কামিন্সের ‘অবিশ্বাস্য’ ইনিংসে কোলকাতার দাপুটে জয়

কামিন্সের 'অবিশ্বাস্য' ইনিংসে কোলকাতার দাপুটে জয়
Vinkmag ad

প্যাট কামিন্স যে ব্যাটিংটা করলেন, অমানবিক বললেও ভুল হবে না। হারের শঙ্কায় থাকা কোলকাতা নাইট রাইডার্সের (কেকেআর) হয়ে অনবদ্য এক ইনিংস খেলে দুর্দান্ত এক জয় এনে দিয়েছেন দলকে। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে ৫ উইকেটে হারিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে চলে গেছে তার দল।

১৬২ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে কেকেআর শুরু থেকে ধুকছিল। এক প্রান্তে ওপেনার ভেঙ্কটেশ আইয়ার আগলে ধরে রাখলেও অপর প্রান্তে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাচ্ছিল তারা। ১০১ রানে ৫ম ব্যাটসম্যান হিসেবে মারকুটে আন্দ্রে রাসেল বিদায় নিলে হারের শঙ্কা চেপে ধরে কেকেআরকে। জয়ের জন্য তখনও তাদের প্রয়োজন ছিল ৪১ বলে ৬১ রান।

তবে বিধাতার বোধহয় ভিন্ন ইচ্ছা ছিল। মঞ্চে আবির্ভূত হয়ে ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হন অজি টেস্ট দলের অধিনায়ক কামিন্স। এটি ছিল এবারের আইপিএলে তার প্রথম ম্যাচ। ভেঙ্কটেশের সাথে জুটিবদ্ধ হয়ে খেলেন অবিস্মরণীয় এক ইনিংস। টাইমাল মিলসকে ১টি করে ছক্কা ও চার হাঁকানোর পর জাসপ্রীত বুমরাহর ওভারে ১টি ছক্কা হাঁকান তিনি।

ইনিংসের ১৬ তম ওভারে স্বদেশী ড্যানিয়েল স্যামসকে যেন বেছে নিলেন নিজের আক্রমণাত্মক ব্যাটিং সত্ত্বা প্রদর্শনের। ঐ ওভারে ৩৫ রান নিয়ে দলকে জয় এনে দেন কামিন্স। ১৪ বলে অর্ধশতক করে লোকেশ রাহুলের সাথে আইপিএলের ইতিহাসে দ্রুততম হাফ সেঞ্চুরির কাতারে নাম লেখান তিনি। শেষ পর্যন্ত মাত্র ১৫ বলে ৪টি চার ও ৬ ছক্কায় ৫৬ রানে অপরাজিত থাকেন কামিন্স, প্রত্যাশিতভাবে ম্যাচ সেরার পুরস্কারও যায় তার পক্ষে। ভেঙ্কটেশ ৪১ বলে ৫০ রানে অপরাজিত থাকেন।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by cricket97 (@cricket97bd)

মুম্বাইয়ের পক্ষে টাইমাল মিলস ও মুরুগান অশ্বিন ২টি করে উইকেট পান।

এর আগে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে ৪ উইকেটে ১৬১ রান করে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। এবারের লিগে প্রথমবার খেলতে নেমে দলের সর্বোচ্চ স্কোরার হন সুরিয়া কুমার যাদব। ৩৬ বলে ৫ চার ও ২ ছয়ে ৫২ রান করেন। তিলক ভার্মা ২৭ বলে অপরাজিত ৩৮, প্রথমবার আইপিএলে খেলা বেবি এবি খ্যাত ডেওয়াল্ড ব্রেভিস ১৯ বলে ২৯ ও কাইরন পোলার্ড ৫ বলে ৩ ছক্কায় অপরাজিত ২২ রান করেন।

কেকেআরের পক্ষে কামিন্স নেন ২ উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সঃ ১৬১/৪ (২০), রোহিত ৩, ইশান ১৪, ব্রেভিস ২৯, সুরিয়া কুমার ৫২, তিলক ৩৮*, পোলার্ড ২২*; কামিন্স ৪-০-৪৯-২, উমেশ ৪-০-২৫-১, বরুণ ৪-০-৩২-১

কোলকাতা নাইট রাইডার্সঃ ১৬২/৫ (১৬), ভেঙ্কটেশ ৫০*, রাহানে ৭, শ্রেয়াস ১০, বিলিংস ১৭, রানা ৮, রাসেল ১১, কামিন্স ৫৬*; স্যামস ৩-০-৫০-১, মিলস ৩-০-৩৮-২, অশ্বিন ৩-০-২৫-২

ফলাফলঃ কোলকাতা নাইট রাইডার্স ৫ উইকেটে জয়ী

ম্যাচ সেরাঃ প্যাট কামিন্স (কোলকাতা নাইট রাইডার্স)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

মার্চে ‘আইসিসি প্লেয়ার অব দ্য মান্থ’ এর সংক্ষিপ্ত তালিকায় আছেন যারা

Read Next

১৩৩ বছরের পুরোনো মাঠ, ডোনাল্ড বলছেন বাতাসের সাথে করতে হবে লড়াই

Total
3
Share