মহাকালের মঞ্চে বাবর আজমের মহাকাব্যিক ব্যাটিং, পাকিস্তান পেল জয়ের সমান ড্র!

মহাকালের মঞ্চে বাবর আজমের মহাকাব্যিক ব্যাটিং, পাকিস্তান পেল জয়ের সমান ড্র!
Vinkmag ad

‘মহারাজা! তোমারে সেলাম।’ নেতা তো এমনই হওয়া উচিৎ, যেমনটা দেখালেন বাবর আজম। করাচি টেস্টে ৫০৬ রানের লক্ষ্য নিয়েও বাবরদের পাল্টা লড়াই। মহাকাব্যিক ইনিংস খেলে দলকে রক্ষা করলেন নেতা বাবর। পাকিস্তান পেল জয়ের সমান ড্র! বাবর আজমের কাছে তাঁর ১৯৬ রানের ইনিংসটা খুব প্রিয় হয়ে থাকবে, কারণ দলের যে দরকার ছিল এমন একটা ইনিংস। চতুর্থ ইনিংসে অন্যতম সেরা ব্যাটিং। রাজকীয় ইনিংস খেলার পথে বাবর আজম গড়েন একাধিক কীর্তি।

করাচিতে স্বপ্নের ছন্দে ছিলেন ব্যাটসম্যান বাবর আজম। অজি অ্যাটাকের সামনে ১৯৬ রানের ইনিংস খেলে অনন্য নজির গড়লেন তিনি। বলের হিসেবে ৭০ ওভারেরও বেশি (৪২৫ বল) তিনি খেলেছেন। চতুর্থ ইনিংসে পাকিস্তানি কোন ব্যাটারের সর্বোচ্চ স্কোর এখন এটিই। এছাড়া চতুর্থ ইনিংসে একজন অধিনায়কের সর্বোচ্চ স্কোর এটি। সাদা পোশাকে এই ইনিংসটাই বাবরের সর্বোচ্চ সংগ্রহ। তবে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকানোর আক্ষেপ বাবরের থাকলেও এমন মহাকাব্যিক ইনিংস থাকবে মহাকালের মঞ্চে।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by cricket97 (@cricket97bd)

করাচি টেস্ট জয়ের জন্য পাকিস্তানের লক্ষ্য দাঁড়ায় ৫০৬ রান। প্রথম ইনিংসের ব্যাটিং বিপর্যয় সামলে শেষ ইনিংসে বাজিমাত; দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় পাকিস্তান। চতুর্থ দিনের শেষে তাঁদের দ্বিতীয় ইনিংসের রান ছিল ২ উইকেটে ১৯২।

শেষ দিনে জয়ের জন্য পাকিস্তানের প্রয়োজন ছিল তিনশ এর বেশি রান। অস্ট্রেলিয়ার ৮ উইকেট প্রয়োজন জেতার জন্য। আগের দিনই ওপেনার আবদুল্লাহ শফিককে নিয়ে লড়াই শুরু করেন পাক অধিনায়ক বাবর আজম।

ম্যাচের পরিস্থিতি ধরতে পেরে সিদ্ধান্ত নেওয়ার অসামান্য দক্ষতা দেখিয়েছেন বাবর আজম, যেটা বড় অধিনায়কের গুণ। শুরু থেকেই বাবর আজম যে ভাবে খেলেছেন, তাতে কোনও সময়ই মনে হয়নি, তাঁর ব্যাট করতে সমস্যা হচ্ছে। স্টার্ক, কামিন্সদের সামলে বাবর এগিয়েছেন।

পাকিস্তান এই ম্যাচ জিতলে তা অবশ্যই ইতিহাস তৈরি হয়ে যেত। কিন্তু পাকিস্তানকে জয়ের সরণীতে পৌঁছে দেওয়ার আগেই বাবরকে বিদায় করেন নাথান লায়ন। শেষপর্যন্ত ৭ উইকেট হারিয়ে পাকিস্তান স্কোরবোর্ডে ৪৪৩ রান সংগ্রহ করতেই দিনের খেলা সমাপ্তি ঘোষণা। রাওয়ালপিন্ডির পর করাচি টেস্টও দেখল ড্র। তবে এমন ড্র’য়েও যে স্বস্তি পেল পাকিস্তান। অপরাজিত সেঞ্চুরি করেন মোহাম্মদ রিজওয়ান।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by cricket97 (@cricket97bd)

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

বাংলাদেশের বিপক্ষে ২০১৯ বিশ্বকাপে হার মনে আছে এনগিডির

Read Next

আইপিএলের আগে ইয়ো ইয়ো টেস্টে ব্যর্থ পৃথ্বী, সফল হার্দিক

Total
17
Share