হোয়াইটওয়াশের লজ্জায় ডুবলো ভারত

featured photo updated v 16
Vinkmag ad

প্রোটিয়াদের কাছে ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হল ভারত। টেস্ট সিরিজ জয়ের পর এবার ওয়ানডের ট্রফিটাও নিজেদের কাছে রাখল স্বাগতিকরা। হোয়াইটওয়াশের লজ্জা এড়াতে ২৮৮ রান তাড়া করতে নেমে ৪ বল বাকি থাকতেই অলআউট হয়ে গেল ভারত। শেষপর্যন্ত ৪ রানের ব্যবধানে হেরে গেল রাহুলের দল, তীরে এসে ডুবলো তরী।

১২৪ রানের অনবদ্য ইনিংসে ম্যাচ সেরার পুরষ্কার জেতেন কুইন্টন ডি কক। ১৩০ বলে ১২টি চার ও ২টি ছক্কার সাহায্যে সাজানো তাঁর এই ইনিংস। তিন ম্যাচে মোট ২২৯ রান সংগ্রহ করে সিরিজ সেরা ক্রিকেটারও নির্বাচিত হন কুইন্টন ডি’কক।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে ২-১ ব্যবধানে হারের পর, ওয়ানডে সিরিজেও পাত্তা পায়নি টিম ইন্ডিয়া। এবার হোয়াইটওয়াশ হওয়ার লজ্জা নিয়েই দেশে ফিরতে হচ্ছে ভারতীয় ক্রিকেটারদের।

আগেই টানা দুই জয়ে সিরিজ নিশ্চিত হয় প্রোটিয়াদেরকেপ টাউনে সিরিজের শেষ ম্যাচে টসে জিতে শুরুতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ভারত অধিনায়ক লোকেশ রাহুল। ভারতের একাদশে চার পরিবর্তন। প্রথমে ব্যাটিং করে ৪৯.৫ ওভারে অল আউট হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ২৮৭ রান তুলেছে প্রোটিয়ারা। সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচ জিততে হলে ভারতকে তুলতে হবে ২৮৮ রান। প্রোটিয়াদের হয়ে সর্বোচ্চ রান করেছেন উইকেটকিপার-ব্যাটার কুইন্টন ডি’কক (১২৪), দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান এসেছে ভ্যান ডার ডুসেনের (৫২) ব্যাট থেকে।

দুটি করে উইকেট পেয়েছেন জাসপ্রীত বুমরা ও দীপক চাহার। ৩টি উইকেট পেয়েছেন প্রসিধ কৃষ্ণা। ১টি উইকেট পেয়েছেন যুজবেন্দ্র চাহাল।

রান তাড়া করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি ভারতের। ব্যাট হাতে ব্যর্থ হন অধিনায়ক লোকেশ রাহুল। দ্বিতীয় উইকেটে খেলার রাশ ধরেন ভিরাট কোহলি ও  শিখর ধাওয়ান। একের পর এক স্ট্রোক্স খেলে নিজের অর্ধশতরান পূরণ করেন ধাওয়ান। ৯৮ রানের পার্টনারশিপ  কোহলি-ধাওয়ান জুটির। তবে ব্যক্তিগত ৬১ রান করে আউট হন ধওয়ান।

রানের খাতাও খুলতে পারেননি রিশাব পান্ট। অপরদিকে নিজের অর্ধশতরান পূরণ করার বেশি সময় ক্রিজে থাকতে পারেনি ভিরাট কোহলিও। ৬৫ রান করেন তিনি। এরপর শ্রেয়াস আইয়ার ২৬ ও সুরিয়াকুমার যাদব ৩৯ রান করে লড়াই করার চেষ্টা করলেও তা বেশিদূর এগিয়ে নিয়ে যেতে পারেননি। শেষের দিকে ভারতের হারা ম্যাচ একা জয়ের দোরগাড়ায় নিয়ে যান দীপক চাহার। ৫৪ রানের লড়াকু ইনিংস খেলেও শেষরক্ষা করতে পারেননি তিনি। ২৮৩ রানে থামে  ভারতের ইনিংস।

বল হাতে চমক দেখালেন দুই প্রোটিয়া পেসার লুঙ্গি এনগিডি ও আন্দিলে ফেলুকওয়ায়ো। দখলে নেন যথাক্রমে দু’টি করে উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

দক্ষিণ আফ্রিকাঃ ২৮৭/১০ (৪৯.৫ ওভার) ডি কক ১২৪, মালান ১, বাভুমা ৮, মার্করাম ১৫, ডুসেন ৫২, মিলার ৩৯, ফেলুকওয়ায়ো ৪, প্রিটোরিয়াস ২০, মহারাজ ৬; চাহার ৮-০-৫৩-২, বুমরাহ ১০-০-৫২-২, কৃষ্ণা ৯.৫-০-৫৯-৩, চাহাল ৯-০-৪৭-১

ভারতঃ ২৮৩/১০ (৪৯.২ ওভার) রাহুল ৯, ধাওয়ান ৬১, কোহলি ৬৫, পান্ট ০, শ্রেয়াস ২৬, সুরিয়াকুমার ৩৯, চাহার ৫৪; এনগিডি ১০-০-৫৮-৩, প্রিটোরিয়াস ৯.২-০-৫৪-২, মাগালা ১০-০-৬৯-১, মহারাজ ১০-০-৩৯-১, ফেলুকওয়ায়ো ৭-০-৪০-৩

ফলাফলঃ দক্ষিণ আফ্রিকা ৪ রানে জয়ী

সিরিজঃ ৩ ম্যাচের সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে জয়ী দক্ষিণ আফ্রিকা

ম্যাচ সেরাঃ কুইন্টন ডি কক (দক্ষিণ আফ্রিকা)

সিরিজ সেরাঃ কুইন্টন ডি কক (দক্ষিণ আফ্রিকা)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

অবশেষে ক্যামেরার সামনে কোহলি কন্যা ভামিকা, কোহলির বিশেষ উদযাপন

Read Next

টসে হেরে আগে ব্যাটিংয়ে ফরচুন বরিশাল

Total
1
Share