ফাইনালে বোলারদের সাথে ব্যাটাররাও ঝলক দেখাবে আশা সাকিবের

ফাইনালে বোলারদের সাথে ব্যাটাররাও ঝলক দেখাবে আশা সাকিবের
Vinkmag ad

প্রথম কোয়ালিফায়ারে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ায়ন্সকে ৭ রানে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে ফরচুন বরিশাল। বরাবরের মতো আরেক দফা দারুণ বোলিং প্রদর্শন করেছে ফরচুন বরিশালের বোলিং বিভাগ। মাত্র ১৪৩ রানের পুঁজি নিয়েও প্রতিপক্ষকে আটকে দিয়ে অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের প্রশংসা কুড়িয়েছেন বোলাররা।

মেহেদী হাসান রানা, ডোয়াইন ব্রাভো, শফিকুল ইসলাম, মুজিব উর রহমানের সাথে সাকিব আল হাসান মিলে দুর্দান্ত বোলিং আক্রমণ ফরচুন বরিশালের। টুর্নামেন্ট জুড়েই যার প্রমান দিয়েছে তারা। ফাইনালে উঠলেও এখনো ব্যাটিং বিভাগ নিয়ে কিছুটা হতাশা থেকেই যাচ্ছে। সাকিব বলছেন ফাইনালে তারা বোলিংয়ের সাথে ব্যাটিং দিয়েও দলকে জয়ে এনে দিতে চান।

১৪৪ রানের লক্ষ্য তাড়ায় বিনা উইকেটে ৬২ রান তুলে ফেলে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। সেখান থেকে বোলারদের কল্যাণে ম্যাচে ফেরে ফরচুন বরিশাল। যদিও শুরুতেও রান আটকে প্রতিপক্ষের জন্য প্রয়োজনীয় রানের সমীকরণ কঠিন করেন বোলাররা।

এই যেমন বাঁহাতি পেসার শফিকুল ইসলাম নতুন বলে ২ ওভারের প্রথম স্পেলে খরচ করেন ৯ রান, ৬ষ্ঠ ওভারে দ্বিতীয় স্পেলে এসেও খরচ করেন ৪ রান। আর ১২তম ওভারে এসে তো ম্যাচের গুরুত্বপূর্ণ ২ উইকেট লিটন দাস ও ইমরুল কায়েসকে ফেরান। সব মিলিয়ে ৪ ওভারের স্পেলে ১৬ রান খরচ করেন।

এদিকে প্রথম ওভারে ৮ রান দিয়ে ১ উইকেট নেওয়া মেহেদী হাসান রানা ডেথ ওভারে ছিলেন আরও দুর্দান্ত। ১৭তম ওভারে দেন মাত্র ৩ রান, ১৯তম ওভারে এসেও দেননি ৪ রানের বেশি, নেন ফাফ ডু প্লেসিসের উইকেট। সবমিলিয়ে ৩ ওভারে ১৫ রান খরচায় উইকেট ২ টি।

বোলারদের নিয়ে উচ্ছ্বসিত সাকিব পুরষ্কার বিতরণীতে বলেন, ‘টুর্নামেন্ট জুড়েই আমাদের বোলাররা দাঁড়িয়ে গেছে যখনই তাদের প্রয়োজন হয়েছে। আমরা জানি আমাদের বোলিং লাইনআপ যেকোনো সংগ্রহ ডিফেন্ড করার সামর্থ্য রাখে। কিন্তু আমাদের আরও কিছু রান করা উচিৎ ছিলো, ১৫-২০ রান কম হয়েছে বলে মনে করি। আর সেটা হলে আমাদের বোলারদের জন্য কাজটা আরও সহজ হতো।’

‘হ্যাঁ এটা অবশ্যই আশীর্বাদ, আপনাকে অবশ্যই আপনার বোলারদের উপর বিশ্বাস রাখতে হবে। সব মিলিয়ে টুর্নামেন্টজুড়েই তারা সর্বোচ্চটা দিয়ে চেষ্টা করেছে। সব মিলিয়ে ভালো ক্রিকেট খেলেছি আমরা, আর একটা ম্যাচ বাকি, আশা করি সেটাও ভালোভাবে শেষ করতে পারবো।’

ব্যাট হাতে দলকে আবারও ভালো শুরু এনে দেন মুনিম শাহরিয়ার। করেছেন ৩০ বলে ৪৪ রান। সাকিব প্রশংসা করেছেন মুনিম ও শফিকুলের। যেখানে ফাইনালে ব্যাটিং বিভাগের ঝলক দেখানোর আশাও ব্যক্ত করেন।

তার মতে, ‘হ্যাঁ সে (মুনিম) ফরচুন বরিশালের হয়ে খুব ভালো করছে। আর একটা ম্যাচ বাকি আছে আশা করি আমাদের ওপেনাররা ভালো করবে। শফিকুল নতুন বলে দারুণ করেছে। আমরা বোলিংয়ে সব ধরণের বৈচিত্র্য দিয়ে কাভার করেছি। আশা করি ফাইনালে আমরা আমাদের ব্যাটিং বিভাগের সেরাটা দেখাতে পারবো।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

কুমিল্লাকে অপেক্ষায় রেখে ফাইনালে ফরচুন বরিশাল

Read Next

এবাদত, বেবি এবিকে টপকে জানুয়ারি মাসে বিজয়ী কিগান পিটারসেন

Total
34
Share