যেখানে ১০ বছরে বিপিএলের প্রাপ্তি কুমিল্লার মেহেদী হাসান

যেখানে ১০ বছরে বিপিএলের প্রাপ্তি কুমিল্লার মেহেদী হাসান
Vinkmag ad

২০১২ সালে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) যাত্রা শুরু। তবে যেসব উদ্দেশ্য নিয়ে ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক এই টুর্নামেন্টের সূচনা ১০ বছর পর এসেও সেই হিসাব কষতে গেলে প্রাপ্তির খাতা শূন্যই। বিপিএলের গত আসরের মাঝপথে বিসিবির সাবেক এক পরিচালক ও বিপিএলের প্রতিষ্ঠাতাদের একজন বেশ আক্ষেপ করছিলেন পরিকল্পনা ও বাস্তবায়ণের ব্যাপক পার্থক্য দেখে।

তার আফসোসের বড় অংশজুড়ে ছিলো লম্বা সময়ের জন্য ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিকানা না থাকা, ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর নিজস্ব একাডেমি তৈরি না হওয়া এবং সেখান থেকে কোনো ক্রিকেটার উঠে না আসা।

তবে বিসিবির সাবেক এই পরিচালকের আক্ষেপ কিছুটা হলেও লাঘব করতে পারে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। ২০১৫ সালে বিপিএলে প্রথমবার অংশ নেওয়া ফ্র্যাঞ্চাইজিটি ২০২০ সাল ছাড়া প্রতিটি বিপিএলেই অংশ নেয়। বিসিবির সাবেক সভাপতি ও বর্তমান অর্থমন্ত্রী আ.হ.ম মোস্তফা কামালের প্রতিষ্ঠান লোটাস কামাল গ্রুপের মালিকানাধীন ফ্র্যাঞ্চাইজিটি কুমিল্লার লালমাইতে প্রতিষ্ঠা করে একটি ক্রিকেট একাডেমি।

মাঝে সঙ্গত কারণে বিপিএলের এক আসরে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স অংশ না নিলেও তাদের পরিচালিত কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ট্যালেন্ট হান্ট ক্রিকেট একাডেমির কার্যক্রম বন্ধ হয়নি কখনোই। বরং লম্বা সময়ের পরিকল্পনা নিয়ে কাজ চলছে বেশ সক্রিয়ভাবে।

ইতোমধ্যে এই একাডেমির পেসার মেহেদী হাসান খেলে ফেলেছেন প্রথম শ্রেণি, লিস্ট ‘এ’ সহ স্বীকৃত টি-টোয়েন্টিতেও। এবারের বিপিএল খেলবেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হয়েই। চোট বাধা না হলে আকবর আলির নেতৃত্বাধীন যুব বিশ্বকাপ জয়ী দলের সদস্যও হতেন।

শুধু তরুণ এই পেসার নয় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ট্যালেন্ট হান্ট ক্রিকেট একাডেমি থেকে ক্রিকেটার উঠে আসছে প্রতিনিয়তই। বয়স ভিত্তিক ক্রিকেটে খেলছে বেশ কয়েকজন, প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয় বিভাগ ও ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ (ডিপিএল) মিলে ১৭ জন ক্রিকেটার খেলেন ঢাকা লিগে।

শুরু থেকে একাডেমির প্রধান কোচ ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের এবারের আসরে সহকারী কোচ আতিকুর রহমান জানালেন আদ্যোপান্ত। যেখানে মেহেদী হাসানের বিপিএল খেলা, আরও কয়েকজন ক্রিকেটারের অপেক্ষায় থাকার বিষয় সহ ভবিষ্যত পরিকল্পনার কথা জানান ‘ক্রিকেট৯৭’ এর সাথে আলাপে।

তিনি বলেন, ‘২০১৫ সালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স যখন মাঠে নামে তখন একাডেমিকে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ট্যালেন্ট হান্ট ক্রিকেট একাডেমি নামকরণ করা হয়। যার সম্পূর্ণ দায়িত্ব নেন নাফিসা (কামাল) আপু। এটার স্থানীয়ভাবে দেখভাল করেন উপজেলা চেয়ারম্যান গোলাম সারোয়ার, নাফিসা আপুর চাচা।’

‘নিয়মিত অনুশীলন ক্যাম্প, বিভিন্ন টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ, বাইরের কোচ এনে নির্দিষ্ট বিভাগ নিয়ে কাজ করা সবই হয় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের অধীনে, সহযোগিতায়। এখান থেকেই আমাদের মেহেদী হাসানের উঠে আসা।’

‘একাডেমির ভবিষ্যত পরিকল্পনা হলো ১০ একর জায়গা নিয়ে বিশ্বমানের সুযোগ সুবিধা সহ কার্যক্রম পরিচালনা। এটাই নাফিসা আপুর মুল লক্ষ্য। উদ্দেশ্য হলো তৃণমুল থেকে ক্রিকেটার তুলে আনা, কুমিল্লা থেকে জাতীয় পর্যায়ে ক্রিকেট উপহার দেওয়া।’

‘আমাদের একাডেমির ২৫০ জন ছাত্রের ১৭ জন ক্রিকেটার বর্তমানে ঢাকা লিগ (প্রথম বিভাগ, দ্বিতীয় বিভাগ, তৃতীয় বিভাগ ও প্রিমিয়ার লিগ সহ) খেলছে। একাডেমির আরও ২ জন ক্রিকেটার নিকট ভবিষ্যতে বড় পর্যায়ে খেলার সম্ভাবনা আছে, শাহ পরান ও ইরফান।’

‘তাদের নিয়ে বেশ আশাবাদী, বিপিএলের মতো জায়গায় ওদের দেখা যেতে পারে দ্রুতই। শাহ পরান গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের হয়ে প্রিমিয়ার লিগ খেলবে পরবর্তী বছর, ইরফানের সাথেও একটা দলের কথা বার্তা চলছে।’

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হয়ে খেলতে আসা বিদেশী ক্রিকেটার ও কোচিং স্টাফ দিয়ে একাডেমির ক্রিকেটারদের সাথে কিছু সেশন পরিচালনা করার মতো উদ্যোগ অবশ্য নেওয়া যাচ্ছেনা করোনা প্রভাবে। এমনটাই জানালেন একাডেমির কোচ ও সমন্বয়ক আতিকুর রহমান।

তিনি যোগ করেন, ‘আসলে এ ধরণের পরিকল্পনা তো থাকেই। কিন্তু এবার করোনার কারণে সবাই বায়ো বাবলে। ফলে টুর্নামেন্ট চলাকালীন এমন কিছু করা সম্ভব না। বায়ো বাবল না থাকলে হয়তো এরকম কিছু উদ্যোগ নেওয়া যেতো।’

অথচ ২০১২ সাল থেকে লম্বা মেয়াদে মালিকানা পাওয়া বাকি ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর কার্যক্রম আটকে ছিলো বছরের একবার টুর্নামেন্ট সামনে রেখে সরব হওয়াতে। এর দায় অবশ্য বিসিবিকেও দিতে হয়, নানা বিতর্কিত কান্ডে প্রায় প্রতি আসরেই বদলেছে মালিকানা, টুর্নামেন্ট মাঠে না গড়ানোর নজিরও আছে।

এমনকি একদিন পর মাঠে গড়াতে যাওয়া এবারের আসরেই যে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো অংশ নিচ্ছে মাত্র এক আসরের মালিকানা পেয়ে। দীর্ঘমেয়াদী মালিকানা না থাকায় ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো আইপিএল, পিএসএলের মতো নিজেদের একাডেমি প্রতিষ্ঠা করে বজরজুড়ে কার্যক্রম চালিয়ে দেশের ক্রিকেটে অবদান রাখার কাজটা করতে পারছিলোনা।

উল্লেখ্য, আগামীকাল (২০ জানুয়ারি) ২০ বছর পূর্ণ করতে যাওয়া পেসার মেহেদী হাসান ক্রিকেট বলে অনুশীলন শুরুই করেন কোচ আতিকুরের অধীনে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ট্যালেন্ট হান্ট ক্রিকেট একাডেমিতে। নানা ধাপ পেরিয়ে ইতোমধ্যে চট্টগ্রাম বিভাগের হয়ে ৪ টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচও খেলে ফেলেন, ২৪ গড়ে নিয়েছেন ৮ উইকেট। ব্রাদার্স ইউনিয়নের হয়ে লিস্ট ‘এ’ ও স্বীকৃত টি-টোয়েন্টিতেও অভিষেক হয়, খেলেছেন ২০২০ সালে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামে।

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

অতিমানবীয় ম্যাক্সওয়েল-বয়েস, বিগ ব্যাশে রেকর্ডময় এক দিন

Read Next

শুরুর ম্যাচেই হার দেখল রাহুলের ভারত

Total
21
Share