ক্ষুধার্ত শামীম এমন দিনের অপেক্ষাতেই ছিলেন

ক্ষুধার্ত শামীম এমন দিনের অপেক্ষাতেই ছিলেন
Vinkmag ad

শামীম পাটোয়ারি চলতি বিপিএলে নিজেকে যেনো ঠিকঠাক মেলে ধরতে পারছিলেন না। মাঝে বাদও পড়তে হয়েছিলো। তবে শেষ দুই ম্যাচে দিয়েছেন ভালো কিছুর আভাস, যার পূর্ণতা পেলো চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে টুর্নামেন্টে কাগজে কলমে টিকে থাকতে জিততেই হবে এমন ম্যাচে। মিনিস্টার ঢাকার বিপক্ষে ফিফটি তুলে নেওয়া শামীম জানালেন রানের ক্ষুধায় এমন দিনের অপেক্ষাতেই ছিলেন।

৮ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের ৫ম স্থানে ছিল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। পেল অফ খেলতে হলে শেষ দুই ম্যাচ জিতে অপেক্ষা করতে হবে অন্যদের জয়-পরাজয়ের সমীকরণের।

মিনিস্টার ঢাকার বিপক্ষে সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম রোমাঞ্চকর ম্যাচে দলটি জয় পেলো ৩ রানে। যেখানে ব্যাট হাতে জ্বলে উঠে দলকে টেনে তোলেন টুর্নামেন্টে নিজের ছন্দ খুঁজে না পাওয়া শামীম।

দল যখন ৫৬ রানে ৩ উইকেট হারায় তখন ক্রিসে আসেন শামীম। তার ক্রিজে আসার পর বিদায় নেয় আরও ২ ব্যাটার। ৮৪ রানে নেই ৫ উইকেট, সেখান থেকে বেনি হাওয়েলকে নিয়ে ৫৮ রানে জুটি।

৩৭ বলে ৫ চার ১ ছক্কায় ৫২ রান আসে শামীমের ব্যাট থেকে। বাঁহাতি এই তরুণ ব্যাটার আগের ৬ ম্যাচে যেখানে করতে পেরেছিলেন সাকূল্যে ৮১ রান। রানের ক্ষুধায় থাকা শামীম জানালেন নিজেও অপেক্ষায় ছিলেন এমন দিনের।

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘শুরুতে আল্লাহর কাছে লাখ লাখ শোকরিয়া জানাচ্ছি। আজকের উইকেটটা যদিও একটু কঠিন ছিলো। যেহেতু আমাদের উইকেট চলে গিয়েছিলো, আমি চিন্তা করেছি আস্তে আস্তে খেলি, স্ট্রাইক রোটেট করে খেলবো। লাস্ট ওভার পর্যন্ত কীভাবে খেলবো আমার লক্ষ্যই ছিলো সেটা।’

‘আসলে আমি নিজে অনেক ক্ষুধার্ত, অনেকদিন ধরে আমি এই দিনটার অপেক্ষায় ছিলাম। আমি ফিনিশ করতে পেরেছি এটা শোকরিয়া। নির্দিষ্ট কিছু নিয়ে আমি কোনো কাজ করিনি। নরমালি প্র্যাকটিসে যা করা, ওটাই আমি করি।’

৬ উইকেটে ১৪৮ রানের পুঁজি পেয়েছিলো চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। তামিম ইকবালের অপরাজিত ৭৩ রানের ইনিংসে জয়ের পথে থেকেও শেষ ওভারের নাটকীয়তায় মিনিস্টার ঢাকা হারে ৩ রানে।

এই ম্যাচের উইকেট নিয়ে শামীম বলেন, ‘আসলে উইকেট বলতে আমরা যেরকম আশা করছিলাম সেরকম ছিলনা। কিছু করার নাই ওভাবেই খেলতে হবে। একটু হাল্কা টার্ন ও বাউন্স ছিল। মাঝে মাঝে বল নিচুও হয়ে যাচ্ছিলো।’

আজ হারলেই বাদ পড়তে হতো, তবে জয়ের পর চট্টগ্রামের প্লে অফ খেলার কাগজে কলমে হিসেবটা আছে। তবে নিজেদের কাজ পরের ম্যাচটা জিততে হবে।

শামীম বলছেন স্বাভাবিক পরিকল্পনা নিয়েই শেষ ম্যাচে সিলেট সানরাইজার্সের বিপক্ষে মাঠে নামবেন, ‘আসলে দেখেন আমাদের আরও একটা ম্যাচ আছে, আমরা কিন্তু এখনো হারিয়ে যাইনি। আমরা যদি উইন করতে পারি, চান্স আছে। সহজ বলতে আগে তো বলা যাবে না, মাঠে গেলে বোঝা যাবে। পরিকল্পনা স্বাভাবিকভাবে যেমন থাকে তেমনই থাকবে, আমরা পজিটিভ থাকবো। ম্যাচ জিতলেতো আলহামদুলিল্লাহ। সবাইতো ম্যাচ জেতার জন্য খেলে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

আইসিসি প্লেয়ার অব দ্য মান্থঃ মনোনয়ন পেলেন এবাদত

Read Next

পাকিস্তান সফরের জন্য অস্ট্রেলিয়ার পূর্ণশক্তির স্কোয়াড ঘোষণা

Total
1
Share