দেশের ক্রিকেটের জন্য কি করেছে সংবাদমাধ্যম, প্রশ্ন পাপনের

বিসিবি নির্বাচনে নতুন মুখ দেখে খুশি পাপন
Vinkmag ad

দেশের ক্রিকেট উন্নয়নের পথে অন্যতম স্টেক হোল্ডার সংবাদমাধ্যম। তবে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের এ নিয়ে আছে সংশয়। সংবাদমাধ্যমের কোনো ভূমিকাই খুঁজে পাচ্ছেন না বিসিবি বস।

সংবাদমাধ্যম হয়েই দেশের ক্রিকেটের সব তথ্য সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছায়। ইতিবাচক কিংবা নেতিবাচক, যা ঘটে তাই শ্রোতা, দর্শক ও পাঠকদের কাছে তুলে ধরেন সংবাদকর্মীরাই। তবে সবসময় যে সঠিক বার্তাটাই দেওয়া হয় তাও নয়, কিছু ক্ষেত্রে তথ্যের কিংবা সূত্রের গড়মিলে ভুল বার্তাও যায়। তবে সংখ্যাটা উদাহরণ যোগ্য নয়।

কিন্তু বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন ঢালাওভাবেই দেশের ক্রিকেট উন্নয়নে সংবাদমাধ্যমের অবদান নিয়ে প্রশ্ন তুলে বসলেন। সাম্প্রতিক সময়ে সাকিব আল হাসানকে ঘিরে তৈরি হওয়া নতুন বিতর্ক সম্পর্কে খোলাসা করতে গিয়ে গতকাল (৭ মার্চ) নিজ বাসভবনে সংবাদমাধ্যমের সাথে কথা বলেন।

পাপন বলেন,

‘আমরা যদি ওর কথার ওপর ভিত্তি করে কোনো সিদ্ধান্ত নেই, ধরেন— ও যেহেতু বলেছে খেলবো না। তাই আমরা ওকে নিলাম না। কিন্তু ও দুদিন পর যদি বলে—আমি কই বললাম খেলবো না! আমি তো যেতে চাইছি। তখন হবে কী? সব তো বোর্ডের পেছনে লাগবেন আপনারা।’

‘তাতে লাভটা কি হবে? বোর্ডের পেছনে লাগছেন, কোচের পেছনে লাগছেন কিন্তু দেশের ক্রিকেটের জন্য কি করেছেন সেটা তো বলেন? কি ভালোটা করছেন? আমি তো কিছু দেখি না। সাকিবের কথা নিয়ে আমি মোটেও বিচলিত নই। তবে এসব অনেকে পছন্দ করে। এটাও জানি।’

বাংলাদেশের প্রতিটি সিরিজের আগেই সাকিবের খেলা না খেলা নিয়ে থাকে সংশয়। এ নিয়ে শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত যেন একটা যদি কিন্তু থেকেই যায়। ছুটি, বিশ্রাম হয়ে পড়েছে নিয়মিত ঘটনা। অন্যদিকে তামিম ইকবাল আপাতত আছেন টি-টোয়েন্টি থেকে নির্বাসনে। লাল বলে খেলার ইচ্ছে প্রকাশ করে মাহমুদউল্লাহ হুট করে নিয়ে নেন অবসর। যা বার্তা দেয় ক্রিকেটাদের কাছে জিম্মি হয়ে আছে বিসিবি।

কিন্তু সেটা অস্বীকার করে বিসিবি সভাপতি জানালেন এবার আর কারও জন্য ছাড় দেবেন না তারা,

‘কার কাছে অসহায়? কিসের অসহায়? বোর্ড কারো কাছে অসহায়ের প্রশ্নই উঠে না। আমি এগুলো আগে থেকেই জানি যে কি আসতে পারে। এজন্য বিসিবি সভাপতি এবার হতেও চাইনি। আমার জন্য এগুলো মেনে নেওয়া কঠিন। আপনি চুক্তিভুক্ত খেলোয়াড়। আপনাকে খেলতে হবে। আপনি বাধ্য।’

‘এখন আমি কারও জন্য ছাড় দেবো না। কাউকে ছাড় দেব না। এগুলো ব্যক্তিগতভাবে আমার জন্য মেনে নেওয়া কঠিন। সেজন্য আমি হতেই চাইনি। যদি হই (সভাপতি) তাহলে এমন সিদ্ধান্ত নিতে হবে যেগুলো কঠিন সিদ্ধান্ত এবং দেশের মানুষ যা চায় না। আপনারাও চান না। আপনারা আবার এসব খুব পছন্দ করেন। আমি যেগুলো করতে যাবো সেগুলো আপনাদের পছন্দ হবে না।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ড্রয়ের পথে রাওয়ালপিন্ডি টেস্ট

Read Next

আইপিএল বনাম বাংলাদেশের বিপক্ষে হোম সিরিজ; সিদ্ধান্ত নেবে ক্রিকেটাররা

Total
1
Share