খেলার অবস্থা নেই, সাকিব বললেন বিরতি দরকার

নাটকীয় ম্যাচ জিতেও সাকিব বলছেন তারা নিরুপায়
Vinkmag ad

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের দুই স্কোয়াডেই (ওয়ানডে ও টেস্ট) নাম আছে সাকিব আল হাসানের। তবে বাংলাদেশ দলের পোস্টারবয় বলছেন এই মুহূর্তে ক্রিকেট খেলার অবস্থায় নেই তিনি। উপভোগ করেন নি আফগানিস্তানের বিপক্ষে সদ্য সমাপ্ত ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজও। 

দুবাইয়ের উদ্দেশ্যে যাবার আগে বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের সাকিব আল হাসান বলেন, ‘আমার মনে হয়েছে যে বাসে আমি এক প্যাসেঞ্জার। যেটা আমি কখনই থাকতে চাইনা। টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে দুই সিরিজের পুরোটা আমি মোটেও উপভোগ করতে পারিনি। আমি চেষ্টা করেছি, তবে হয়নি। আমার কাছে মনে হয় না এরকম মন মানসিকতা নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকায় আমার জন্য খেলাটা ঠিক হবে।’

‘এই বিষয়ে আমি জালাল ভাইয়ের (ক্রিকেট অপারেশন্স চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস) সঙ্গে কথা বলেছি। উনি বলেছেন দুইদিন উনিও চিন্তা করবেন, আমাকেও চিন্তা করতে বলেছেন। তারপর একটা সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত বা হবে বলে আমি মনে করি।’

‘এখন পর্যন্ত আমার কাছে যেটা মনে হচ্ছে এরকম যদি আমার মন-মানসিকতা থাকে, ফিজিক্যাল কন্ডিশন থাকে, মেন্টাল কন্ডিশন থাকে তাহলে এটা দলের জন্যই ক্ষতি হবে। আমি যেটা আগেও বললাম, আমি নিজে যেটা মনে করি। আমার নিজের প্রতি নিজের যে এক্সপেকটেশন, মানুষ যে ধরণের পারফরম্যান্স আশা করে, সেটা যদি আমি করতে না পারি তাহলে সেখানে প্যাসেঞ্জার হয়ে থাকা খুবই দুঃখজনক হবে। সেটা আমার টিমমেটদের সাথে চিট করা হবে বলে আমি মনে করি।’

‘আমি যেটা বললাম, এটা আসলে সবকিছু ডিসিশনের ব্যাপার। পাপন ভাইয়ের (বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন) সঙ্গে কথা হয়েছিল, আমি অ্যাগ্রিও করেছি পুরা সিরিজ টা (দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে) খেলব। তবে এখন যে মেন্টাল ও ফিজিক্যাল কন্ডিশন দেখছি আমি তাতে আমার কিছু টাইম (বিরতি) দরকার বলে মনে করি। সেটা এমন হতে পারে ওয়ানডে সিরিজটা ব্রেক নিয়ে টেস্ট সিরিজটা যদি আমি খেলতে পারি তাহলে হয়তো আমি বেটার ফিজিক্যাল ও মেন্টাল কন্ডিশনে থাকতে পারব। সেটা হতে পারে, তবে এগুলো আসলে আলোচনার ওপরে ডিপেন্ড করবে যে কি করলে ভালো হয়।’

‘এখন অবস্থা যেটা এই অবস্থায় যদি আমি খেলতে যাই অবশ্যই আমার টিমমেটদের, দেশের সাথে চিট করার মত একটা বিষয় হবে। যে জিনিসটা আমি অবশ্যই চাই না। আমি চাই যে যখন আমি খেলব, আমি যেভাবে এক্সপেক্ট করি, মানুষ যেমন চায়, টিম যেমন আশা করে সেভাবে যেনো পারফর্ম করতে পারি সেই অবস্থায় যেয়ে। হ্যা, কোন গ্যারান্টি নেই যে সেরা অবস্থায় থাকলেও পারফর্ম করতে পারব। তবে আমি অ্যাটলিস্ট জানতে পারব যে আমি আমার বেস্ট পসিবল অবস্থায় আছি।’

‘তবে যেখানে আমি জানিই যে এটা পসিবল না, সেখানে সময় টা নষ্ট করা, অন্য একটা জায়গা নষ্ট করা দেশের ক্রিকেটের সঙ্গে গাদ্দারি করার মত বিষয় বলেই আমি মনে করি।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

২০২২ আইপিএলের লিগ পর্বের সূচি প্রকাশ, উদ্বোধনী ম্যাচ কোলকাতা-চেন্নাইয়ের

Read Next

জাদেজার অলরাউন্ড নৈপুণ্যে শ্রীলঙ্কা হারল ইনিংস ব্যবধানে

Total
7
Share