অধিনায়ক নাইমের প্রথম জয়েই প্রশংসায় ভাসছেন মৃত্যুঞ্জয়

অধিনায়ক নাইমের প্রথম জয়েই প্রশংসায় ভাসছেন মৃত্যুঞ্জয়
Vinkmag ad

মেহেদী হাসান মিরাজকে সরিয়ে সিলেট সানরাইজার্সের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে টুর্নামেন্টের বাকি অংশের জন্য নাইম ইসলামকে অধিনায়ক করে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। অধিনায়ক হিসেবে নাইমের প্রথম ম্যাচেই দল দারুণ জয় পেয়েছে। রান বন্যার ম্যাচে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে জয়ের পথ দেখান হ্যাটট্রিক তুলে নেওয়া পেসার মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী। ম্যাচ শেষে মৃত্যুঞ্জয়ের প্রশংসায় পঞ্চমুখ নাইম।

আগে ব্যাট করে উইল জ্যাকসের (১৯ বলে ৫২) ঝড়ো ফিফটির সাথে আফিফ হোসেন (৩৮), সাব্বির রহমানের (৩১) কার্যকরী দুই ইনিংস ও শেষদিকে বেনি হাওয়েলের ক্যামিওতে (২১ বলে ৪১*) টুর্নামেন্টে এখনো পর্যন্ত সর্বোচ্চ ৫ উইকেটে ২০২ রানের দলীয় সংগ্রহ চট্টগ্রামের।

জবাবে কলিন ইনগ্রাম (৫০) ও এনামুল হক বিজয়ের (৭৮) ১১২ রানের জুটিতে জয়ের পথেই ছিলো সিলেট সানরাইজার্স। ইনগ্রামের বিদায়ের পরও লক্ষ্যের দিকেই এগোচ্ছিলো বিজয়ের ব্যাটে।

শেষ ৩ ওভারে প্রয়োজন ৪৭, মৃত্যুঞ্জয়ের করা ইনিংসের ১৮তম ওভারের প্রথম দুই বলেই ছক্কা ও চার বিজয়ের। ফলে ১৬ বলে প্রয়োজন দাঁড়ায় ৩৭, কিন্তু পরের তিন বলেই বিজয় সহ ৩ উইকেট মৃত্যঞ্জয়ের।

এবারের বিপিএলের প্রথম ও সবমিলিয়ে ৬ষ্ঠ হ্যাটট্রিক তুলে দলের জয়ে আর কোনো অনিশ্চয়তা রাখেননি বাঁহাতি এই পেসার। ১৮৬ রানেই আটকে যেতে হয় সিলেটকে, চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের জয় ১৬ রানের।

ম্যাচ শেষে অধিনায়ক নাইম ইসলাম প্রশংসায় ভাসিয়ে পুরষ্কার বিতরণীতে বলেন, ‘অধিনায়ক হিসেবে জয় দিয়ে শুরু করাটা খুব ভালো ব্যাপার। (উইল) জ্যাকস ও কেনার (লুইস) সত্যি ভালো ব্যাটার। তারা জানে ক্রিকেট বলকে কীভাবে মারতে হয়। আজ তারা সত্যি খুবই ভালো খেলেছে। আশা করি সামনের ম্যাচগুলোতে কেনার নিজেকে আরও সামনে তুলে ধরবে।’

‘বিজয় ভালো ব্যাট করেছে তবে আমি সত্যি মৃত্যুঞ্জয়কে নিয়ে খুশি যে সে ভালো বল করেছে এবং হ্যাটট্রিক তুলে নিয়েছে। আমাদের দলে নাসুম মূল বোলার, গুরুত্বপূর্ণ সময়ে সে বল করেছে, আমরা তাকে শেষের জন্য রেখেছিলাম, যা সে ভালোভাবে করেছে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

শান-রিজওয়ানের ব্যাটে চড়ে মুলতানের ২য় জয়

Read Next

নাসিম শাহের অগ্নিঝরা বোলিং, পাত্তা পেলেন না বাবররা

Total
10
Share