অধিনায়কত্বের সাথে কোচিংও করাতে হলে তো সমস্যা: সাকিব

featured photo updated 5
Vinkmag ad

দিনের পর দিন ব্যাটিং ব্যর্থতায় কাটাচ্ছে বাংলাদেশ দল। সদ্য সমাপ্ত অ্যান্টিগা টেস্টে বোলারদের নৈপুণ্য ম্লান হয়েছে টাইগার ব্যাটারদের হতশ্রী ব্যাটিংয়ে। দুই ইনিংসেই ফিফটি হাঁকানো অধিনায়ক সাকিব আল হাসান বলছেন সমস্যাটা টেকনিক্যাল ও মানসিক দুই বিভাগেই। তবে টেকনিক্যালি সমস্যার ব্যাপারটা চোখে পড়লেও নিজে আলোচনা করতে চাচ্ছেন না। জানালেন এটা তার কাজ নয়, অধিনায়কত্বের সাথে কোচিংটাও করাতে হলে দেখেন সমস্যা।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ করতে পেরেছে কেবল ১০৩ রান। অধিনায়ক সাকিবের ৫১ রানের সাথে তামিম ইকবালের ২৯ রানে মান বাঁচে। দলের ৬ ব্যাটারই যে ফিরেছে কোনো রান না করে।

১৬২ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করা বাংলাদেশ থামে ২৪৫ রানে। এ দফায়ও ১০৯ রানে ৬ উইকেট হারানোর পর ত্রানকর্তা সাকিব, এবার অবশ্য সঙ্গী হিসেবে পান সোহানকে। ১২৩ রানের জুটিতে ইনিংস পরাজয়ের শঙ্কা কাটিয়ে ক্যারিবিয়ানদের জন্য ৮৪ রানের লক্ষ্যও দেওয়া গেছে। যেখানে সাকিব ৬৩ ও সোহান করেছেন ৬৪ রান।

ব্যাটারদের এমন খারাপ সময়ের কারণ হিসেবে আগেরদিন কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো বলেছেন আত্মবিশ্বাসের ঘাটতি। তবে প্রথম ইনিংসে ব্যর্থতার পর অধিনায়ক সাকিব বলেছেন দায়িত্বটা ব্যাটারদেরই নিতে হবে। আজ ৭ উইকেটে ম্যাচ হারের পর সাকিব আরও কড়া ভাষায় দায় দিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে স্পষ্ট জানালেন শুধু মানসিক নয় টেকনিক্যালিও বেশ পিছিয়ে আছে টাইগার ব্যাটাররা, ‘না, টেকনিক্যালিও অনেক সমস্যা আছে। টেকনিক্যালি সাউন্ড এমন খেলোয়াড় খুব বেশি আছে আমাদের তা মনে হয় না। আমাদের দলের যারা আছে সবারই টেকনিক্যাল সমস্যা আছে। কিন্তু তাদের উপায় খুঁজে বের করতে হবে কীভাবে রান করতে হবে ক্রিজে থাকতে হবে। এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ, আর সেটা যার যার ব্যক্তিগতভাবে আনা সম্ভব।’

‘এটা কাউকে বলে দিয়ে কাজ হবে বলে আমার মনে হয় না। সুতরাং এটা ব্যক্তিগতভাবে সবাইকে দায়িত্ব নিতে হবে কীভাবে সে রানে ফিরতে পারে বা ক্রিজে বেশিক্ষণ সময় কাটাতে পারে। সব জায়গায় উন্নতি দরকার।’

যেহেতু সাকিব খুঁজে পেয়েছেন টেকনিক্যালি সমস্যা আছে সে ক্ষেত্রে কোচের সাথে আলাপ করে নির্দিষ্ট ব্যাটারকে নিয়ে কাজ করার পথেও হাঁটতে পারেন। তবে সাকিব নিজে এমন প্রশ্নে সাফ জানালেন কোচের ভূমিকা তিনি পালন করবেন না। যার যে কাজ সেটা তাকেই করতে হবে।

অ্যান্টিগা টেস্ট দিয়ে তৃতীয় দফায় অধিনায়কত্বের যাত্রা করা সাকিব এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘দেখেন এটা তো আসলে আমার খুব বেশি আলোচনার বিষয় না। কোচেরই আলোচনা করার বিষয়। এখন আমি যদি কোচিংও করি অধিনায়কত্বও করি তাহলেতো সমস্যা। আমার কাজ যতটুকু ততটুকুতে থাকা আমার মনে হয় বেটার। আমার দায়িত্ব যতটুকু ততটুকু পালন করার চেষ্টা করবো। বাকি যার যে কাজ তা তাদের জায়গা থেকে করলে সবার জন্য কাজটা সহজ হবে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

জয়ের আনুষ্ঠানিকতা সারতে ক্যাম্পবেল-ব্ল্যাকউডের লেগেছে ৮ ওভার

Read Next

সোহানের ইনিংস থেকে শেখার আছে বলছেন সাকিব

Total
59
Share