আগে থেকেই চেনা শরিফুলের ‘রিস্ট পজিশনে’ নজর ডোনাল্ডের

আগে থেকেই চেনা শরিফুলের 'রিস্ট পজিশনে' নজর ডোনাল্ডের
Vinkmag ad

বাংলাদেশের নব নিযুক্ত বোলিং কোচ অ্যালান ডোনাল্ড কাজ শুরু করার আগেই বাঁহাতি পেসার শরিফুল ইসলামকে নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। কাজ শুরুর প্রথম দিনেই দেখিয়েছেন নানা টেকনিক। নাস্তার টেবিলেই অবশ্য শরিফুলের সাথে সৌজন্যতা পর্ব সেরে ফেলেন। বাঁহাতি এই পেসার বিশ্বাস করেন ডোনাল্ডের কাছ থেকে নিতে পারবেন ভালো কিছু।

আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচ হিসেবে নিয়োগ পেলেন। মিশন শুরু ডোনাল্ডের নিজ দেশ দক্ষিণ আফ্রিকা সফর দিয়ে। ৩ ওয়ানডে ও ২ টেস্ট খেলতে বাংলাদেশ এখন প্রোটিয়া মুল্লুকে।

তবে নিজের দক্ষিণ আফ্রিকার ঘরোয়া দল ‘নাইটসের’ কোচ হিসেবে শেষ দিন পর্যন্ত কাজ করেছেন বলে টাইগারদের সাথে ডোনাল্ড যোগ দিয়েছেন একদিন দেরিতে। নতুন শিষ্যদের নিয়ে প্রথম অনুশীলনে নামেন গতকাল (১৫ মার্চ)।

দক্ষিণ আফ্রিকান এই কিংবদন্তী শরিফুলকে আগে থেকেই চেনেন। দুই বছর আগে দক্ষিণ আফ্রিকা থেকেই যে যুব বিশ্বকাপ জিতে দেশে ফিরেছিল আকবর আলির নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ যুব দল।

অনুশীলনে নামার আগে নাস্তার টেবিলেই তাই শরিফুলের সাথে সৌজন্যতা পর্ব শেষ ডোনাল্ডের। জোহানেসবার্গের ওয়ান্ডারার্স স্টেডিয়ামে অনুশীলনে শরিফুলের রিস্ট পজিশন (কব্জির অবস্থান) নিয়েই করেছেন কাজ।

বিসিবির পাঠানো এক ভিডিও বার্তায় এই তরুণ পেসার ডোনাল্ডের সাথে কাজ করার অভিজ্ঞতা জানাতে গিয়ে বলেন, ‘ব্রেকফাস্টের সময়ই দেখা হয়েছে, সে চিনতে পেরেছে। যখন মাঠে এসেছে, সে আমাকে নিয়ে কব্জির পজিশন নিয়ে কাজ করেছে। চেষ্টা করছি, হয়তোবা কিছুদিনের মধ্যে ঠিক হয়ে যাবে। আশা করছি ভালো কিছু নিতে পারবো উনার কাছ থেকে।’

দক্ষিণ আফ্রিকা মানেই শরিফুলদের অবচেতন মনে হলেও ২০২০ যুব বিশ্বকাপ স্মৃতি। যেখান থেকে বাংলাদেশ পেয়েছিল আইসিসির কোনো ইভেন্টে শিরোপা জয়ের স্বাদ।

টাইগার বাঁহাতি পেসার সে স্মৃতি হাতড়ে বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ্‌ অবশ্যই ভালো লেগেছে যখন শুনেছি দক্ষিণ আফ্রিকায় সিরিজ আছে আমাদের। তখন মনে হয়েছে এখানে আমরা অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জিতেছি যা আগে কেউ কখনও করেনি।’

‘ভালো লাগছে কারণ এখানে পেস বোলারদের বল ক্যারি করে। দক্ষিণ আফ্রিকাতে সবসময় পেস বোলাররা সুবিধা পায়। সে ক্ষেত্রে এখানে অনুশীলন করে খুব ভালো লাগছে। উইকেটে ঘাস ছিল।’

এদিকে দল হিসেবেও বাংলাদেশ এবারের সফরে ভালো করবে বিশ্বাস তরুণ এই পেসারের, ‘অবশ্যই আমাদের দল নিয়ে আমি অনেক আত্মবিশ্বাসী। কারণ দলে অনেক অভিজ্ঞ ক্রিকেটার রয়েছে। সবাই কিছু না কিছু- ব্যাটিং, বোলিং বা ফিল্ডিংয়ে ভালো করছে। দল হিসেবে খেললে এখান থেকে ভালো কিছু অর্জন নিয়ে দেশে ফিরতে পারব।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

উপভোগের পাশাপাশি দায় থেকেই ৪১ বছর বয়সেও হাফিজের ক্রিকেট খেলা

Read Next

দক্ষিণ আফ্রিকায় বাংলাদেশকে আন্ডারডগ বলছেন ডোমিঙ্গো, তবে…

Total
4
Share