হারের বৃত্তে ঘুরপাক খাচ্ছে সিলেট সানরাইজার্স

featured photo updated v 12
Vinkmag ad

ভেন্যু বদলেছে, বদলেছে উইকেটের ধরণ, ততদিনে জমে উঠেছে দলগুলোর প্লে-অফ নিশ্চিতের লড়াই। তবে কোনভাবেই পরাজয়ের বৃত্ত থেকে বের হতে পারছেনা সিলেট সানরাইজার্স। ঘরের মাঠে টানা ৩ ম্যাচেও জুটেছে পরাজয়, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের কাছে আজ (৯ ফেব্রুয়ারি) হারতে হয়েছে ৪ উইকেটে।

আগের ম্যাচে ৯০ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলা কলিন ইনগ্রাম আজ খেললেন ৮৯ রানের ইনিংস। সাথে এনামুল হক বিজয়ের ব্যাটে ৪৬ রান। তাতে ৫ উইকেটে ১৬৯ রানের পুঁজি আগে ব্যাট করা সিলেট সানরাইজার্সের।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে শুরুতে হোঁচট খেলেও মাহমুদুল হাসান জয় ও মইন আলির দারুণ এক জুটিতে জয়ের কাজটা সহজই হয়ে যায়। যদিও শেষদিকে দেখা মেলে কিছুটা নাটকীয়তার। শেষ ওভারে গড়ানো ম্যাচে সুনীল নারাইনের ক্যামিওতে জয় এসেছে ১ বল বাকি থাকতে। জয়ের ব্যাটে ৬৫ ও মইন খেলেন ৪৬ রানের ইনিংস।

২২ রানেই সাঝঘরে ফেরে ফর্মে থাকা লিটন দাস (৭) ও ৩ নম্বরে নামা ফাফ ডু প্লেসিস (২)। আর সেখান থেকে জয়-মইনের ৮২ রানের জুটি। ৩৫ বলে ৪ চার ২ ছক্কায় মইন ৪৬ রান করে আউট হলে ভাঙে জুটি।

মইন ফিরলে ৪২ বলে ফিফটি তুলে নেন জয়। মাঝে ইমরুল কায়েস করেন ১৬ রান। শেষ ৩ ওভারে প্রয়োজন পড়ে ২৯ রানের। আলাউদ্দিন বাবুর করা ১৮তম ওভারে আসে মাত্র ৭ রান, সাথে শেষ দুই বলে ফিরতে হয়ে জয় ও আরিফুল হককে।

জয়ে থেমেছেন ৫০ বলে ৭ চার ২ ছক্কায় ৬৫ রানে, আরিফুল খালি হাতে। ২ ওভারে প্রয়োজন ২২। ৩ ওভারের প্রথম স্পেলে মাত্র ১০ রান খরচ করা পেসার একেএস স্বাধীন ১৯তম ওভারেই দেন ১৯ রান। যেখানে বড় অবদান নারাইনের, হাঁকান ২ চার ১ ছক্কা।

তাতেই ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ পুরোপুরি কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের, যদিও শেষ ওভারে আলাউদ্দিন বাবু লড়াই চালিয়েছেন ভালোই। ওভারের ১ বল বাকি থাকতেই চার মেরে জয় নিশ্চিত করেন আবু হায়দার রনি। নারাইন অপরাজিত ছিলেন ১২ বলে ২৪ রানে।

এর আগে ব্যাট করতে নামা সিলেট সানরাইজার্স দুই ওপেনার ইনগ্রাম ও বিজয় জুটিতে তোলেন ১০৫ রান। পাওয়ার প্লেতেই আসে ৫২ রান। দুজনেই ছিলেন সাবলীল, হাঁকিয়েছেন নিয়মিত বাউন্ডারি।

৩৩ বলে ৪ চার ৩ ছক্কায় ৪৬ রান করা বিজয়কে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন মুস্তাফিজ। তার আগেই ৩৫ বলে ফিফটি তুলে সেঞ্চুরির পথে হাঁটছিলেন ইনগ্রাম। মাঝে লেন্ডল সিমন্স (১৬), রবি বোপারা (১) ফিরলেও ইনগ্রাম টিকে ছিলেন শেষ ওভার পর্যন্ত।

তবে ইনিংস শেষ করে আসতে পারেননি, ফলে আক্ষেপে পুড়তে হয়েছে আরেকবার। আগের ম্যাচে ৯০ এর পর আজ থেমেছেন ৬৩ বলে ৯ চার ৩ ছক্কায় ৮৯ রান করে। তাকেও ফেরান মুস্তাফিজ। ৪ ওভারে ২৩ রান খরচায় ৩ উইকেট তুলে নিয়ে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের সেরা বোলারও মুস্তাফিজ।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ালেন অ্যাশওয়েল প্রিন্স

Read Next

প্রসিদ্ধ কৃষ্ণার অবিশ্বাস্য বোলিংয়ে ভারতের সিরিজ জয়

Total
10
Share