হাসিমুখেই দিন শেষ করল বাংলাদেশ

হাসিমুখেই দিন শেষ করল বাংলাদেশ
Vinkmag ad

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ১৫ মে থেকে শুরু হয়েছে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার ১ম টেস্ট। এই টেস্টের চতুর্থ দিনের খুটিনাটি আপডেট এই লাইভ রিপোর্টে।

হাসিমুখেই দিন শেষ করল বাংলাদেশঃ 

৪র্থ দিনে নিজেদের শেষ ইনিংসে ২ উইকেট হারিয়েছে শ্রীলঙ্কা। দুইটি উইকেটেই অবদান রেখেছেন তাইজুল ইসলাম। ওশাদা ফার্নান্দোকে ফিরিয়েছেন ডিরেক্ট থ্রোতে। নাইট ওয়াচম্যান হিসাবে নামা লাসিথ এম্বুলদেনিয়াকে ফিরিয়েছেন বোল্ড করে। ২ উইকেটে ৩৯ রান নিয়ে দিন শেষ করেছে সফরকারীরা, বাংলাদেশ এখনো এগিয়ে ২৯ রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (৪র্থ দিন শেষে)ঃ

শ্রীলঙ্কা ১ম ইনিংসে ৩৯৭/১০ (১৫৩), ওশাদা ৩৬, করুনারত্নে ৯, মেন্ডিস ৫৪, ম্যাথুস ১৯৯, ধনঞ্জয়া ৬, চান্দিমাল ৬৬, ডিকওয়েলা ৩, রমেশ ১, এম্বুলদেনিয়া ০, বিশ্ব ১৭*, আসিথা ১; নাইম ৩০-৪-১০৫-৬, তাইজুল ৪৮-১২-১০৭-১, সাকিব ৩৯-১২-৬০-৩

বাংলাদেশ ১ম ইনিংসে ৪৬৫/১০ (১৭০.১) জয় ৫৮, তামিম ১৩৩, শান্ত ১, মুমিনুল ২, মুশফিক ১০৫, লিটন ৮৮, সাকিব ২৬, নাইম ৯, তাইজুল ২০, শরিফুল ৩ (রিটায়ার্ড আউট), খালেদ ০*; আসিথা ২৬-৪-৭২-৩, এম্বুলদেনিয়া ৪৭-৯-১০৪-১, ধনঞ্জয়া ১৯-২-৪৮-১, রাজিথা ২৪.১-৬-৬০-৪

শ্রীলঙ্কা ২য় ইনিংসে ৩৯/২ (১৭.১), ওশাদা ১৯, করুনারত্নে ১৮*, এম্বুলদেনিয়া ২; তাইজুল ১.১-১-০-১

শ্রীলঙ্কা ২য় ইনিংসে ২৯ রানে পিছিয়ে।

তাইজুলের থ্রোতে এল প্রথম উইকেটঃ 

প্রথম উইকেট পেতে বাংলাদেশের অপেক্ষা বাড়ছিল। অবশেষে ১২ তম ওভারে তাইজুলের হাত ধরে এল সাফল্য। না, বোলিং করে উইকেট পাননি তাইজুল। বরং সাকিবের বলে ডিরেক্ট থ্রোতে উইকেট ভেঙে ওশাদা ফার্নান্দোকে সাজঘরের পথ দেখান তাইজুল।

৪৬৫ তে থামল বাংলাদেশের ইনিংসঃ

মুশফিকুর রহিম ৭ম ব্যাটার হিসাবে আউট হবার পর বাংলাদেশ যোগ করেছে ২৬ রান। যার ২০ রানই এসেছে তাইজুল ইসলামের ব্যাটে। শরিফুল ইসলাম রিটায়ার্ড আউট হলে ৪৬৫ তে থামে বাংলাদেশের ইনিংস। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের লিড ৬৮।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (দুই দলের ১ম ইনিংস শেষে)ঃ

শ্রীলঙ্কা ১ম ইনিংসে ৩৯৭/১০ (১৫৩), ওশাদা ৩৬, করুনারত্নে ৯, মেন্ডিস ৫৪, ম্যাথুস ১৯৯, ধনঞ্জয়া ৬, চান্দিমাল ৬৬, ডিকওয়েলা ৩, রমেশ ১, এম্বুলদেনিয়া ০, বিশ্ব ১৭*, আসিথা ১; নাইম ৩০-৪-১০৫-৬, তাইজুল ৪৮-১২-১০৭-১, সাকিব ৩৯-১২-৬০-৩

বাংলাদেশ ১ম ইনিংসে ৪৬৫/১০ (১৭০.১) জয় ৫৮, তামিম ১৩৩, শান্ত ১, মুমিনুল ২, মুশফিক ১০৫, লিটন ৮৮, সাকিব ২৬, নাইম ৯, তাইজুল ২০, শরিফুল ৩ (রিটায়ার্ড আউট), খালেদ ০*; আসিথা ২৬-৪-৭২-৩, এম্বুলদেনিয়া ৪৭-৯-১০৪-১, ধনঞ্জয়া ১৯-২-৪৮-১, রাজিথা ২৪.১-৬-৬০-৪।

১ম ইনিংসে বাংলাদেশ ৬৮ রানে এগিয়ে।

সুইপ করতে যেয়ে বোল্ড মুশফিকঃ 

লাঞ্চের মত চা বিরতির পরেও সাফল্য পেল লঙ্কান বোলাররা। লাসিথ এম্বুলদেনিয়ার বলে সুইপ করতে যেয়ে বোল্ড হলেন মুশফিকুর রহিম। ২৮২ বলে ৪ চারে ১০৫ রান আসে তার ব্যাট থেকে।

বাউন্ডারি হাঁকিয়ে সেঞ্চুরি পূর্ণ করলেন মুশফিকঃ

২৭০ বলে সেঞ্চুরি করার পথে মাত্র ৪ টি বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন মুশফিকুর রহিম। যার চতুর্থটি এসেছে ২৭০ তম বলে। আসিথা ফার্নান্দোকে চার মেরে সেঞ্চুরি উদযাপনে মাতেন মুশফিক। টেস্ট ক্যারিয়ারে এটি মুশফিকের ৮ম সেঞ্চুরি। বাংলাদেশের পক্ষে তার চেয়ে বেশি সেঞ্চুরি আছে কেবল তামিম ইকবাল (১০) ও মুমিনুল হকের (১১)।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by cricket97 (@cricket97bd)

ফিরলেন সাকিবঃ

শর্ট বলেই সাকিব আল হাসানকে পরাস্ত করলেন আসিথা ফার্নান্দো। পুল করার চেষ্টায় ব্যাটে-বলে ঠিক যেভাবে করতে চেয়েছিলেন, সেভাবে করতে পারেননি। ৪৪ বলে ৩ চারে ২৬ রান করা সাকিব উইকেটের পেছনে নিরোশান ডিকওয়েলাকে দেন সহজতম ক্যাচ। ৪২১ রানের মাথায় বাংলাদেশ হারায় ৬ষ্ঠ উইকেট।

লিড নিল বাংলাদেশঃ

১৪০ তম ওভারের ২য় বলে রমেশ মেন্ডিসের বলে ডাবল নিয়ে বাংলাদেশের রান শ্রীলঙ্কার সমান করেন সাকিব আল হাসান। ১ বল বাদে নিলেন সিঙ্গেল, তাতে নিশ্চিত হয় বাংলাদেশের লিড।

লাঞ্চের পরেই বাংলাদেশের কলাপ্সঃ 

৩ উইকেটে ৩৮৫ রান নিয়ে লাঞ্চ বিরতিতে গিয়েছিল বাংলাদেশ দল, বলা চলে স্বস্তি নিয়েই। ৭ উইকেট হাতে রেখে শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংসের চেয়ে ১২ রান পিছিয়ে ছিল টাইগাররা।

তবে লাঞ্চের পর প্রথম ওভারেই অস্বস্তি। কাসুন রাজিথার করা প্রথম দুই বলেই সাজঘরে লিটন দাস ও তামিম ইকবাল। ৮৮ রান করা লিটন অফসাইডের বাইরের বল খোচা দিয়ে উইকেটের পেছনে ধরা পড়েন।

পরবর্তী বলেই বোল্ড হন তামিম ইকবাল। আগের দিন ১৩৩ রান করে রিটায়ার্ড হার্ট হওয়া তামিম আজ কোন রানই যোগ করতে পারেননি।

হ্যাটট্রিক বলটা ঠেকিয়ে দেন সাকিব আল হাসান। উল্লেখ্য, এই ম্যাচে মাথায় আঘাত পাওয়া বিশ্ব ফার্নান্দোর কনকাশন সাব হয়ে খেলছেন কাসুন রাজিথা।

স্বস্তি নিয়ে লাঞ্চ বিরতিতে বাংলাদেশঃ

৩ উইকেটে ৩১৮ রান নিয়ে ৪র্থ দিন শুরু করেছিল বাংলাদেশ। দিনের প্রথম সেশনে কোন উইকেট হারায়নি বাংলাদেশ। যদিও লিটন দাস ও মুশফিকুর রহিম মিলে তুলেছেন ৬৭ রান। দুজনই আছেন সেঞ্চুরির পথে। লিটন দাস অপরাজিত ৮৮ রানে, মুশফিকুর রহিম ৮৫ রানে।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by cricket97 (@cricket97bd)

লিটন-মুশফিক জুটিতে ১৫০ পারঃ

৩য় দিন চা বিরতির পর জুটি বেধে খেলা শুরু করেছিলেন মুশফিকুর রহিম ও লিটন দা। চতুর্থ দিন লাঞ্চ বিরতির আগেই এই জুটি পুর্ন করে ফেলেছে ১৫০ রান। ৩২২ বলে ১৫০ পুর্ণ করে এই জুটি, যেখানে মুশফিকের অবদান ৬১, লিটনের ৮৩।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by cricket97 (@cricket97bd)

পাঁচ হাজারি ক্লাবে মুশফিকঃ

২০০০ সালে প্রথমবার টেস্ট খেলে বাংলাদেশ। এখন অব্দি গুনে গুনে ১০০ জন ক্রিকেটার পেয়েছেন টেস্ট ক্যাপ। এই ১০০ ক্রিকেটারের মধ্যে ৫০ এর বেশি টেস্ট খেলেছে মাত্র ৭ জন। সবচেয়ে বেশি ৮১* টেস্টে বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করার রেকর্ড মুশফিকুর রহিমেরই।

বাংলাদেশের পক্ষে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ড মুশফিকের দখলে। এবার হলেন প্রথম ব্যাটার হিসাবে ৫০০০ রানের মাইলফলক স্পর্শ করা ব্যাটার।

৪৯৩২ রান নিয়ে চট্টগ্রাম টেস্ট খেলতে নেমেছিলেন মুশফিক। তৃতীয় দিন পার করেছিলেন ৪৯৮৫ রান নিয়ে। আজ চতুর্থ দিনে এসে বাকি ১৫ রান তুলে নেন, গড়েন রেকর্ড।

বৃষ্টির কারণে খেলা শুরু হতে দেরিঃ

ভেজা আউটফিল্ডের কারণে চট্টগ্রামে চতুর্থ দিনের খেলা শুরু হতে দেরি হচ্ছে। সকাল ১০ টায় খেলা শুরু হবার কথা থাকলেও তা শুরু হবে সাড়ে ১০ টায়। যদি এর মধ্যে আর বৃষ্টি না আসে। 

সংক্ষিপ্ত স্কোর (৩য় দিন শেষে):

শ্রীলঙ্কা ১ম ইনিংসে ৩৯৭/১০ (১৫৩), ওশাদা ৩৬, করুনারত্নে ৯, মেন্ডিস ৫৪, ম্যাথুস ১৯৯, ধনঞ্জয়া ৬, চান্দিমাল ৬৬, ডিকওয়েলা ৩, রমেশ ১, এম্বুলদেনিয়া ০, বিশ্ব ১৭*, আসিথা ১; নাইম ৩০-৪-১০৫-৬, তাইজুল ৪৮-১২-১০৭-১, সাকিব ৩৯-১২-৬০-৩

বাংলাদেশ ১ম ইনিংসে ৩১৮/৩ (১০৭), জয় ৫৮, তামিম ১৩৩ (রিটায়ার্ড হার্ট), শান্ত ১, মুমিনুল ২, মুশফিক ৫৩*, লিটন ৫৪*; আসিথা ১৬-২-৫৫-১, রাজিথা ১১-৪-১৭-২

৩য় দিন শেষে বাংলাদেশ ১ম ইনিংসে ৭৯ রান পিছিয়ে।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

শ্রীলঙ্কা দলের রিবিল্ডিং, সাকিবের উদাহরণ দিলেন রোশান আবেসিংহে

Read Next

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে মুম্বাইকে হারাল হায়দ্রাবাদ

Total
13
Share