ক্রিকেটের চাইতে ক্রিকেটের বাইরের ব্যাপারে চিন্তিত বাংলাদেশ বলছেন আকরাম

ক্রিকেটের চাইতে ক্রিকেটের বাইরের ব্যাপারে চিন্তিত বাংলাদেশ বলছেন আকরাম
Vinkmag ad

খেলার চেয়ে খেলার বাইরের আলোচনা বেশি হওয়াটা বাংলাদেশের ক্রিকেট সংস্কৃতি হয়ে দাঁড়িয়েছে। সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের টেস্ট সিরিজে বাজেভাবে হোয়াইট ওয়াশড হওয়া বাংলাদেশ দলের পারফরম্যান্সেও প্রভাব পড়েছে সেসবের। এমনটাই মনে করেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক আকরাম খান।

ইতিহাস গড়ে দক্ষিণ আফ্রিকায় ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে বাংলাদেশ। কিন্তু টেস্ট সিরিজেই মুখ থুবড়ে পড়ে মুমিনুল হকের দল। প্রথম ম্যাচে ২২০ রানের পর দ্বিতীয় ম্যাচে ৩৩২ রানের পরাজয়। দুই টেস্টেই প্রোটিয়া স্পিনারদের কাছে অসহায় আত্মসমর্পণ টাইগার ব্যাটারদের।

কেশব মহারাজ ও সিমন হারমারের তোপে প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ৫৩ ও দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ৮০ রানেই অলআউট বাংলাদেশ। এমন বাজে পারফরম্যান্সের পেছনের কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে কাটাছেড়া হচ্ছে বেশ। বিসিবি পরিচালক ও সাবেক অধিনায়ক আকরাম খান মনে করেন ক্রিকেটের চাইতে ক্রিকেটের বাইরের আলোচনাই রেখেছে বড় প্রভাব।

যদিও তার মতে দেশের ক্রিকেট উন্নতিতে ক্রিকেটারদের ভূমিকাই মুখ্য। কন্ডিশন বিবেচনায় ভালো খেলার দক্ষতার পাশাপাশি খেলায় পূর্ণ মনোযোগ দেওয়ার পরামর্শও দেন সাবেক এই তারকা।

আজ (১৩ এপ্রিল) মিরপুরে সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমার মনে হয় আমাদের দলে যেসব ক্রিকেটার আছে সবারই মনযোগ দিতে হবে যে কীভাবে আমাদের ক্রিকেটকে এগিয়ে নেওয়া যায়। আমার মনে হয় যে আমরা ক্রিকেটের চাইতে ক্রিকেটের বাইরের ব্যাপারগুলো নিয়ে বেশি চিন্তিত। কারণ আপনাকে দক্ষ হতে হবে দুই ধরণের উইকেটেই, পেস বোলিং ও টার্নিং উইকেট দুটোতেই। ভাবতে হবে কীভাবে আমাদের দলটাকে উন্নত করবো। দেখেন ওয়ানডে কিন্তু আমরা দল হিসেবে খেলছি।’

‘আমরা কিন্তু একজন দুইজনের উপর নির্ভর করিনা। সবাই মিলে ভাল, বোলিং, ফিল্ডিং করলে আমরা ফলটা পাই। একই জিনিস আমাদেরকে টেস্টেও করতে হবে। স্বাভাবিকভাবেই আপনি একটা ম্যাচে ভালো করতে পারেন খারাপ করতে পারেন। কিন্তু আমার কাছে মনে হয় বাইরের কথাগুলো বেশি খেলোয়ারদের উপর চাপ হয়ে যাচ্ছে। আমার মনে হয় সবাই যদি খেলায় মনযোগ দেয় তাহলে কিন্তু চাপ পড়বে না। এসব উইকেটেই আমাদের খেলোয়াড়েরা ভালো খেলেছে আবার খারাপ করেছে।’

‘কারণ অনেক চাপ। অনেক ধরণের আলাপ আলোচনা হয় একটা ম্যাচ হেরে গেলে, একজন আরেকজনকে দোষ দেয়। এই রেওয়াজটা কিন্তু বাংলাদেশ ছাড়া আর অন্য কোথাও নেই, এই সিস্টেমটা নাই। আপনি দেখবেন খেলার বাইরে আমরা বেশি চিন্তা করি, বেশি কথা বলি।’

বিশ্বের বড় বড় দলগুলোর উদাহরণ দিয়ে আকরাম বলছেন বাংলাদেশের মতো মাঠের বাইরের আলোচনায় সরব নয় অন্য কোনো দল। এমনিতে বাজে ফর্মে থাকা ক্রিকেটাররা এসব কারণে তালগোল পাকিয়ে ফেলছেন আরও।

আকরাম যোগ করেন, ‘খেলোয়াড়েরা কিন্তু চাপে পড়ে যাচ্ছে পারফরম্যান্সের দিক থেকে বলেন কথা বার্তার দিক থেকে বলেন। উন্নত যেসব দেশ আছে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, ভারত আপনি তাদের দেখেন ক্রিকেটের বাইরের জিনিস নিয়ে কিন্তু এত আলাপ আলোচনা হয় না। আমাদের দেশে যেটা হচ্ছে। গত বিশ্বকাপেই দেখেন, খেলার আগেই এসব কথা বার্তা, অন্য জিনিস নিয়ে চিন্তা ভাবনা বেশি করেছি।’

‘আপনিতো একটা ম্যাচ হারতেই পারেন। প্রথম টেস্ট হারার পর দল নিয়ে অনেক নেতিবাচক কথা বলা হয়েছে, শুনতে হয়েছে। এগুলো কিন্তু পরেরটাতে প্রভাব ফেলেছে। আপনি দেখেন ব্যাটাররা কিন্তু সবাই জানে কি জিনিস করতে হবে কি জিনিস করতে হবে না। কিন্তু ওখানে গিয়ে যেটা করার না সেটা করছে। কারণ চাপ, পুরো চাপে পড়ে গিয়েছিল ক্রিকেটাররা। এ জিনিস থেকে আমাদের বের হতে হবে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

মুমিনুল বলছেন ‘আপনাদের প্রত্যাশা বেশি ছিল’

Read Next

দেশের ক্রিকেটকে টার্নিং পয়েন্ট এনে দিয়েও যে কারণে ব্যথিত আকরাম

Total
1
Share