ব্যাটারদের দাপটের পর নবির স্পিন ঘূর্ণি, জয়ে সিরিজ শুরু আফগানদের

ব্যাটারদের দাপটের পর নবীর স্পিন ঘূর্ণি, জয়ে সিরিজ শুরু আফগানদের
Vinkmag ad

হারারেতে জিম্বাবুয়েকে সহজেই হারাল সফরকারী আফগানিস্তান দল। আফগানদের করা ২৭৬ রান টপকাতে নেমে জিম্বাবুয়ের ইনিংস থামে ২১৬’তে। আর তাতেই প্রথম ওয়ানডেতে ৬০ রানের জয় তুলে সিরিজে ১-০’তে এগিয়ে গেল হাশমতউল্লাহ শহীদির দল।

প্রথমে ব্যাট করে আফগানিস্তান নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৫ উইকেটের বিনিময়ে স্কোরবোর্ডে জমা করে ২৭৬ রান। জবাবে ২১৬ রানে অল-আউট হয়ে যায় জিম্বাবুয়ে। ৯৪ রানের অনবদ্য এক ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরার পুরষ্কার জেতেন আফগান ব্যাটার রহমত শাহ।

জিম্বাবুয়ের হারারে স্পোর্টস গ্রাউন্ডে টস জিতে আগে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন স্বাগতিক ক্যাপ্টেন ক্রেইগ আরভিন। শুরুতেই ব্লেসিং মুজারাবানির আঘাতে ব্যক্তিগত ৫ রানে উইকেট হারান ওপেনার ইব্রাহিম জাদরান। থিতু হয়েও ইনিংস বড় করতে পারলেন না রহমানউল্লাহ গুরবাজ (১৭ রান, ৩১ বলে)। দলীয় ৩৮ রানে নেই দুই ওপেনার।

এরপর অবশ্য আফগানরা লড়াইয়ে ফেরে তিনে নামা রহমত শাহ ও অধিনায়ক হাশমতউল্লাহ শহীদির ব্যাটে। ফিফটি হাঁকিয়ে দু’জনই ধরেন সেঞ্চুরির পথ। কিন্তু দুর্ভাগ্যক্রমে শতরানে পৌঁছাতে পারেননি কেউই। পরপর দুই ওভারে দু’জনকেই প্যাভিলিয়নে ফেরালেন ব্লেসিং মুজারাবানি। ভাঙে ১৮১ রানের রেকর্ড গড়া জুটি। হাশমতউল্লাহ শহীদি ৮৮ এবং রহমত শাহর ব্যাট থেকে আসে ৯৪ রানের ইনিংস।

মুজারাবানির চতুর্থ শিকার ১০ রান করা মোহাম্মদ নবি। শেষদিকে ক্যামিও চালিয়ে দলের সংগ্রহ ২৭৬’এ নিয়ে গেলেন রাশিদ খান। ১৭ বলে ৪ চার ও ২ ছয়ে অপরাজিত থাকেন ৩৯ রানে।

বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই বিপাকে স্বাগতিকরা। ব্যক্তিগত ১ রানে সাজঘরে ফেরেন রেজিস চাকাভা। এরপর ওপেনার ইনোসেন্ট কায়ার সঙ্গে ক্রেইগ আরভিনের ৬১ রানের জুটিতে দল পায় স্বস্তি। ৪০ বলে ৩০ রান করে অধিনায়ক আরভিন আউট হলে ভাঙে জুটি।

১১ রান করা ওয়েসলে মাধেবেরেকে ফিরিয়ে মোহাম্মদ নবি তুলে নেন নিজের প্রথম উইকেট। এরপর ওপেনার ইনোসেন্ট কায়াকে (৩৯) ফেলেন লেগ বিফোরের ফাঁদে। নবির তৃতীয় শিকারে পরিণত হন মিল্টন শুম্বা (৫)। ব্যক্তিগত ১৩ রানে রায়ান বার্লকে বোল্ড করে নবি দখলে নেন টানা ৪র্থ উইকেট। নিজের ১০ ওভারের কোটায় মাত্র ৩৪ রান খরচায় নবি তুলে নেন এই ৪ উইকেট।

উইকেটের একপ্রান্তে দাঁড়িয়ে সিকান্দার রাজা ব্যাট হাতে লড়াই চালিয়ে যান একাই। যোগ্য সঙ্গ না পেলেও তিনি ঠিকই হাঁকিয়েছেন অর্ধশতরান। শেষপর্যন্ত তাঁর ৬৭ রানের ইনিংস থামে রাশিদ খানের লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ে। ডোনাল্ড তিরিপানোর ব্যাট থেকে আসে ১৫ রান। ব্লেসিং মুজারাবানি ১০ ও টেন্ডাই চাতারা (৮)ইনিংসের শেষ বলে এসে উইকেট হারালে অল-আউট হয়ে যায় স্বাগতিকরা। সবকটি উইকেট হারিয়েও জিম্বাবুয়ে ২১৬ রানের বেশি তুলতে পারেনি। ফলে ৬০ রান জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়ে আফগানিস্তান।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

মুশফিকের পরিবর্তে খেলবে রাব্বি, দেখতে মুখিয়ে সিডন্স

Read Next

ইংল্যান্ডের জয় ও পরাজয়ের মাঝে জো রুটের ব্যাট

Total
6
Share