রোমোট করতে পারে।’

‘আমার কাছে মনে যেহেতু শুধু এটা নারীদের বিশ্বকাপ, বিশ্বজুড়ে ভালো নজরে থাকবে, আর বাংলাদেশ ক্রিকেটেও ফোকাস থাকবে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ওয়ানডে র‍্যাংকিংয়ে কোহলিকে পেছনে ফেললেন ডি কক

Read Next

সালমার দেখানো পথে হাঁটতে ১১০ ভাগ দিবেন জ্যোতি

Total
1
Share