মিডিয়ার ব্যাপারে আরও সর্তক হতে ক্রিকেটারদের প্রতি শাস্ত্রীর আহ্বান

করোনা পজিটিভ হয়ে আইসোলেশনে রবি শাস্ত্রী
Vinkmag ad

ঋদ্ধিমান সাহার সাক্ষাৎকার নিতে না পেরে তাঁকে হুমকি দিয়েছিলেন এক সাংবাদিক। এই নিয়ে রবি শাস্ত্রী থেকে শুরু করে ভিরেন্দর শেবাদ, হরভজন সিংরা ঋদ্ধির বিরুদ্ধে হওয়া অন্যায়ের প্রতিবাদ করে বোর্ডকে বিষয়টি খতিয়ে দেখার আবেদন জানিয়েছিলেন। এবার প্রাক্তন কোচ শাস্ত্রী আরও সতর্ক হয়ে চলার আহ্বান জানিয়েছেন দেশের ক্রিকেটারদের।

খালিদ এ-এইচ আনসারির স্মৃতিকথা ‘ইটস এ ওয়ান্ডারফুল ওয়ার্ল্ড’-এর লঞ্চে শাস্ত্রী বলেছিলেন,

‘আমাদের সময় সাংবাদিকদের সঙ্গে ক্রিকেটারদের অনেক ভাল সমীকরণ ছিল। কিন্তু আজকের এই হাইটেক যুগে দৃশ্য অনেকটাই পাল্টে গিয়েছে। সবসময় স্পটলাইটে থাকা সম্ভব নয়। তবে আমি ছেলেদের দোষ দিতে পারিনা। আজকের দিনে ওরা যে স্পটলাইট পায়, তা আমরা পাইনি।’

ভারতের প্রাক্তন অলরাউন্ডার শাস্ত্রী বলেছেন যে ক্রমাগত স্পটলাইটে থাকা কঠিন।

‘৭ বছর আমি ড্রেসিংরুমের অংশ ছিলাম। সে সময় ক্রিকেটারদের একটা ব্যাপারই বোঝানোর চেষ্টা করেছি। তোমরা মিডিয়াকে যতটা সম্ভব বলো, কিন্তু একটি যথাযথ প্রেস কনফারেন্সে। সেখানে তুমি একসঙ্গে অনেকের প্রশ্ন শুনতে পারবে। কারণ যা আসলে ঘটেছে, তার অনেক কিছুই আজকাল প্রেক্ষাপটের বাইরে চলে যায়।’

প্রাক্তন কোচের মুখে বরাবরের মতোই ক্রিকেটারদের দিকনির্দেশনা দিতে শোনা গেল। শাস্ত্রী বলে দিলেন,

‘মিডিয়ার কথা না ভেবে প্রথমে ক্রিকেটে মনোনিবেশ করা উচিত। একবার নিজের কাজটা করে ফেলতে পারলে তারপর যে কারও সঙ্গেই কথা বলতে পারি আমি।’

শাস্ত্রী সেই বিশিষ্ট প্রাক্তন তারকাদের মধ্যে একজন ছিলেন যিনি সাহাকে প্রকাশ্যে নাম প্রকাশ করতে এবং সাংবাদিককে লজ্জা দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন।

স্পষ্টতই মিডিয়া কর্মীদের সংখ্যা বৃদ্ধি এর সাথে অনেক কিছু জড়িত। শাস্ত্রী আরও যোগ করেছেন,

‘আমাদের প্রিন্ট মিডিয়া ছিল; টেলিভিশন (দূরদর্শন) ছিল যা সবে শুরু হয়েছিল। কিন্তু আজ মিডিয়া এবং সোশ্যাল মিডিয়াতে যে প্ল্যাটফর্মগুলি বিদ্যমান তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে, নিউজ চ্যানেল, গেম কভার করে এমন নিউজ চ্যানেলের সংখ্যা অবাস্তব এবং এটি সত্যিই এমন কিছু যা খেলোয়াড়দের উপর আলোকপাত করে।’

ঋদ্ধিমানের অভিযোগ যে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডকে ভালোই নাড়িয়ে দিয়েছে সে বিষয়ে সন্দেহ নেই। ভারতীয় দলের বাইরে থাকা ক্রিকেটারদের ইন্টারভিউ নিতেও বোর্ডের মিডিয়া ম্যানেজারকে জানাতে হবে। সবুজ সঙ্কেত মিললে তবেই সাক্ষাতকার নেওয়া যাবে, নচেৎ নয়। এমনকী কোনও ক্রিকেটার সাংবাদিক বৈঠক করলেও তা বোর্ড নিযুক্ত মিডিয়া ম্যানেজারের সামনেই করতে হবে।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

‘ইন্টেন্ড ই সব, ডট বল খেলা অপরাধ’

Read Next

সাকিবের ফেবারিট ‘এমটি ১৫’, বাইক চালান রাতে

Total
1
Share