আরামে বল করা বেনি হাওয়েলকে কৃতিত্ব দিতে নারাজ শেখ মেহেদী

আরামে বল করা বেনি হাওয়েলকে কৃতিত্ব দিতে নারাজ শেখ মেহেদী
Vinkmag ad

বেনি হাওয়েল মূলত দুর্দান্ত মিডল অর্ডার ব্যাটার কিন্তু বল হাতেও বেশ কার্যকর। বিশেষ করে পরিস্থিতি বুঝে যখন অফ স্পিন, লেগ স্পিনের সাথে পেস বোলিংটাও করেন তখন দলের ভারসাম্য নিশ্চিতভাবেই ভিন্নরকম হয়। গতকাল (২৪ জানুয়ারি) খুলনা টাইগার্সের বিপক্ষে তার অলরাউন্ড নৈপুণ্যে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স জিতেছে ২৫ রানে। তবে খুলনার অলরাউন্ডার শেখ মেহেদী হাসান বলছেন তার দল দ্রুত কয়েকটি উইকেট হারানোয় হাওয়েল আরামে বল করে গেছেন।

এমনিতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি বেনি হাওয়েল পেস বোলিংই করে থাকেন। তবে সাম্প্রতিক সময়ে নিজের দক্ষতার ভান্ডারের যোগ করেছেন স্পিনটাও। পরিস্থিতি বুঝে যার যথার্থ প্রয়োগ করছেন চলতি বিপিএলে।

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের এই অলরাউন্ডার প্রথম দুই ম্যাচে ব্যাট হাতে খেলেছেন অতি গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস। বল হাতে উইকেট না পেলেও ছিলেন বেশ উপযোগী। গতকাল তো ব্যাট হাতে ২০ বলে অপরাজিত ৩৪ রানের সাথে বল হাতে শিকার খুলনা অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের উইকেট, হয়েছেন ম্যাচ সেরাও।

এদিন হাওয়েল যখন বোলিংয়ে আসে তখন চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের ১৯০ রান তাড়ায় নেমে ২ উইকেট হারিয়ে ফেলে খুলনা টাইগার্স। হাওয়েল নিজের ৩ ওভারের প্রথম স্পেলে ফেরান প্রতিপক্ষের অন্যতম ভরসা মুশফিককে।

৮ম ওভারে আক্রমণে এসে করেছেন টানা ৩ ওভার, তবে নিজের শেষ ওভারটি করেন ১ ওভার বিরতি দিয়ে। প্রথম ৩ ওভারে ১৮ রান দেওয়া হাওয়েল শেষ ওভারে ১৯ রান না দিলে বোলিং ফিগার হতে পারতো আরও সুন্দর। তবে ২৫ রানে হারা খুলনা টাইগার্স অলরাউন্ডার শেখ মেহেদী কৃতিত্ব দিতে নারাজ হাওয়েলকে।

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘না এটা কোনো ম্যাটার করে না। অফ স্পিন বা লেগ স্পিন যাই করুক না কেন খুব কঠিন কোনো বোলিং করছিলো না। একটা সময় ছিলো, এমন একটা পরিস্থিতি হয়েছে যে আমাদের ৩-৪ উইকেট পড়ে গিয়েছিলো। ওই ফাঁকে সে বল করে গেছে। উইকেটে যদি আমাদের একটা জুটি থাকতো, মনে হয়না সে তখন এত আরামে বল করতে পারতো। দৃশ্যটা অন্যরকম কিছুও হতে পারতো।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

বর্ষসেরা হয়ে ‘স্যার গারফিল্ড সোবার্স ট্রফি’ জিতলেন শাহীন আফ্রিদি

Read Next

সব্যসাচী বেনি হাওয়েল জানালেন স্পিন পারদর্শীতার রহস্য

Total
6
Share