রনি-পেরেরার ব্যাটে চড়ে জয় পেল খুলনা টাইগার্স

রনি-পেরেরার ব্যাটে চড়ে জয় পেল খুলনা টাইগার্স
Vinkmag ad

একই অঙ্গে বহু রূপ বলতে যা বুঝায় শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) বিপিএলের উদ্বোধনী দিন তাই দেখালো মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের উইকেট। একই উইকেটে গড়ানো প্রথম ম্যাচটি ছিলো লো-স্কোরিং, ম্যাড়ম্যাড়ে। তবে দিনের দ্বিতীয় ম্যাচেই রান উপহার দিয়েছে একই উইকেট। মিরপুরের উইকেট বিবেচনায় রান বন্যার ম্যাচে মিনিস্টার ঢাকাকে ৫ উইকেটে হারিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করলো খুলনা টাইগার্স।

তারকা ঠাঁসা মিনিস্টার ঢাকা আগে ব্যাট করে তোলে ৬ উইকেটে ১৮৩ রান। তামিম ইকবালের ফিফটির সাথে মোহাম্মদ শেহজাদের ঝড়ো ৪২ ও অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ৩৯ রান।

জবাবে আন্দ্রে ফ্লেচারের শুরু ঝড়ো ৪৫, রনি তালুকদারের ফিফটি (৬১) ও শেষদিকে থিসারা পেরেরা ক্যামিওতে (১৮ বলে ৩৬*) ৬ বল ও ৫ উইকেট হাতে রেখে খুলনা টাইগার্স পেলো জয়।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই ওপেনার তানজিদ হাসান তামিমকে (২) হারায় খুলনা টাইগার্স। তবে রানের চাকা সচল করার কাজটা করে যান আরেক ওপেনার আন্দ্রে ফ্লেচার ও রনি তালুকদার। রুবেল হোসেনের করা ইনিংসের চতুর্থ ওভারে ফ্লেচার ৪ চার ১ ছক্কায় নেন ২২ রান। রনি-ফ্লেচারের ব্যাটে পাওয়ার প্লে-তে খুলনার স্কোরবোর্ডে ১ উইকেটে ৬৫ রান।

৪০ বলে ৭২ রানের জুটি ভাঙে আন্দ্রে রাসেল ২৩ বলে ৭ চার ১ ছক্কায় ৪৫ রান করা ফ্লেচারকে ফেরালে। ফ্লেচারের বিদায়ের পর মুশফিকুর রহিমও (৬) ফেরেন দ্রুত। তবে দলকে ম্যাচেই রাখেন রনি। ৩১ বলে তুলে নেন ফিফটি। তবে এরপর বেশিক্ষণ টিকেননি, ৪২ বলে ৭ চার ১ ছক্কায় ৬১ রান করে ফিরেছেন এবাদত হোসেনের দ্বিতীয় শিকার হয়ে।

শেষ ৫ ওভারে খুলনার প্রয়োজন ছিলো ৪৫ রান। থিসারা পেরেরা দলকে টেনে নিলেও হতাশ করেছেন ইয়াসির আলি রাব্বি (১৫ বলে ১৩ রান)। শেষ ৩ ওভারে প্রয়োজন ২৫, ইসুরুর উদানার করা ১৮তম ওভারেই আসে ১২ রান। ১৯তম ওভারে থিসারাকে এক পাশে রেখে বাকি কাজটা সেরে নেন শেখ মেহেদী। শেষ পর্যন্ত পেরেরা ১৮ বলে ৬ চারে ৩৬ ও ৫ বলে সমান একটি করে চার, ছক্কায় ১২ রানে অপরাজিত ছিলেন শেখ মেহেদী।

টস হেরে আগে ব্যাট করতে নামে মিনিস্টার ঢাকা। শেখ মেহেদী হাসানের করা ইনিংসের প্রথম বলেই লং অফ দিয়ে চার মেরে শুরু শেহজাদের। মেহেদীর করা ইনিংসের তৃতীয় ওভারে হাঁকান টানা ৩ চার। শুরুর জড়তা কাটিয়ে শেহজাদের সাথে হাত খোলাতে মনযোগ দেন তামিমও।

দুজনে মিলে পাওয়ার প্লে-তে তোলে ৫৬ রান। যেখানে ৩৯ রানই আসে আফগান শেহজাদের ব্যাটে। ৮.১ ওভার স্থায়ী উদ্বোধনী জুটিতে আসে ৬৮ রান, দুজনকে আলাদা হতে হয় শেখ মেহেদীর সরাসরি থ্রোতে শেহজাদ রান আউট হলে। ততক্ষণে নামের পাশে ২৭ বলে ৮ চারে ৪২ রান।

শেহজাদ ফিরলেও নাইম শেখকেও নিয়ে আরও ৪০ রান যোগ করেন তামিম। তবে ৪১ বলে ফিফটি তুলেই থামতে হয় তামিমকে (৪২ বলে ৭ চারে ৫০)।

দারুণ এক ছক্কায় শুরু অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের। তবে থিসারা পেরেরার স্লোয়ার ডেলিভারি বুঝতে না পেরে বোল্ড হন নাইম (১১ বলে ৯)। দারুণ এক ছক্কায় ইনিংস শুরু করেও আন্দ্রে রাসেলকে (২ বলে ৭) ফিরতে হয়েছে অদ্ভুত এক রান আউটে।

১২ রানের বেশি করতে পারেনি জহরুল ইসলামও। তবে শেষদিকে রিয়াদ ঝড়ে ১৮৩ রানের সংগ্রহ মিনিস্টার ঢাকার। তার ব্যাটে ২০ বলে ২ চার ৩ ছক্কায় ৩৯ রান।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

মিনিস্টার ঢাকা ১৮৩/৬ (২০), শেহজাদ ৪২, তামিম ৫০, নাইম ৯, মাহমুদউল্লাহ ৩৯, রাসেল ৭, জহুরুল ১২, শুভাগত ৯*, উদানা ৬*; রাব্বি ৪-০-৪৫-৩, পেরেরা ৪-০-২৭-১

খুলনা টাইগার্স ১৮৬/৫ (১৯), তামিম ২, ফ্লেচার ৪৫, রনি ৬১, মুশফিক ৬, ইয়াসির ১৩, পেরেরা ৩৬*, মেহেদী ১২*; শুভাগত ১-০-৯-১, রাসেল ৪-০-৪২-২, এবাদত ৩-০-২৭-২

ফলাফলঃ খুলনা টাইগার্স ৫ উইকেটে জয়ী

ম্যাচসেরাঃ রনি তালুকদার (খুলনা টাইগার্স)।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

শেহজাদ-রিয়াদদের ঝড়ো ব্যাটিং, মিনিস্টার ঢাকার বড় সংগ্রহ

Read Next

হেরেই চলছে ভারত, প্রোটিয়াদের সিরিজ জয়

Total
3
Share