নারী ক্রিকেটারদের জন্য আয়ারল্যান্ডের অভিনব উদ্যোগ

বাংলাদেশ-আয়ারল্যান্ড
Vinkmag ad

প্রথমবারের মত আইরিশ নারী ক্রিকেটারদের জন্য ২০২২ সালে ১.৫ মিলিয়ন ইউরো বিনিয়োগ প্রোগ্রাম গঠন করেছে ক্রিকেট আয়ারল্যান্ড। ২০ জন পেশাদার ক্রিকেটের এতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। এর মধ্যে ৭ জন পূর্ণকালীন, ৯ জন অস্থায়ী ও বাকি ৪ জন খণ্ডকালীন চুক্তিতে আছেন।

স্থায়ী চুক্তি এ মাস থেকে কার্যকর হবে। এ বছরের গ্রীষ্মে আইরিশরাই প্রথম সম্পূর্ণরুপে পেশাদার নারী ক্রিকেটারদের পাবে।

অস্থায়ী চুক্তি তাদের জন্য যারা এখন শিক্ষা নিচ্ছেন, তাদেরকে বিভিন্ন অনুশীলন, উন্নয়ন ও গ্রীষ্মে খেলার জন্য আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে।

‘৩ বছরের ঐকান্তিক চেষ্টায় এখন আমাদের পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হবে,’ ক্রিকেট আয়ারল্যান্ডের প্রধান নির্বাহী ওয়ারেন ডিউট্রম বলেন।

‘২০১৯ সালে আইসিসি নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দলের পারফরম্যান্সের পর নারী ক্রিকেটকে পেশাদারিত্ব করতে আমরা একটি সংস্থা হিসেবে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়েছিলাম। এটা অবশ্যই সঠিক কাজ ছিল।’

‘পুরো বিশ্ব জুড়ে নারী ক্রিকেটের প্রসার ব্যাপক বেড়েছে। বিভিন্ন দেশ আইসিসির কৌশল অবলম্বন করে নারী ক্রিকেটকে পেশাদারি পর্যায়ে এনে দারুণ উন্নতি করেছে। এদের মধ্যে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড ও ভারত। এখন আয়ারল্যান্ডের পালা।’

এদিকে ক্রিকেট আয়ারল্যান্ডের হাই পারফরম্যান্স ডিরেক্টর রিচার্ড হোল্ডসওয়ার্থ বলেন, ‘আজকের ঘোষণা এখানেই শেষ নয়। এটা নতুন যুগের সূচনা মাত্র। ২০২১ সালে আইসিসি নারী চ্যাম্পিয়নশিপে আমাদের সিনিয়র দল জায়গা করে নিয়েছিল। আমরা এই প্রতিযোগিতায় শুধু একবার না, সবসময় থাকতে চাই। নারীদের এই খেলায় শীর্ষ পর্যায়ে যেতে চাই আমরা।’

‘তিন বছরের প্রক্রিয়ার আজ হয়তো শেষদিন, কিন্তু এটি একইসাথে আমাদের নতুন প্রজেক্টের প্রথম ধাপ মাত্র। এই প্রজেক্টের মধ্য দিয়ে আমরা উচ্চ আসলে অবগাহন করতে চাই এবং সেরা দলগুলোর বিপক্ষে ভালো লড়াই করতে চাই।’

প্রধান কোচ এড জয়েসের সাথে তিন বছরের চুক্তি বাড়িয়েছে ক্রিকেট আয়ারল্যান্ড। অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা ও পাকিস্তানকে এবারের গ্রীষ্মে আতিথ্য দিবে আইরিশ নারী ক্রিকেটাররা।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

এনক্রুমাহ বোনারের ৬ ঘন্টার এক সেঞ্চুরি

Read Next

আইপিএল থেকে নাম তুলে নিলেন হেলস, দল পেলেন ফিঞ্চ

Total
1
Share