শহীদ আফ্রিদি মিথ্যাবাদী এবং চরিত্রহীন: কানেরিয়া

শহীদ আফ্রিদি দানিশ ক্যানেরিয়া
Vinkmag ad

‘মিথ্যাবাদী এবং চরিত্রহীন’ শহীদ আফ্রিদি দ্বারা আমি সবসময় অপমানিত হয়েছি: দানিশ কানেরিয়া।

হিন্দু বলেই খারাপ ব্যবহার করত শহীদ আফ্রিদি, আর এভাবেই যে কানেরিয়ার ক্যারিয়ার ধ্বংস করে দিয়েছেন। তাইতো কানেরিয়া অভিযোগ করেছেন যে আফ্রিদি একজন ‘মিথ্যাবাদী’। আজীবন নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে নিতে পিসিবিকে করলেন অনুরোধ।

প্রাক্তন অধিনায়ক ও কিংবদন্তি অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদিকে নিয়ে চমকপ্রদ তথ্য জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রাক্তন স্পিনার দানিশ কানেরিয়া। তিনি অভিযোগ করেছেন যে আফ্রিদি চরিত্রহীন এবং মিথ্যাবাদী ছিলেন, পাকিস্তান জাতীয় দলে খেলার সময় শুধুমাত্র হিন্দু হওয়ার কারণে তাঁর সাথে দুর্ব্যবহার করেছিলেন আফ্রিদি।

কানেরিয়া আইএএনএসকে বলেছেন,

‘শোয়েব আখতারই প্রথম ব্যক্তি যিনি আমার সমস্যা নিয়ে জনসমক্ষে কথা বলেছিলেন। এটা বলার জন্য তাঁকে কুর্নিশ জানায় (হিন্দু হওয়ার কারণে দলে আমার সাথে কীভাবে দুর্ব্যবহার করা হয়েছিল)। যদিও পরে একাধিক কর্তৃপক্ষের চাপে পড়েন তিনি। এরপর তিনি এ বিষয়ে কথা বলা বন্ধ করে দেন।’

‘তবে হ্যাঁ, এটি আমার সাথে ঘটেছে। শাহিদ আফ্রিদির দ্বারা আমি সব সময় হেয় হয়েছি। আমরা একই বিভাগের হয়ে একসঙ্গে খেলতাম; তিনি আমাকে বেঞ্চে রাখতেন এবং একদিনের টুর্নামেন্টে খেলতে দেননি। তিনি আমাকে দলে রাখতে চাননি। তিনি একজন মিথ্যাবাদী, কারসাজি করতেন, কারণ তিনি একজন চরিত্রহীন ব্যক্তি। যাইহোক, আমার মনোযোগ রাখতাম শুধুমাত্র ক্রিকেটে এবং আমি এই সমস্ত কৌশল উপেক্ষা করতাম।’

‘শহীদ আফ্রিদিই একমাত্র ব্যক্তি যে অন্য খেলোয়াড়দের কাছে গিয়ে তাদের আমার বিরুদ্ধে উস্কানি দিত। আমি ভালো পারফর্ম করছিলাম তবুও সে আমাকে ঈর্ষা করছিল। কিন্তু আমি গর্বিত যে আমি পাকিস্তানের হয়ে খেলেছি। আমি কৃতজ্ঞ ছিলাম।’

এদিকে, স্পট-ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে জড়িত থাকার অভিযোগে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) দ্বারা নিষিদ্ধ হওয়া কানেরিয়া বলেছেন যে সমস্ত দাবি মিথ্যা এবং তাঁর সাথে যা হয়েছে তা কেবল আফ্রিদির কারণে হয়েছে। তিনি দাবি করেন যে আফ্রিদি দায়ী নয়তো তিনি পাকিস্তানের হয়ে ১৮টি ওয়ানডে খেলার চেয়ে বেশি খেলতে পারতেন।

৪১ বছর বয়সী কানেরিয়া আরও ব্যাখ্যা করেছেন,

‘আমার বিরুদ্ধে কিছু মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়েছিল (স্পট-ফিক্সিংয়ের)। মামলায় জড়িত ব্যক্তির সঙ্গে আমার নাম যুক্ত করা হয়েছে। তিনি আফ্রিদি সহ অন্যান্য পাকিস্তানি ক্রিকেটারদেরও বন্ধু ছিলেন। কিন্তু কেন আমাকে টার্গেট করা হয়েছে তা আমি জানি না। আমি শুধু পিসিবিকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার অনুরোধ করতে চাই যাতে আমি আমার কাজ করতে পারি।’

এসেক্সের হয়ে খেলার সময় ফিক্সিংয়ে জড়িত থাকায় ২০১২ সালে কানেরিয়াকে আজীবন নিষেধাজ্ঞা দেয় ইসিবি। ওই নিষেধাজ্ঞায় সমর্থন জানায় পিসিবিও। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে অন্তত শান্তিতে থাকতে চান লেগ স্পিনার দানিশ কানেরিয়া।

তবে তাঁর জন্য পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকে করলেন অনুরোধ। কিন্তু পিসিবি ইচ্ছা করে তাঁর সাথে অন্যায় করছে বলে মনে করেন কানেরিয়া,

‘অনেক ফিক্সার আছেন যারা নিষেধাজ্ঞা থেকে বেরিয়ে এসেছেন। আমি জানি না কেন আমার বেলায় এমন ব্যবস্থা হচ্ছে না। আমি আমার দেশের হয়ে খেলেছি এবং অন্যদের মতো আমাকেও সুযোগ দেওয়া উচিত। এখন আমি কোনো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটও খেলছি না। আমি পিসিবিকে কোনো কাজের জন্য বলছি না, তবে দয়া করে এই নিষেধাজ্ঞা তুলে নিন যাতে আমি শান্তিতে থাকতে পারি এবং সম্মানের সাথে আমার কাজ করতে পারি।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

দুবাইতে ভালো খেলে ঈদের আনন্দকে ছাড়িয়ে যেতে চান জাহানারা

Read Next

জানুয়ারিতে দক্ষিণ আফ্রিকায় নতুন টি-টোয়েন্টি লিগ, থাকবে বিদেশি খেলোয়াড়

Total
1
Share