‘জাতীয় দলের মতো জাতীয় দলের বাইরেও খেলতে হবে’

'জাতীয় দলের মতো জাতীয় দলের বাইরেও খেলতে হবে'
Vinkmag ad

২০২০ সালে সর্বশেষ বাংলাদেশের জার্সি গায়ে চাপান আল-আমিন হোসেন। চোট কাটিয়ে আবার স্বপ্ন দেখেন জাতীয় দলে ফেরার। তবে নিজেকে শুধু জাতীয় দল কেন্দ্রীক না ভেবে ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো খেলে যাওয়ার মন্ত্রে বিশ্বাস এই পেসারের।

তার মতে জাতীয় দলের বাইরে ভালো খেললেই কেবল প্রত্যাবর্তনের রাস্তাটা তৈরি হবে। বর্তমানে বাংলাদেশ টাইগার্সের ক্যাম্পে নিজের ভুল, ত্রুটি নিয়ে কাজ করছেন। যেখানে পেসারদের দেখভাল করছেন জাতীয় দলের সাবেক পেসার তালহা জুবায়ের, নাজমুল হোসেনরা।

আজ (১৪ জুন) মিরপুরে অনুশীলন শেষে সংবাদ মাধ্যমের সাথে আলাপে আল-আমিন বলেন, ‘ক্রিকেট খেলতে হলে জাতীয় দলের মত জাতীয় দলের বাইরেও খেলতে হবে। এটাই আসলে জীবন। যখন জাতীয় দলে খেলিনি তখন তো বাইরে পারফর্ম করেই দলে ঢুকেছি। ইনজুরির কারণে জাতীয় দলে ছিলাম না। চেষ্টা করছি পারফর্ম করে কীভাবে আবার কামব্যাক করা যায়।’

জাতীয় দলের বাইরে থাকা ক্রিকেটারদের নিয়ে বাংলাদেশ টাইগার্স ক্যাম্প শুরু করে বিসিবি। চোট কিংবা বাজে পারফরম্যান্সে ছিটকে যাওয়াদের প্রস্তুত রাখতেই এই মূলত এই কার্যক্রম। এমন কিছুকে সাধুবাদ জানালেন বাংলাদেশের হয়ে ৭ টেস্ট, ১৫ ওয়ানডে ও ৩১ টি-টোয়েন্টি খেলা আল-আমিন।

তিনি বলেন, ‘খুব ভালো একটা প্র্যাকটিসের ব্যবস্থা হয়েছে, ক্রিকেট বোর্ডকে ধন্যবাদ জানাই। আমরা যারা জাতীয় দলের সাথে সংযুক্ত নেই তাদেরকে নিয়ে ক্যাম্পে স্থানীয় কোচ তালহা ভাই, নাজমুল ভাইরা খুব ভালো কাজ করছেন। অনেক দিন ধরে হয়ত আমরা খেলছি কিন্তু নিজেদের ভুলভ্রান্তি ধরতে পারছিলাম না। এখানে ভিডিও হচ্ছে, যার যে সমস্যা সেটা নিয়ে নির্দিষ্ট করে কাজ হচ্ছে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জয়ের অপেক্ষায় পুরান

Read Next

ওয়েস্ট ইন্ডিজে বাংলাদেশের পেসাররা এগিয়ে বলছেন আল আমিন

Total
9
Share