শেন ওয়ার্নের শেষ বিদায়ে রঙিন এমসিজি কাঁদছে অঝোরে…

শেন ওয়ার্নের শেষ বিদায়ে রঙিন এমসিজি কাঁদছে অঝোরে...
Vinkmag ad

“হায় চিল, সোনালি ডানার চিল, এই ভিজে মেঘের দুপুরে
তুমি আর কেঁদোনাকো উড়ে-উড়ে ধানসিড়ি নদীটির পাশে!”

শেন ওয়ার্নের আকস্মিক মৃত্যু থেকে এখনও গোটা বিশ্ব সামলে উঠতে পারেনি। শেষবারের মতো এমসিজিতে ওয়ার্নের স্মৃতিতে ভিক্টোরিয়া সরকারের তরফে বিশেষ স্মরণসভা আয়োজিত হয়। রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় অনুষ্ঠিত হয়েছে কিংবদন্তি শেন ওয়ার্নের শেষকৃত্য। কিংবদন্তি লেগ স্পিনারকে ‘আইকনিক’ ক্রিকেট গ্রাউন্ড মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ড অর্থাৎ এমসিজিতে শেষ বিদায় জানায় তাঁর ভক্তরা। উপস্থিত ছিলেন ওয়ার্নের সতীর্থ ও কিংবদন্তি ক্রিকেটাররা।

এই এমসিজিতেই ১৯৯৪ সালে অ্যাসেজে টেস্ট ম্যাচে প্রথম টেস্ট হ্যাটট্রিকটি করেছিলেন শেন ওয়ার্ন। সাউদার্ন স্ট্যান্ডের নামকরণ করা হয় ওয়ার্নের নামে- ‘শেন ওয়ার্ন স্ট্যান্ড’।

ওয়ার্নের মেমোরিয়াল সার্ভিসে জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার নাসের হুসেইন রুডইয়ার্ড কিপলিংয়ের লেখা ‘ইফ’-এর একটি সুন্দর উপস্থাপনা দিয়ে বন্ধু শেন ওয়ার্নকে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। নাসের হুসেইনের কণ্ঠে,

‘যদি তুমি স্বপ্ন দেখ, কিন্তু তোমার সেই স্বপ্নকে নিজের না বানাতে পারো… যদি তুমি ভাবো, কিন্তু সেই ভাবনাকে নিজের লক্ষ্যে পরিণত না করো… যদি তুমি সাফল্য এবং বিপর্যয়ের মুখোমুখি হও এবং এই দুটিকে একই দৃষ্টিতে দেখতে না পারো…’

বিশ্বকে বিদায় জানানো ওয়ার্ন অন্যতম সফল বোলার। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক তিনি। এক হাজারের বেশি আন্তর্জাতিক উইকেট রয়েছে তাঁর নামের পাশে।

“যে-পৃথিবী জেগে আছে, তার ঘাস—আকাশ তোমার।
জীবনের স্বাদ ল’য়ে জেগে আছো, তবুও মৃত্যুর ব্যথা দিতে
পারো তুমি”

শেন ওয়ার্নের প্রতি সারা বিশ্ব থেকে শ্রদ্ধা অব্যাহত রয়েছে…

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

তাসকিন-লিটনদের ক্যারিয়ার সেরা রেটিং, সেরা দশে সাকিব

Read Next

আকবরের ঝড়ো ব্যাটিং, মোহামেডানকে হারিয়ে হলেন ম্যাচসেরা

Total
16
Share