নিজেদের দায়িত্ব সম্পর্কে অবগত বলেই সফল হচ্ছেন নাসুমরা

নিজেদের দায়িত্ব সম্পর্কে অবগত বলেই সফল হচ্ছেন নাসুমরা
Vinkmag ad

আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশ পেয়েছে ৬১ রানের বড় জয়। যে পথে বাঁহাতি স্পিনার নাসুম আহমেদ, সাকিব আল হাসানরা দেখিয়েছেন ঝলক। নাসুম অবশ্য ছিলেন দুর্দান্ত, তার তোপেই টপ অর্ডার লন্ডভন্ড সফরকারীদের। স্পিন বোলিং কোচ রঙ্গনা হেরাথ বলছেন তার শিষ্যরা নিজেদের ভূমিকা সম্পর্কে অবগত ছিলেন বলেই পেয়েছেন সাফল্য।

বাংলাদেশের ১৫৫ রানের জবাবে নাসুমের স্পিন ঘূর্ণিতে আফগানরা ২০ রানেই হারিয়ে বসে ৪ উইকেট। টানা স্পেলে নাসুম ১০ রান খরচায় নেন চারটি উইকেটই। ৪ ওভারে ১৮ রান খরচায় ২ উইকেট নেন সাকিবও। ম্যাচ থেকে শুরুতেই ছিটকে যাওয়া আফগানিস্তান গুটিয়ে যায় ৯৪ রানেই।

স্পিনারদের এমন সাফল্যের পেছনে শ্রীলঙ্কান কিংবদন্তী রঙ্গনা হেরাথ বলছেন মাইন্ডসেট অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। ভূমিকা সম্পর্কে আগেই বার্তা পরিষ্কার করে দিয়েছিল নাসুমদের।

আগামীকাল (৫ মার্চ) দ্বিতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টির আগে আজ (৩ মার্চ) মিরপুরে সংবাদ সম্মেলনে হেরাথ বলেন, ‘আমি সবসময় মাইন্ডসেটের ব্যাপারটা ভাবি। কন্ডিশন পক্ষে থাকুক বা না থাকুক, আপনার এটা বোঝার প্রয়োজন এবং কন্ডিশন নিয়ে সতর্ক হতে হবে। এ ক্ষেত্রে সেটা টার্নিং উইকেট হোক কিংবা না হোক, বোলারদের দায়িত্বটা আপনাকে বুঝতে হবে। তাদেরকে পরিষ্কার বার্তা দেওয়া হয়েছে ভূমিকা সম্পর্কে, যে কারণে তারা সফল হয়েছে প্রকৃতপক্ষে।’

গত বছর অভিষেকের পর থেকে টানা খেলার সুযোগ পাচ্ছেন নাসুম, তার প্রতিদানও দিচ্ছেন প্রতিনিয়ত। গতকাল সহ ১৯ ম্যাচের ক্যারিয়ারে ৩ বার নিয়েছেন ৪ উইকেট, সবমিলিয়ে উইকেট ২৬ টি।

নাসুমের সাফল্যের নৈপথ্যে টানা খেলার সুযোগ পাওয়াকেও বড় করে দেখছেন হেরাথ, ‘নির্বাচন ইস্যুতে আমার বিশ্বাস আপনি যখন খেলোয়াড়দের প্রচুর সুযোগ দিবেন তখন তারা বেশি আত্মবিশ্বাস পায়। বোলিং আক্রমণের কথা বললে তারা বেশ ভালো সুযোগ পাচ্ছে। যদি ব্যাটসম্যানরা এমন সুযোগ পায় তবে তারাও সেরাটা দিতে পারবে।’

হেরাথের মতে যেকোনো কন্ডিশনে সাফল্য পেতে মাইন্ডসেটের সাথে প্রয়োজন নিজের ভূমিকা সম্পর্কে অবগত হওয়া।

‘আমি সবসময় বিশ্বাস করি যে খেলা যেখানেই হোক, বাংলাদেশ হোক কিংবা শ্রীলঙ্কা, অস্ট্রেলিয়া বা নিউজিল্যান্ড, আপনার মাইন্ডসেটটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। যখন আপনি আপনার দেশের হয়ে খেলবেন তখন সেখানে দায়িত্ব ও খেলার ভূমিকা থাকে, আর সেসব বোঝা খুব গুরুত্বপূর্ণ।’

‘একজন শ্রীলঙ্কান হিসেবে আমি আমার দেশের হয়ে অনেক বছর খেলার সুযোগ পেয়েছি। আর আমি বিশ্বাস করি যখন আপনি এই সুযোগ পাবেন আপনার তখন দেশকে কিছু না কিছু ফেরত দিতে হবে। সে দিক থেকে চিন্তা করলে ছেলেরা ভালো করছে। আমি নিশ্চিত তারা ভালো ফ্রেম অব মাইন্ডে আছে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

২য় ম্যাচে ফিরতে প্রস্তুত মুশফিকুর রহিম

Read Next

বগুড়ায় ক্যাম্পই দক্ষিণ আফ্রিকায় সাফল্যের নিশ্চয়তা নয়ঃ মুমিনুল

Total
1
Share