ঢাকাকে হারিয়ে জয়ে ফিরল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স

ঢাকাকে হারিয়ে জয়ে ফিরল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স
Vinkmag ad

বঙ্গবন্ধু বিপিএলের প্রথম দুই দিন যেনো একই সুতোয় গাঁথা। দুইদিনই লো-স্কোরিং প্রথম ম্যাচের পর দ্বিতীয় ম্যাচে রানে দেখা। প্রথম দিনের পর শনিবার (২২ জানুয়ারি) দ্বিতীয় দিনেও পরের ম্যাচে পরাজিত দলের নাম মিনিস্টার ঢাকা।

টস হেরে আগে ব্যাট করে মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স তোলে ৮ উইকেটে ১৬১ রান। উইল জ্যাকসের ২৪ বলে ৪১ রানের ঝড়ের সাথে ১৭ বলে সাব্বিরের ব্যাটে ২৯ রান। শেষদিকে ঝড় তোলা বেনি হাওয়েল খেলেছে ১৯ বলে ৩৭ রানের ইনিংস।

জবাবে মিনিস্টার ঢাকার তামিম ইকবালের ধীর গতির ফিফটি, দল হেরেছে ৩০ রানের ব্যবধানে। এই বাঁহাতির ৫২ রান ছাড়া দল জেতানোর মতো কোনো ইনিংস খেলতে পারেনি আর কেউ। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৬ রান আসে ৮ নম্বরে নামা ইসুরু উদানার ব্যাট থেকে।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে মিনিস্টার ঢাকা দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও মোহাম্মদ শেহজাদের ব্যাটে তোলে ৪২ রান। প্রথম ম্যাচের মতো এদিন অবশ্য খুব বেশি চড়াও হতে পারেননি শেহজাদ (১২ বলে ৯)। ইনিংসের ৭ম ওভারে আউটও হন মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধের বলে থার্ড ম্যানে ক্যাচ দিয়ে।

৩ নম্বরে নামা জহরুল ইসলামকে নিয়ে ৩৩ রানে জুটি তামিমের। যে পথে নিজে তুলে নিয়েছেন ফিফটিও। তবে প্রথম ম্যাচের মতো এদিনও তামিম ছিলেন টি-টোয়েন্টি বিরুদ্ধ। ফিফটি ছুঁয়েছেন ৪২ বলে। এরপর অবশ্য টিকেছেন কেবল ৩ বল, শরিফুল ইসলামের বলে বোল্ড হয়েছেন ৬ চার ২ ছক্কায় ৪৫ বলে ৫২ রান করে।

তার অমন ইনিংসে লক্ষ্যের পথে ঠিকঠাক ছিলো না মিনিস্টার ঢাকা। একই ওভারে শরিফুল ফেরান জহরুল ইসলানকেও (১২ বলে ১০)। ১২ ওভার শেষে ৩ উইকেটে মিনিস্টার ঢাকার স্কোরবোর্ডে ৭৫।

৪৮ বলে মিনিস্টার ঢাকার প্রয়োজন দাঁড়ায় ৮৭ রান। ১৪তম ওভারে নাসুম আহমেদ ফেরান নাইম শেখ (৬ বলে ৪) ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদকে (৫ বলে ৫)। আর তাতেই কার্যত ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় মিনিস্টার ঢাকা।

আন্দ্রে রাসেল (১০ বলে ১২), ইসুরু উদানা (৯ বলে ১৬) ও শুভাগত হোম (১৩ বলে ১৩) ছোট ছোট ইনিংসে কেবল হারের ব্যবধানটাই কমাতে পেরেছেন। ১৩১ রানে মিনিস্টার ঢাকাকে অল আউট করার পথে শরিফুল ইসলামের শিকার ৪ উইকেট। ৪ ওভারে মাত্র ৯ রান দিয়ে নাসুম আহমেদের শিকার ৩ উইকেট।

আগের ম্যাচে ৬ রান করে ফেরে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ওপেনার কেনার লুইস আজ ফেরেন মোটে ২ রান করে, রুবেল হোসেনের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়া লুইস খেলেন ৯ বল। কেনার লুইস টেস্ট সুলভ ইনিংস খেললেও অপর ওপেনার উইল জ্যাকস ছিলেন মারমুখী।

শুভাগত হোমের বলে বোল্ড হওয়া এই ইংলিশ ব্যাটার ২৪ বলে ৬ চার ও ২ ছক্কায় করেন ৪১ রান। দুই দফা জীবন পেয়ে আফিফ হোসেন অবশ্য ১২ রানের বেশি করতে পারেননি।

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স শিবিরে স্বস্তি এনে দিয়ে নিজের অগ্নিমূর্তি দেখান সাব্বির রহমান। ১৭ বল স্থায়ী ইনিংসে সাব্বির ছিলেন ভয়ডরহীন। ২ টি করে চার ও ছক্কায় ২৯ রান করে ফেরেন তিনি। সাব্বিরের সঙ্গে ৪৬ রানের জুটি গড়ার পথে ২৫ রান করেন অধিনায়ক মেহেদী গাসান মিরাজ।

শামীম হোসেন (১), নাইম ইসলামরা (০) ব্যর্থ হলে শেষে দায়িত্ব পড়ে আগের ম্যাচে ঝড়ো ইনিংস খেলা বেনি হাওয়েলের কাঁধে। সেই দায়িত্ব ভালোভাবেই পালন করেন তিনি। আগের ম্যাচে ২০ বলে ৪১ রান করা হাওয়েল এদিন করেন ১৯ বলে ৩৭ রান। ১ চার ও ৩ ছক্কা হাকানো হাওয়েল আউট হন ইনিংসের শেষ বলে।

২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৬১ রান স্কোরবোর্ডে জমা করে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। মিনিস্টার ঢাকার পক্ষে ৩ উইকেট নেন রুবেল হোসেন। ১ টি করে উইকেট নেন আরাফাত সানি, ইসুরু উদানা, শুভাগত হোম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ১৬১/৮ (২০), লুইস ২, জ্যাকস ৪১, আফিফ ১২, সাব্বির ২৯, মিরাজ ২৫, হাওয়েল ৩৭, শামীম ১, নাইম ০, নাসুম ৮*; রুবেল ৪-০-২৬-৩, সানি ৪-০২৩-১, উদানা ৪-০-৩৯-১, হোম ২-০-১৫-১, মাহমুদউল্লাহ ১-০-১২-১

মিনিস্টার ঢাকা ১৩১/১০ (১৯.৫), তামিম ৫২, শেহজাদ ৯, জহুরুল ১০, নাইম ৪, মাহমুদউল্লাহ ৫, রাসেল ১২, শুভাগত ১৩, উদানা ১৬, সানি ০, এবাদত ১*, রুবেল ৬; নাসুম ৪-০-৯-৩, শরিফুল ৪-০-৩৪-৪, মুগ্ধ ৩-০-২২-১, নাইম ০.৫-০-৭-১

ফলাফলঃ চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ৩০ রানে জয়ী

ম্যাচসেরাঃ নাসুম আহমেদ (চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স)।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ফ্লাডলাইটের নিচে রানে ফিরেছে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স

Read Next

টি-টোয়েন্টিতে আর ফিরতে চান না তামিম

Total
13
Share