মাশরাফিদের অভিজ্ঞতার কাছে হারলো সিটি ক্লাব

মাশরাফিদের অভিজ্ঞতার কাছে হারলো সিটি ক্লাব
Vinkmag ad

চলমান ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে (ডিপিএল) লেজেন্ডস অফ রূপগঞ্জের ভারতীয় অলরাউন্ডার চিরাগ জানি আছেন দারুণ ফর্মে। তার অলরাউন্ড নৈপুণ্যে এবার সিটি ক্লাবকে হারালো লেজেন্ডস অব রূপগঞ্জ, উঠে এসেছে পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে।

ভেজা মাঠের কারণে খেলা শুরু হয় এক ঘন্টার বেশি সময় দেরী করে। ঢাকার বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় মাঠ ইউল্যাবে ওভার সংখ্যাও কমাতে হয়। ৪০ ওভারে নেমে আসা ম্যাচে টস হেরে আগে ব্যাট করে লেজেন্ডস অব রূপগঞ্জ।

চিরাগ জানি (৫১) ও নাইম ইসলামের (৫২) জোড়া ফিফটিতে ৯ উইকেটে ২২৫ রান লেজেন্ডস অব রূপগঞ্জের স্কোরবোর্ডে। জবাবে লম্বা সময় জয়ের পথে থেকেও শেষ পর্যন্ত অভিজ্ঞতার কাছে হেরে বসে সিটি ক্লাব। বৃথা যায় জাকিরুল আহমেদ জেম (৫৬) ও আশিকুল আলমের (৬২) ফিফটি।

আগে ব্যাট করতে নেমে লেজেন্ডস অব রূপগঞ্জের দুই ওপেনার ইরফান শুক্কুর ও সাব্বির হোসেন ৪ ওভারেই তুলে ফেলেন ৩২ রান। ১৪ রান করে সাব্বির ফিরলে ভাঙে জুটি। এরপর বেশিক্কখণ টিকেননি ইরফানও (১৬ বলে ১৯)।

দুজনের বিদায়ের পর চিরাগ ও নাইমের ১০৭ রানের জুটি। লিগে অবিশ্বাস্য ফর্মে থাকা নাইম ফিরেছেন ৭৫ বলে ৫২ রান করে। ৫ রানের ব্যবধানে চিরাগের ঠিকানাও সাজঘর, তার ব্যাটে ৬৪ বলে ৫১ রান। এরপর আর বড় ইনিংস খেলার সুযোগ পায়নি অন্য কোনো ব্যাটার।

দলের সংগ্রহ বাড়াতে অবশ্য কার্যকর ইনিংস খেলেন তানবীর হায়দার। ২৫ বলে সমান দুইটি করে চার, ছক্কায় অপরাজিত ছিলেন ৩৪ রানে। সাব্বির রহমানের ব্যাটে ১৬ বলে ১৮ রান।

২২৬ রানের লক্ষ্য তাড়ায় নেমে সিটি ক্লাবের শুরুটা হয়েছে বাজে। ২৪ রানে ২ ও ৭২ রানে হারায় ৪ উইকেট। যেখানে ৫৬ রানই এসেছে জাকিরুল আহমেদ জেমের ব্যাট থেকে, ৫০ বলে ৯ চারে সাজান ইনিংসটি।

তার বিদায়ের পর হাল ধরার চেষ্টা মইনুল ইসলাম ও আশিকুল আলমের। দুজনে জুটিতে যোগ করেন ৫২ রান। ২১ রান করে আউট হন মইনুল, তবে দলকে টেনে নেন আশিকুল।

কিন্তু সপ্তম ব্যাটার হিসেবে তাকেও ফিরতে হয়, চিরাগ জানির বলে বোল্ড হয়েছেন ৬৩ বলে ৭ চার ১ ছক্কায় ৬২ রান করে। শেষ ৫ ওভারে প্রয়োজন ছিল ৩৯ রান। কিন্তু লেজেন্ডস অব রূপগঞ্জের অভিজ্ঞতার কাছে হার মানতে হয় ১৩ বছর পর ডিপিএল খেলা সিটি ক্লাবকে।

২ ওভার আগেই অলআউট ২০৩ রানে। আব্দুল্লাহ আল মামুনের ব্যাটে ২৪ ও উসমান খালিদ করেন ২২ রান। ৬.৫ ওভারে ২৮ রান খরচায় ৪ উইকেট নিয়ে লেজেন্ডস অব রূপগঞ্জের সেরা বোলার চিরাগ জানি। ব্যাট হাতে ফিফটি করে হয়েছেন ম্যাচ সেরাও।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

লেজন্ডেস অব রূপগঞ্জ ২২৫/৯ (৪০ ওভার) শুক্কুর ১৯, সাব্বির হোসেন ১৪, চিরাগ ৫১, নাইম ৫২, সাব্বির রহমান ১৮, রকিবুল ২, মাশরাফি ২, তানবীর ৩৪*, মেহেদী রানা ৩, আল-আমিন ৮, নাবিল ১*; হালিম ৮-১-৪৬-৩, শাহরিয়ার ৫-০-৫৩-১, খালিদ ৮-১-২৮-৩, রুয়েন ৩-০-১০-১, মইনুল ৮-০-৩৯-০, মইনুল সোহেল ৪-০-২২-০, রাজিবুল ৪-০-২২-০

সিটি ক্লাব ২০৩ ( ৩৭.৫ ওভার) কমল ০, মইনুল ৩, জাকিরুল ৫৬, রুয়েন ৪, আশিক ৬২, মইনুল সোহেল ২১, আল মামুন ২৪, খালিদ ৩২, রাজিবুল ১, হালিম ৮, শাহরিয়ার ০*; আল-আমিন ৭-১-৩৮-১, নাবিল ৮-০-৪৭-১, মাশরাফি ৮-০-৩৯-১, চিরাগ ৬.৫-০-২৮-৪, মেহেদী রানা ৫-০-৩৪-২, নাইম ৩-০-১৭-১।

ফলাফল: লেজেন্ডস অব রূপগঞ্জ ২২ রানে জয়ী

ম‍্যাচসেরা: চিরাগ জানি (লেজেন্ডস অব রূপগঞ্জ)

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

শ্রীলঙ্কার বাংলাদেশ সফরের সূচি চূড়ান্ত

Read Next

শুরু আর শেষে দক্ষিণ আফ্রিকা, মাঝে লড়াই করে সমানে সমান বাংলাদেশ

Total
6
Share