এবার তীরে এসে তরী ডুবল করাচি কিংসের

এবার তীরে এসে তরী ডুবল করাচি কিংসের
Vinkmag ad

তীরে এসে তরী ডুবিয়েছে করাচি কিংস। আসিফ আলির অলরাউন্ড পারফরম্যান্স এবং শেষ ওভারে ওয়াকাস মাকসুদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে ১ রানের নাটকীয় জয় পেয়েছে ইসলামাবাদ ইউনাইটেড। বিফলে যায় ইমাদ ওয়াসিম ও কাসিম আকরামের দাপুটে ইনিংস।

৭ ম্যাচের সবকটিতে হেরেছে করাচি। অন্যদিকে সমান সংখ্যক ম্যাচে ৪ জয়ে ৮ পয়েন্ট নিয়ে ৩য় স্থানে উঠে এসেছে ইসলামাবাদ।

শুরুতে ব্যাটিংয়ে নেমে ৭ উইকেটে ১৯১ রানের বড় স্কোর গড়ে ইসলামাবাদ। সর্বোচ্চ ৩৪ রান আসে অধিনায়ক শাদাব খানের ব্যাট থেকে। এছাড়া ফাহিম আশরাফ মাত্র ১০ বলে অপরাজিত ২৯ রান এবং আসিফ মাত্র ১১ বলে ২৮ বলে রান করেন।

করাচির পক্ষে ইমাদ ওয়াসিম ২ উইকেট পান।

১৯২ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে শুরুতে অধিনায়ক বাবর আজম ও জো ক্লার্ককে হারায় করাচি। শারজিল খানের (৪৬) বদান্যতায় প্রাথমিক ধাক্কা কাটিয়ে উঠলেও আসিফ আলির চমকপ্রদ বোলিংয়ে ৪ রানের ব্যবধানে ৩ উইকেট হারিয়ে কোনঠাসা হয়ে পড়ে করাচি।

৬ষ্ঠ উইকেটে কাসিম আকরাম ও ইমাদ ওয়াসিমের ১০৮ রানের জুটি গড়ে জয়ের কাছাকাছি চলে আসে তারা। তবে অন্তিম ওভারে ওয়াকাস মাকসুদের ম্যাজিকে ১ রানের জয় পেয়ে যায় ইসলামাবাদ। ইমাদ ৫৫ এবং কাসিম অপরাজিত ৫১ রান করেন।

ইসলামাবাদের পক্ষে ওয়াকাস ৩টি ও আসিফ ২টি উইকেট পান।

ম্যাচ সেরার পুরস্কার পান আসিফ আলি।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

ইসলামাবাদ ইউনাইটেডঃ ১৯১/৭ (২০), গুরবাজ ১২, হেলস ২৫, আখলাক ২, শাদাব ৩৪, ডসন ১৫, আজম ২২, আসিফ ২৮, ফাহিম ২৯*, হাসান ১২*; ইমাদ ৪-০-৩০-২, হামজা ৪-০-৩১-১, জর্ডান ৪-০-৩৯-১, উমাইদ ৪-০-৪৯-১, থম্পসন ২-০-২২-১

করাচি কিংসঃ ১৯০/৮ (২০), শারজিল ৪৪, বাবর ১৩, ক্লার্ক ০, ফারহান ১৭, কাসিম ৫১*, নবি ৩, ইমাদ ৫৫, থম্পসন ০, জর্ডান ০; জিশান ১.৩-০-১০-১, ডসন ৩.৩-০-২১-১, ওয়াকাস ৪-০-৩৪-৩, আসিফ ৩-০-২৭-২

ফলাফলঃ ইসলামাবাদ ইউনাইটেড ১ রানে জয়ী

ম্যাচ সেরাঃ আসিফ আলি (ইসলামাবাদ ইউনাইটেড)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

এবাদত, বেবি এবিকে টপকে জানুয়ারি মাসে বিজয়ী কিগান পিটারসেন

Read Next

আইপিএলের জন্য পিএসএল ছাড়লেন অ্যালেক্স হেলস!

Total
15
Share