নাইমের আক্ষেপ মেটানো সেঞ্চুরি, আবাহনীকে হারালো মাশরাফির রুপগঞ্জ

নাইমের আক্ষেপ মেটানো সেঞ্চুরি, আবাহনীকে হারালো মাশরাফির রুপগঞ্জ
Vinkmag ad

টানা তিন ম্যাচে নব্বইয়ের ঘরে কাটা পড়েন লেজেন্ডস অব রূপগঞ্জের ব্যাটসম্যান নাইম ইসলাম। অবশেষে চতুর্থ ম্যাচেই পেলেন কাঙ্ক্ষিত সেঞ্চুরি। এমন দিনে ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের (ডিপিএল) চতুর্থ রাউন্ডে আবাহনীকে হারালো রূপগঞ্জ।

এমনিতে হার দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করেছিল আবাহনী। ডিপিএলের অন্যতম সফল দলটি চতুর্থ ম্যাচেও বরণ করলো পরাজয়। বিকেএসপির ৩ নম্বর মাঠে মাশরাফি বিন মর্তুজার রুপগঞ্জ তাদের হারিয়েছে ১৪ রানে।

টস হেরে ব্যাট করা রুপগঞ্জ নাইমের ১২৪ রানের ইনিংসের সাথে চিরাগ জানির ৪৯ রানে ৬ উইকেটে ২৯৭ রানের সংগ্রহ পায়। জবাবে অধিনায়ক মোসদ্দেক হোসেন সৈকত ও তৌহিদ হৃদয়ের জোড়া ফিফটির সাথে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের ক্যামিওতেও জিততে পারেনি আবাহনী।

আগে ব্যাট করতে নেমে ২৬ রানে ২ উইকেট হারায় রূপগঞ্জ। সেখান থেকে নাইম ও ভারতীয় ব্যাটার চিরাগের ৮৯ রানের জুটি। বাঁহাতি স্পিনার তানভীর ইসলামের বলে ৬ চারে ৪৯ রানে থামেন চিরাগ।

চিরাগ ফিরলে নাইম ছিলেন সাবলীল, ৭১ বলে তুলে নেন ফিফটি। এরপরের ২৮ বলে পৌঁছে যান তিন অংকের ম্যাজিক ফিগারে। ৯৯ বলে আসে লিস্ট ‘এ’ ক্যারিয়ারের ১১তম সেঞ্চুরি।

মাঝে রাকিবুল হাসান নয়ন ২২ রান করে ফিরলেও সাব্বির রহমানের সাথে নাইমের ৪৩ বলে ৮২ রানের জুটি। দুজনেই ফিরেছেন কাছাকাছি সময়ে, ১০৯ বলে ১৪ চার ও ৪ ছক্কায় ১২৪ রান করে সাইফউদ্দিনের শিকার নাইম।

২১ বলে ১ চার, ২ ছক্কায় সাব্বিরের ব্যাটে ৩০ রান। শেষ দিকে মাশরাফির ১২ বলে ২৩ রান, ২ চারের সাথে ছিল ১ ছক্কা।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে দারুণ কিছুর আভাস দিয়েও ইনিংস লম্বা করতে পারেননি মুনিম শাহরিয়ার (১৯ বলে ২৬)। ভারতীয় টেস্ট ক্রিকেটার হনুমা বিহারী টুর্নামেন্টের নিজের অভিষেক ম্যাচে ফেরেন ২৭ বলে ১৮ রান করে। ৪৩ বলে বাঁহাতি ব্যাটার নাইম শেখের ব্যাটে ৩৫ রান।

৯১ রানে ৩ উইকেট হারানো আবাহনীকে এরপর টেনে নেন মোসাদ্দেক-তৌহিদ। দুজনে চতুর্থ উইকেটে যোগ করেন ১১৮ রানের জুটি। দুজনেই পেয়েছেন ফিফটির দেখা। ৬৪ বলে মোসাদ্দেক ও ৬০ বলে ফিফটির দেখা পান তৌহিদ।

দুজনের এই জুটি ভাঙেন রূপগঞ্জ দলপতি মাশরাফি। শুরুতে ৮২ বলে ৬ চারে ৭৪ রান করা তৌহিদকে ও পরে ১৭ রানের ব্যবধানে ফেরান ৭৭ বলে ৫ চার ৩ ছক্কায় ৬৬ রান করা মোসাদ্দেককে।

এই দুজনের বিদায়ের পর দলকে লক্ষ্যের দিকে টেনে নেন সাইফউদ্দিন। খেলেন ২৯ বলে ২ চার ৩ ছক্কায় ৪৩ রানের ইনিংস। কিন্তু বাকিদের ব্যর্থতায় অপরাজিত থেকেও দল জেতাতে পারেননি। ৮ উইকেটে ২৮৩ রানে আটকে যায় আবাহনী। ৯ ওভারে ৬৩ রান খরচায় ৩ উইকেট নিয়ে রূপগঞ্জের সেরা বোলার মাশরাফি।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

লেজেন্ডস অব রূপগঞ্জ ২৯৭/৬ (৫০ ওভার), তানজিদ ১৫, আলভী ৫, চিরাগ ৪৯, নাইম ১২৪, রকিবুল ২২, সাব্বির ৩০, তানভীর ২৩*, মাশরাফি ১৭*; সাইফ ১০-০-৫১-১, মোসাদ্দেক ১০-০-৫৮-২, সানি ৮-১-৫০-১, কামরুল ৭-১-৫৭-১, তানভীর ১০-০-৫১-১, বিহারি ৫-০-২৫-০

আবাহনী ২৮৩/৮ (৫০ ওভার), মুনিম ২৬, নাইম ৩৫, বিহারি ১৮, হৃদয় ৭৪, মোসাদ্দেক ৬৬, শামীম ২, জাকের ৪, সাইফ ৪৩*, কামরুল ৬; মাশরাফি ৯-০-৬৩-৩, নাবিল ১০-০-৪৮-১, শফিউল ৮-০-৫১-১, নাইম ৬-০-৩৩-১, সঞ্জিত ৮-০-৪১-১, চিরাগ ৯-০-৪২-১

ফলাফল: লেজেন্ডস অব রূপগঞ্জ ১৪ রানে জয়ী

ম্যাচ সেরা: নাইম ইসলাম (লেজেন্ডস অব রূপগঞ্জ)

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ঐতিহাসিক সিরিজ জয়, কোনো কৃতিত্বই নিচ্ছে না বিসিবি

Read Next

তিন ফিফটিতে প্রাইম ব্যাংককে হারাল খেলাঘর

Total
21
Share