তামিমের হৃদয়ের বিশেষ জায়গায় চট্টগ্রাম

তামিমের হৃদয়ের বিশেষ জায়গায় চট্টগ্রাম
Vinkmag ad

চট্টগ্রামের ছেলে বলে চট্টগ্রামের প্রতি তামিম ইকবালের আলাদা টান, ভালোবাসা থাকা স্বাভাবিক। যে কারণে চট্টগ্রামের মাঠে ব্যাট হাতে নামার আগে নিশ্চিতভাবেই বাড়তি রোমাঞ্চ অনুভব করার কথা। আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডের আগে টাইগার কাপ্তান জানালেন বন্দর নগরী তার হৃদয়ে বিশেষ জায়গায় অবস্থান করে।

তামিমদের খান পরিবার বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাথে জড়িয়ে আছে দেশের ক্রিকেট ইতিহাসের শুরু থেকেই। তার চাচা আকরাম খানের হাত ধরেই আইসিসি ট্রফিতে শিরোপা জেতে বাংলাদেশ। এরপর বড় ভাই নাফিস ইকবাল খেলেছেন বাংলাদেশের জার্সিতে, আর গৌরবের এমন মুকুট তামিমের মাথায় এক যুগের বেশি সময় ধরে।

ঘরের মাঠ জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে তামিম খেলেছেন ১৫ ওয়ানডে, ১৫ টেস্ট ও ৪ টি টি-টোয়েন্টি। আগামীকাল থেকে শুরু হতে যাওয়া আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের ৩ ম্যাচই অনুষ্ঠিত হবে এখানে।

সদ্য সমাপ্ত বিপিএলে শুরু থেকে দর্শক না থাকলেও প্লে-অফ ও ফাইনালে ছিল দর্শক। আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে অবশ্য শুরু থেকেই থাকছে দর্শক। শুরুতে অর্ধেকের কম দর্শকের অনুমোদন পেলেও শেষ মুহূর্তে সরকারী অনুমতি সাপেক্ষে পুরো গ্যালারিই উন্মুক্ত করে দেওয়ার সুযোগ থাকছে।

তবে নতুন করে টিকিট প্রিন্ট করার মতো ঝামেলায় না গিয়ে চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিতব্য ওয়ানডে সিরিজে ৪-৫ হাজার দর্শক নিয়েই আয়োজন করতে চায় বিসিবি। তবে ঢাকায় ফিরে টি-টোয়েন্টি সিরিজে পুরো গ্যালারি উন্মুক্ত করার পরিকল্পনা বিসিবির।

সর্বশেষ পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজেও দর্শক অনুমোদন দিয়েছিলো বিসিবি। কিন্তু চোটের কারণে ঐ সিরিজে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি খেলেননি তামিম। ফলে করোনা পরবর্তী দর্শক সহ কোনো সিরিজে এবারই খেলছেন টাইগার ওপেনার।

একদিকে ঘরের মাঠ চট্টগ্রাম, অন্যদিকে স্থানীয় দর্শকদের সামনে খেলা, তাও আবার দীর্ঘ বিরতির পর নিজের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরা সব মিলিয়ে তামিমের জন্য আগামীকালকের ম্যাচ অনেক উপলক্ষ্যের কারণ। তামিম নিজে কি ভাবছেন সেসব নিয়ে এমন প্রশ্নের উত্তরও দিয়েছেন সংবাদ সম্মেলনে।

ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘চট্টগ্রামের জন্য আমার হৃদয়ে বিশেষ একটা জায়গা আছে। দর্শক থাকলে ভালো। অনেক দিন পর দেশের দর্শকদের সামনে খেলব। দর্শক কখনও কখনও দ্বাদশ খেলোয়াড় হয়ে ওঠে। আমরা ভালো করি বা খারাপ করি, তারা মাঠে থাকলে সমর্থনের জন্য সর্বোচ্চটুকু করে যান।’

এদিকে দুর্দান্ত এক বিপিএল শেষে আফগানদের বিপক্ষে মাঠে নামছে তামিম। ৯ ম্যাচে ৫৮.১৪ গড়ে ৪০৭ রান করে বিপিএলের তৃতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন তামিম। তবে টাইগারদের ওয়ানডে অধিনায়ক মানতে নারাজ বিপিএলে ভালো করেছেন বলেই যে আফগানিস্তান সিরিজে ভালো করে ফেলবেন। তবে প্রক্রিয়া ঠিক রেখে নিজের সেরাটা দিয়ে চেষ্টা করতে চান বলে জানান।

তামিম বলেন, ‘আমি আমার সেরাটা চেষ্টা করব। বিপিএল ভালো গেছে মানে এই না এই সিরিজও অনেক ভালো খেলব। প্রক্রিয়া ঠিক রেখে চেষ্টা করব, দেখা যাক ফলাফল কী হয়।’

চট্টগ্রাম থেকে, ক্রিকেট৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

৩ নম্বর নিয়ে চিন্তা নেই, ৫ নম্বরে বিবেচনায় দুইজন

Read Next

সব থেকেও কিছুই নাই এর দিন রাসেল ডোমিঙ্গোর

Total
1
Share