সাকিবের পরামর্শেই হাফিজকে দলে টেনেছে মোহামেডান

সাকিবের পরামর্শেই হাফিজকে দলে টেনেছে মোহামেডান
Vinkmag ad

এক বছর বিরতি দিয়ে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) ফিরছে বিদেশী ক্রিকেটার। মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের হয়ে টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই দেখা যাবে পাকিস্তানি অলরাউন্ডার মোহাম্মদ হাফিজকে। মূলত দলটির দেশী তারকা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানের পরামর্শেই হাফিজের সাথে চুক্তি করে মোহামেডান।

২০০৯-১০ মৌসুমের পর এখনো কোনো শিরোপা জিততে পারেনি মোহামেডান। তবে শিরোপা জয়ে গত মৌসুম থেকে আবারও পুরোদস্তুর সেরা দল গড়াতে মনযোগ দেয় ঢাকার ক্রিকেটে ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটি। তবে কাঙ্খিত সাফল্য আর ধরা দেয়নি।

গত মৌসুমেই দলে সাকিবকে অন্তর্ভূক্ত করা মোহামেডান এবার দেশীদের মধ্যে নিয়েছে মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদী হাসান মিরাজ, সৌম্য সরকারের মতো তারকা ক্রিকেটারদের। যেখানে বিদেশী ক্যাটাগরিতে হাফিজের সাথে ইতোমধ্যে চুক্তি সম্পন্ন করে।

সাকিবের পরামর্শে হাফিজকে দলে ভেড়ানো প্রসঙ্গে মোহামেডান পরিচালক এজিএম সাব্বির আজ (১০ মার্চ) সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘সাকিবের পরামর্শ নিয়েই আসলে কথা বলা (হাফিজের সঙ্গে) হয়েছে। এখানে সাকিব আমাদেরকে রিকমেন্ড করেছিল কজন প্লেয়ার- মুশফিক, রিয়াদ, সাকিব সবাই মিলেই বলেছিল যে লম্বা ব্যাট করতে পারে টপ অর্ডার ব্যাটার যদি আমাদের থাকে, হাফিজের আবার ১০ ওভার বল করার ক্যাপাসিটিও আছে। হাফিজের অ্যাভেইলেবলিটিও আছে।’

‘তো এই মৌসুমের জন্য আমরা মোহাম্মদ হাফিজকে সাইন করিয়েছি। আমরা আশা করছি ১৫ তারিখের মধ্যে হাফিজ ঢাকায় এসে পৌছাবে। এগ্রিমেন্ট অনুযায়ী পুরো মৌসুমই খেলবে ইন শা আল্লাহ।’

এদিকে শারীরিক ও মানসিকভাবে ক্লান্ত সাকিব দক্ষিণ আফ্রিকা সফর থেকে বিশ্রাম চেয়েছেন। বিসিবিও তার স্বার্থ আমলে নিয়ে আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত সব ধরণের ক্রিকেট থেকে সাকিবকে দিয়েছে বিশ্রাম।

এতে মোহামেডানের হয়ে তার খেলা নিয়ে তৈরি হয়ে ধুম্রজাল। সাকিব দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে গেলে অন্তত সুপার লিগের ম্যাচগুলোতে তাকে পাওয়া যেত। কিন্তু এখন সে পথটাও কঠিন। সে ক্ষেত্রে সাকিবকে মেন্টর কিংবা অন্য ভূমিকাতে কাজে লাগানো যায় কীনা এমন প্রশ্ন রাখা হয় এজিএম সাব্বিরের প্রতি।

উত্তরে তিনি বলেন, ‘প্লেয়ার হিসাবে তার সার্ভিস আমরা পাই। বাকি যে কথাগুলো আপনারা বলছেন, মেন্টর বা ছেলেদেরকে ইন্সপায়ার করা অথবা স্ট্র্যাটেজিকাল কোনো ডিসিশন মেক করা, এই সার্ভিসগুলো সাকিবের কাছ থেকে পাওয়া যায়।’

‘সাকিব ইজ অ্যাভেইলেবল ফর ডিসকাশন। আমাদের যদি কোন ব্যাপারে সাকিবের সঙ্গে… ক্লাবের কোন ব্যাপারে, টিমের কোন ব্যাপারে, বেস্ট ইলেভেন নিয়ে কোন ব্যাপারে, বিদেশি প্লেয়ারের ব্যাপারে যদি কোন হেল্প চাওয়া হয় বা কোন অ্যাডভাইস চাওয়া হয় তাহলে সাকিব ইজ অলওয়েজ দেয়ার।’

‘তো এই জিনিসটা আমরা ওর থেকে পাই। এটার জন্য আলাদাভাবে অ্যাপয়েন্ট করার কিছু নেই। ও এখানে আছে আমাদের সঙ্গে। হোয়াটসঅ্যাপে একটা গ্রুপ আছে, আমাদের পারসোনাল কমিউনিকেশন আছে সাকিবের সঙ্গে। সেখানে সাকিবের এই সার্ভিসটা আমরা পাই।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

বিশ্বসেরা বোলার হতে চান বলে প্রক্রিয়ায় কোনো ছাড় নয় তাসকিনের

Read Next

কেন্দ্রীয় চুক্তির তালিকা প্রকাশ, ৩ ফরম্যাটের চুক্তিতেই আছেন সাকিব

Total
6
Share