টানা দুই জয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে বাংলাদেশের যুবারা

পুচকে কানাডার বিপক্ষে টাইগার যুবাদের স্বস্তির জয়
Vinkmag ad

আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের এবারের আসরে টানা দ্বিতীয় জয়। ইংল্যান্ডের যুবাদের কাছে হারের পর নিজেদের ২য় ম্যাচে কানাডা অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে হারিয়ে জয়ে ফিরে রাকিবুলের দল। এবার সংযুক্ত আরব-আমিরাতকেও হারাল ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে।

৩ ম্যাচে ২ জয়ে আসে ৪ পয়েন্ট, ‘এ’ গ্রুপের রানার আপ দল হয়ে কোয়ার্টার-ফাইনালে যায় বাংলাদেশের যুবারা। এবারের মিশনে টাইগারদের প্রতিপক্ষ ‘বি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন দল ভারত।

১৪৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দুই ওপেনারের ব্যাটে দারুণ সূচনা পায় বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। মাহফিজুল-ইফতেখারের উদ্বোধনী জুটিতে আসে ৮৬ রান। ব্যক্তিগত ৩৭ রানে ইফতেখার হোসেন ফিরলে ভাঙে জুটি। আরেক ওপেনার মাহফিজুল ইসলাম এরমধ্যেই হাঁকিয়ে নিলেন ফিফটি।

তিনে নামা প্রান্তিক নওরোজ নাবিলকে নিয়ে মাহফিজুল জয়ের পথে এগোতে থাকেন। বাংলাদেশের সংগ্রহ যখন ১১০, মুহূর্তেই বিপত্তি বাধালো বৃষ্টি। উইকেট ছেড়ে ড্রেসিংরুমের পথে ক্রিকেটাররা। পরবর্তীতে চেষ্টা করেও আর ম্যাচ শুরু করা যায়নি। বৃষ্টি আইনে ৯ উইকেটে ম্যাচ জিতে নেয় বাংলাদেশের যুবারা।

সেন্ট কিটসের ওয়ার্নার পার্কে টস জিতেন বাংলাদেশ অধিনায়ক রাকিবুল হাসান। সিদ্ধান্ত নেন আগে বোলিংয়ের। পেসার আশিকুর জামানের বাজিত। এক ওভারেই বিদায় করেন আরব-আমিরাতের দুই ওপেনারকে।

এরপর টাইগার বোলারদের সামনে প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টা করেন মিডল অর্ডারের ব্যাটাররা। বিস্ফোরক বোলিংয়ে আরব-আমিরাতকে অল্পতেই আটকে দেয় সাকিব, রিপন মন্ডলরা। প্যাভিলিয়নে ফেরার আগে অধিনায়ক আলিশান শারাফু করেন ২৩ রান। তিনে নামা ধ্রুব পরাশারের ব্যাট থেকে আসে ৩৩। পুনিয়া মেহরার ৪৩ রানের ইনিংসে দলের সংগ্রহটা শতরান ছাড়িয়ে যায়। শেষ পর্যন্ত ১৪৮ রানে থামে আরব-আমিরাতের সংগ্রহ।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

টি-টোয়েন্টিতে আর ফিরতে চান না তামিম

Read Next

মেরে খেলা ব্যাটারদের বিপক্ষেই উপভোগ করেন নাসুম

Total
1
Share