কোহলির অধিনায়কত্ব ছাড়ার কারণ জানালেন পিটারসেন

কোহলির টেস্ট প্রেমে বিমোহিত পিটারসেন
Vinkmag ad

ভিরাট কোহলি অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেওয়ায় বিন্দুমাত্র অবাক হননি ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক কেভিন পিটারসেন। জৈব সুরক্ষা বলয়ের কঠোর নিয়মই কোহলির নেতৃত্ব ছাড়ার অন্যতম কারণ বলে মনে করেন তিনি। এছাড়া সব ধরণের ফরম্যাটে দলপতি হিসেবে রোহিত শর্মার ভূয়সী প্রশংসা করেন সাবেক এ স্টাইলিশ ব্যাটসম্যান।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ হারের পর টেস্টের অধিনায়ক হিসেবে সরে দাঁড়ান কোহলি। গত বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শেষে টি-টোয়েন্টির নেতৃত্ব থেকেও অব্যাহতি নেন। বিসিসিআই-এর সাথে তর্কযুদ্ধ বাধিয়ে ওয়ানডের অধিনায়কত্ব হারান তিনি।

”আধুনিক ক্রিকেটে যারা বেশি সমালোচনা করে, আমার কাছে তারা বোকা। কেননা বর্তমানে জৈব সুরক্ষা বলয়ে থেকে খেলাধুলা করাটা খুবই কঠিন,’ লিজেন্ডস লিগ ক্রিকেট চলাকালীন মাঠের বাইরে পিটিআই-এর একটি দলবদ্ধ কার্যক্রমে এ কথাগুলো বলেন পিটারসেন।

‘অতিরিক্ত সমালোচনা করাটা খুবই অবিবেচকের মত কাজ। কারণ আপনারা কোহলিকে দেখতে পারেন না। কোহলির দরকার দর্শক। সে সবাইকে মাতিয়ে রাখে। সে একজন বিনোদনকারী।’

‘আমার মতে জৈব সুরক্ষা বলয়ে থেকে সেরা পারফর্ম করাটা কোহলির জন্য বেশ কষ্টসাধ্য।’

ভারতীয় অধিনায়ক হিসেবে সর্বোচ্চ টেস্ট জয় কোহলির অধীনে (৪০)। তার উপরে শুধু গ্রায়েম স্মিথ, রিকি পন্টিং ও স্টিভ ওয়াহ রয়েছেন।

‘অনেক ক্রিকেটারই এ যন্ত্রণায় ভুগছে। বিশ্বে এটাই সেরা কর্ম। কিন্তু যখন আপনি তাদেরকে জৈব সুরক্ষা বলয়ে রাখবেন, এটা কখনোই সেরা কর্ম হতে পারে না। কেননা সেখানে কোন বিনোদন নেই,’ ৪১ বছর বয়সী পিটারসেন জানান।

‘অতিরিক্ত চাপ থেকে মুক্তি পেতে কোহলি ক্ষণিকের বিরতি নেওয়ায় আমি অবাক হইনি। কারণ এ সুরক্ষা বলয়ে খেলাটা ভীষণ কঠিন।’

‘একজন ব্যাটসম্যান হিসেবে আমারও শক্তি প্রয়োজন। ফুটবল, রাগবি কিংবা টেনিসের খেলোয়াড়দেরও তেমনি শক্তির দরকার হয়।’

রোহিত ইনজুরিতে পড়ায় দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে নেতৃত্ব দিয়েছেন সহ অধিনায়ক লোকেশ রাহুল। তবে ভারতের সব ফরম্যাটে অধিনায়ক হিসেবে রোহিতকে যোগ্য মনে করেন পিটারসেন।

‘আমি সবসময় হিটম্যান খ্যাত রোহিত শর্মাকে পছন্দ করি। সে অসাধারণ খেলোয়াড়। যখনই সে ব্যাটিং করে, আমি উপভোগ করি। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে তার অধিনায়কত্বও দুর্দান্ত। সম্ভবত সেই টেস্টের অধিনায়ক হিসেবে বিবেচিত হবে।’

সম্প্রতি তরুণ রিশাব পান্টকে অধিনায়ক হিসেবে দেখার আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন কিংবদন্তি সুনীল গাভাস্কার। তবে পিটারসেন জানান, পান্ট কোন একদিন ভারতের অধিনায়ক হতে পারেন।

”আপনি অধিকার নষ্ট করতে পারেন। কিন্তু পান্ট এখনই যোগ্য না। হয়তো কোন এক সময় সেও অধিনায়ক হবে। কিন্তু যখন আপনার সামনে রোহিত ও রাহুলরা আছে, আপনি আরও দুর্দান্ত ক্রিকেটার পাবেন,’ জানান পিটারসেন।

‘আমি রাহুল দ্রাবিড়কে ভালোবাসি। জাতীয় দলে তার কার্যক্রমের উন্নতি দেখতে মুখিয়ে আছি। তরুণ ক্রিকেটারদের নিয়ে সে অবিশ্বাস্য কাজ করেছে। তাই এবার অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের নিয়ে তার উন্নতি দেখতে চাই,’ পিটারসেন অভিমত ব্যক্ত করেন।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

কুমিল্লার কাছে পাত্তাই পেল না বরিশাল

Read Next

আইপিএলে নতুন দলের নাম লখনৌ সুপার জায়ান্টস

Total
1
Share