আগে ভয় পেলেও এখন আর পান না সুজন

আগে ভয় পেলেও এখন আর পান না সুজন
Vinkmag ad

ক্রিকেট একটি দলগত খেলা, যেখানে গুরুত্বপুর্ণ দলের ১১ জন ক্রিকেটারই। এমনকি প্রয়োজনে কাজে লাগে স্বাদশ ব্যক্তিকেও। তবে দলীয় খেলাতেও ব্যক্তিকেন্দ্রিক প্রভাব থাকেই। দলের সেরা তারকাদের আগলে রাখতে চান সবাইই। সাকিব আল হাসান বাংলাদেশ দলের এমন এক চরিত্র। 

তবে বিভিন্ন সময়ে তাকে পাওয়া যায় না বাংলাদেশ দলে। দলের এক অপরিহার্য ক্রিকেটার হওয়ায় যা দলে প্রভাবও ফেলে। কখনো দলে থাকা, কখনো না থাকা প্রভাব ফেলে অন্যদের ওপরেও। 

বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক, বর্তমানে বিসিবি পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন মনে করেন এখন বাংলাদেশ দল এমন অবস্থানে আছে যেখানে তারকাদের জন্য বসে থাকতে হবে না। 

আজ মিরপুরে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে সুজন বলেন, ‘বিষয়টা হল বাংলাদেশ দল কারও জন্য বসে থাকবে না। এটা ভাবা ভুল। আপনারা যেমন ভাবেন এটা ছাড়তে হবে। হ্যা, তারা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার। দুই-তিন বছর পর ওদের ছাড়াই খেলতে হবে। নতুনরা আসছে। এটাই তো স্বাভাবিক। এটা একটা প্রসেসের মধ্যে যাবে। তবে আমরা চাই সেরা দল সেরা ক্রিকেটাররা খেলুক।’

‘খেলা-না খেলা একদম ক্রিকেটারের ওপর ছেড়ে দেয়া ঠিক না। তবে কথা বলে নেয়াটা ভাল। সাকিবকে ছাড়াই টিম করছি এখন। তারা আমাদের গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার। কিন্তু তারা না খেললে যে দেশের ক্রিকেট বন্ধ হয়ে যাবে তা না। জোর করে তো কাউকে খেলানো যাবে না। তাদের জায়গায় অন্য যারা সুযোগ পাবে তাদের জন্য বড় সুযোগ হবে।’

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে অনীহাটা মনের ব্যাপার বলে মনে করেন সুজন। বয়স ৫১ হলেও এখনও মাঠে নেমে পড়তে ইচ্ছে করে বলে জানান তিনি। 

‘এটা আসলে মনের ব্যাপার। আমার তো এখনও ইচ্ছা করে বাংলাদেশের জার্সি পরে খেলি। আমি ৫১। দেখেন ওরা তো গ্রোন আপ। অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ক্রিকেটারকে আপনি জোর করতে পারেন। কিন্তু ওদের কি জোর করা যাবে। তারা যদি ফিল করে খেলার জন্য আগ্রহী না তো তারা নিজেদের ইচ্ছেটা চুজ করতে পারে।’

সুজন জানান একটা সময় তিনি নিজেও ভয় পেতেন যে তারকা ক্রিকেটাররা না থাকলে, না খেললে কি হবে। তবে এখন আর তেমন পরিস্থিতি নেই বলে জানান তিনি। 

‘সাকিব-তামিম একটা সিরিজ না খেললে ওই জায়গায় নতুন কাউকে সুযোগ দেয়া হবে। আবার ওরা ফিরলে ওই ছেলেটার কি হবে। এখানে সাকিব না খেললেও কোন সমস্যা না, আই ডোন্ট কেয়ার। আমি মনে করি বিসিবিও কনসার্ন না, আমরা চাই যে সাকিব খেলুক। কিন্তু ওর যদি মনে না চায় যে কোন এক ফরম্যাট খেলবো না তো সে বলুক। একটা সময় আমিও ভয় পেতাম যে এই ছেলেগুলো না থাকলেও বাংলাদেশ দল কোথায় যাবে। কিন্তু এখন আমি আর ভয় পাইনা।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

শেন ওয়ার্নকে সেরা স্পিনার মানেন না গাভাস্কার

Read Next

সাংবাদিকদের উপর মোহাম্মদ হাফিজের অসন্তোষ

Total
1
Share