লাইভ রিপোর্টঃ খালেদের ‘৩’, অসাধ্য সাধনের স্বপ্ন দেখছে বাংলাদেশ

লাইভ রিপোর্টঃ খালেদের '৩', অসাধ্য সাধনের স্বপ্ন দেখছে বাংলাদেশ
Vinkmag ad

১৬ জুন অ্যান্টিগার স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস স্টেডিয়ামে শুরু হয়েছে বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার ১ম টেস্ট। দুই ম্যাচ সিরিজের ১ম টির ৩য় দিনের খুটিনাটি আপডেট এই লাইভ রিপোর্টে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (৩য় দিন শেষে):

বাংলাদেশ ১ম ইনিংসে ১০৩/১০ (৩২.৫), তামিম ২৯, জয় ০, শান্ত ০, মুমিনুল ০, লিটন ১২, সাকিব ৫১, নুরুল ০, মিরাজ ২, মুস্তাফিজ ০, এবাদত ৩*, খালেদ ০; রোচ ৮-২-২১-২, সিলস ১০-২-৩৩-৩, জোসেফ ৮.৫-২-৩৩-৩, মায়ের্স ৫-২-১০০-২

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১ম ইনিংসে ২৬৫/১০ (১১২.৫), ব্র্যাথওয়েট ৯৪, ক্যাম্পবেল ২৪, রেইফার ১১, বোনার ৩৩, ব্ল্যাকউড ৬৩, মায়ের্স ৭, জশুয়া ১, জোসেফ ০, রোচ ০, মোটি ২৩*, সিলস ১; মুস্তাফিজ ১৮-৭-৩০-১, খালেদ ২২-৪-৫৯-২, এবাদত ২৮-৮-৬৫-২, সাকিব ২১-৫-৪৮-১, মিরাজ ২২.৫-৬-৫৯-৪

বাংলাদেশ ২য় ইনিংসে ২৪৫/১০ (৯০.৫), তামিম ২২, জয় ৪২, মিরাজ ২, শান্ত ১৭, মুমিনুল ৪, লিটন ১৭, সাকিব ৬৩, নুরুল ৬৪, এবাদত ১, মুস্তাফিজ ৭, খালেদ ০*; রোচ ২৪.৫-১০-৫৩-৫, জোসেফ ১৯-৬-৫৫-৩, মায়ের্স ১৩-৩-৩০-২

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২য় ইনিংসে ৪৯/৩ (১৫), ব্র্যাথওয়েট ১, ক্যাম্পবেল ২৮*, রেইফার ২, বোনার ০, ব্ল্যাকউড ১৭*; খালেদ ৫-০-১৪-৩

ওয়েস্ট ইন্ডিজের জয়ের জন্য দরকার আর ৩৫ রান।

খালেদের ৩ উইকেটঃ

ইনিংসের ২য় ও খালেদ আহমেদের করা প্রথম ওভারের ১ম বলেই সাজঘরে ফেরেন উইন্ডিজ অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট। উইকেটের পেছনে নুরুল হাসান সোহানকে ক্যাচ দেন তিনি। খালেদ অবশ্য থামেননি এতেই, ওভারের ৫ম বলে রেইমন রেইফারারকে ফেরান তিনি। ৩ রানেই উইন্ডিজরা হারায় ২ উইকেট।

ইনিংসের ৪র্থ ওভারে এসে খালেদ ফেরান এনক্রুমাহ বোনারকেও। কোন রান না করা বোনার খালেদের নিচু হয়ে আসা ব্যাক অব লেংথ ডেলিভারিতে বোল্ড হন। ৯ রানেই নেই উইন্ডিজদের ৩ উইকেট।

বাংলাদেশ অলআউটঃ

৯০.৫ ওভারে ২৪৫ রান তুলে ২য় ইনিংসে অলআউট হল বাংলাদেশ। জয়ের জন্য শেষ ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের দরকার ৮৪ রান।  

সংক্ষিপ্ত স্কোর (বাংলাদেশের ২য় ইনিংস শেষে):

বাংলাদেশ ১ম ইনিংসে ১০৩/১০ (৩২.৫), তামিম ২৯, জয় ০, শান্ত ০, মুমিনুল ০, লিটন ১২, সাকিব ৫১, নুরুল ০, মিরাজ ২, মুস্তাফিজ ০, এবাদত ৩*, খালেদ ০; রোচ ৮-২-২১-২, সিলস ১০-২-৩৩-৩, জোসেফ ৮.৫-২-৩৩-৩, মায়ের্স ৫-২-১০০-২

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১ম ইনিংসে ২৬৫/১০ (১১২.৫), ব্র্যাথওয়েট ৯৪, ক্যাম্পবেল ২৪, রেইফার ১১, বোনার ৩৩, ব্ল্যাকউড ৬৩, মায়ের্স ৭, জশুয়া ১, জোসেফ ০, রোচ ০, মোটি ২৩*, সিলস ১; মুস্তাফিজ ১৮-৭-৩০-১, খালেদ ২২-৪-৫৯-২, এবাদত ২৮-৮-৬৫-২, সাকিব ২১-৫-৪৮-১, মিরাজ ২২.৫-৬-৫৯-৪

বাংলাদেশ ২য় ইনিংসে ২৪৫/১০ (৯০.৫), তামিম ২২, জয় ৪২, মিরাজ ২, শান্ত ১৭, মুমিনুল ৪, লিটন ১৭, সাকিব ৬৩, নুরুল ৬৪, এবাদত ১, মুস্তাফিজ ৭, খালেদ ০*; রোচ ২৪.৫-১০-৫৩-৫, জোসেফ ১৯-৬-৫৫-৩, মায়ের্স ১৩-৩-৩০-২

ওয়েস্ট ইন্ডিজের দরকার ৮৪ রান।

রোচ ফেরালেন সোহানকেওঃ 

দ্বিতীয় নতুন বল নেবার পরেই বাংলাদেশকে ব্যাকফুটে ফেলে দেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ, বিশেষ করে কেমার রোচ। ৮৩ তম ওভারের ১ম বলে সাকিবকে ফেরানোর পর ৮৭ তম ওভারের ৩য় বলে ফেরান আরেক সেট ব্যাটার সোহানকেও। ১৪৭ বলে ১১ চারে ৬৪ রান করেন সোহান।

পরে রোচের সঙ্গে উইকেট পাবার মিছিলে যোগ দেন আলঝারি জোসেফও। ১ ছয়ে ৭ রান করা মুস্তাফিজকে বোল্ড করেন তিনি। যা এই ইনিংসে তার ৩য় উইকেট।

ফিরলেন সাকিবঃ

ম্যাচে দুই দলের মধ্যে সর্বোচ্চ রানের জুটি গড়েন সাকিব আল হাসান ও নুরুল হাসান সোহান। ২য় ইনিংসে এই দুজনের ৭ম উইকেট জুটিতে লিড নেয় বাংলাদেশ। তবে তা ১২৩ এর বেশি বাড়তে দেননি কেমার রোচ। চা বিরতির পর নতুন বল হাতে নিয়ে সাকিবকে সাজঘরে ফেরান তিনি। ৯৯ বলে ৬ চারে ৬৩ রান করে ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েটকে ক্যাচ দেন সাকিব। ২৩২ রানের মাথায় ৭ম উইকেটের পতন, লিডের খাতায় যখন ৭০।

সোহানের ফিফটিঃ

২০১৮ সালে এই অ্যান্টিগাতেই ক্যারিয়ারের ২য় টেস্ট খেলতে নেমে করেছিলেন প্রথম ফিফটি, সেটিও দলের ২য় ইনিংসে। আজ দ্বিতীয় ফিফটি পেলেন একই ভেন্যুতে, দলের দ্বিতীয় ইনিংসেই। নুরুল হাসান সোহানের ফিফটিতে বাংলাদেশের লিড পেরিয়েছে ৫০ এর গন্ডি।

টি ব্রেকঃ

লাঞ্চ বিরতির পর থেকে চা বিরতির আগ অব্দি কোন উইকেট হারায়নি বাংলাদেশ। এই সময়ে সাকিব ও নুরুল রান যোগ করেছেন ৯৫। ৬ উইকেটে ২১০ রান নিয়ে চা বিরতিতে গেছে বাংলাদেশ। ৫৩ রানে অপরাজিত সাকিব, ৪৯ রানে সোহান। বাংলাদেশের লিড ৪৮ রানের। 

সাকিবের ফিফটি, বাংলাদেশের ২০০ পারঃ

মিরপুরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৫৮, অ্যান্টিগায় চলমান টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৫১ রান করা সাকিব ফিফটির হ্যাটট্রিক করলেন। শেষ ৬ টেস্ট ইনিংসে এটি সাকিবের ৪র্থ ফিফটি, সবমিলে ২৯ তম।

সাকিবের ফিফটি হবার ওভারের শেষ বলে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে বাংলাদেশের রান ২০০ পার করান নুরুল হাসান সোহান।

লিড নিল বাংলাদেশঃ 

৩য় দিনের প্রথম সেশনে ৪ উইকেট হারিয়ে বিপাকে ছিল বাংলাদেশ, শঙ্কা ছিল ইনিংস ব্যবধানে পরাজয়েরও। তবে লাঞ্চ বিরতির পর সাকিব আল হাসান ও নুরুল হাসান সোহানের জুটিতে সে শঙ্কা দূর করে বাংলাদেশ। ৬২ তম ওভারের শেষ বলে নুরুল হাসান জেইডেন সিলসের বলে বাউন্ডারি হাকালে লিড নেয় বাংলাদেশ।

লাঞ্চ ব্রেকঃ

৬ উইকেটে ১১৫ রান নিয়ে লাঞ্চ বিরতিতে গেছে বাংলাদেশ। ইনিংস ব্যবধানে হার এড়াতে এখনও সাকিব আল হাসানের দলের দরকার ৪৭ রান। ৫ রান নিয়ে সাকিব ও ২ রান নিয়ে নুরুল হাসান সোহান লাঞ্চের পর ব্যাটিং করতে নামবেন।

এই সেশনে ২৯ ওভার ব্যাট করে ৪ উইকেট হারিয়েছে বাংলাদেশ, রান এসেছে ৬৫।

সাজঘরে জয়ঃ

অন্যপ্রান্তে সতীর্থদের যাওয়া আসা দেখলেও মাহমুদুল হাসান জয় ছিলেন অবিচল। ধৈর্যের প্রমাণ দিয়ে ছুটছিলেন ফিফটির দিকে। তবে একটু মতিভ্রমেই ফেরত যেতে হয়েছে সাজঘরে। কেমার রোচের অফসাইডের বাইরে ব্যাক অব লেংথের বলে কাট করতে যেয়ে ক্যাচ দেন উইকেটরক্ষকের হাতে।

ফিরলেন লিটনওঃ 

১০০ এর বেশি স্ট্রাইক রেট নিয়ে খেলছিলেন লিটন দাস। আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে খেলতে থাকা লিটনের কাল হয় ঐ আগ্রাসী ঢংই। কেমার রোচের শর্ট ও অফসাইডের বাইরের বল চেজ করতে যেয়ে সেকেন্ড স্লিপে ক্যাচ দেন লিটন, যা ধরতে ভুল করেননি কাইল মায়ের্স। ১৫ বলে ৩ চারে লিটনের অবদান ১৭ রান। ১০০ রানেই নেই বাংলাদেশের ৫ উইকেট।

মুমিনুলের ব্যর্থতা চলছেইঃ

ব্যর্থতার বৃত্ত থেকে বের হতেই পারছেন না মুমিনুল হক। প্রথম টেস্টে কোন রান না করা মুমিনুল ২য় ইনিংসে আউট হয়েছেন মাত্র ৪ রান করে। ১২ বল স্থায়ী ইনিংসে অবশ্য আরও ২ বার আউট হতে পারতেন তিনি। কাইল মায়ের্সের বলে ইনসাইড এইজে অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন, বল স্টাম্পের কাছ দিয়ে যেয়ে পার হয়েছিল বাউন্ডারি। অল্পের জন্য রান আউট হতে হতে বেঁচেছিলেন। তবে শেষ রক্ষা হয়নি, মায়ের্সের বলেই লেগ বিফোর উইকেটের ফাঁদে পড়েন। রিভিউ নিয়েও লাভ হয়নি। 

ফিরলেন শান্তঃ 

২০ ওভারে ২ উইকেটে ৫০ রান নিয়ে ২য় দিনের খেলা শেষ করেছিল বাংলাদেশ। ৩য় দিনে এসে আর ১৪ রান যোগ করতেই ৩য় উইকেট হারিয়েছে সফরকারীরা।

কাইল মায়ের্সের বলে সেকেন্ড স্লিপে জন ক্যাম্পবেলকে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন নাজমুল হোসেন শান্ত। ৪৫ বলে ৩ চারে ১৭ রান করেন তিনি। ৬৪ রানে নেই বাংলাদেশের ৩ উইকেট।

ম্যাচ দেখুন সরাসরিঃ

সংক্ষিপ্ত স্কোর (২য় দিন শেষে):

বাংলাদেশ ১ম ইনিংসে ১০৩/১০ (৩২.৫), তামিম ২৯, জয় ০, শান্ত ০, মুমিনুল ০, লিটন ১২, সাকিব ৫১, নুরুল ০, মিরাজ ২, মুস্তাফিজ ০, এবাদত ৩*, খালেদ ০; রোচ ৮-২-২১-২, সিলস ১০-২-৩৩-৩, জোসেফ ৮.৫-২-৩৩-৩, মায়ের্স ৫-২-১০০-২

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১ম ইনিংসে ২৬৫/১০ (১১২.৫), ব্র্যাথওয়েট ৯৪, ক্যাম্পবেল ২৪, রেইফার ১১, বোনার ৩৩, ব্ল্যাকউড ৬৩, মায়ের্স ৭, জশুয়া ১, জোসেফ ০, রোচ ০, মোটি ২৩*, সিলস ১; মুস্তাফিজ ১৮-৭-৩০-১, খালেদ ২২-৪-৫৯-২, এবাদত ২৮-৮-৬৫-২, সাকিব ২১-৫-৪৮-১, মিরাজ ২২.৫-৬-৫৯-৪

বাংলাদেশ ২য় ইনিংসে ৫০/২ (২০), তামিম ২২, জয় ১৮*, মিরাজ ২, শান্ত ৮*; জোসেফ ৬-২-১৪-২

বাংলাদেশ ১১২ রানে পিছিয়ে।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

রিয়াদরা না পারলেও মোহামেডানকে শিরোপা জেতালেন সালমা-রুমানারা

Read Next

টেস্ট ক্রিকেটকে বিদায় বললেন ইংলিশ তারকা ক্যাথরিন ব্রান্ট

Total
16
Share