মুশফিকের স্মার্ট ও কঠিন ক্রিকেট মস্তিষ্কের সুবিধা নিতে চান ল্যান্স ক্লুজনার

মুশফিকের স্মার্ট ও কঠিন ক্রিকেট মস্তিষ্কের সুবিধা নিতে চান ল্যান্স ক্লুজনার
Vinkmag ad

এবারের বিপিএলে (বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ) খুলনা টাইগার্সের প্রধান কোচ হিসেবে কাজ করছেন ল্যান্স ক্লুজনার। সাবেক এই প্রোটিয়া ও বর্তমান জনপ্রিয় কোচ খুলনা টাইগার্স অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমকে বলছেন বাংলাদেশের সবচেয়ে স্মার্ট ও কঠিন ক্রিকেট মস্তিষ্কের অধিকারী। মুশফিকের সাথে কাজ করাকে সম্মানের উল্লেখ করে ক্লুজনার জানালেন বিপিএল শিরোপা জিততেই এসেছেন।

ক্লুজনার এবারই প্রথম কোচ হয়ে বাংলাদেশে আসেননি। এর আগে ২০১৯ সালের বিপিএলেও রাজশাহী কিংসের প্রধান কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন। এবার খুলনা টাইগার্সের হয়ে কাজ শুরু করে জানালেন বাংলাদেশ তার হৃদয়ে অন্যরকম জায়গা দখল করেছে।

আজ (১৯ জানুয়ারি) মিরপুরে অনুশীলন শেষে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে ফেরাটা নিশ্চিতভাবেই সম্মানের ব্যাপার, গত ৪-৫ বছর (মূলত ৩ বছর) আসা হয়নি, সর্বশেষ এসেছি রাজশাহীর কোচ হয়ে। বাংলাদেশ সবসময় আমার হৃদয়ে আলাদাভাবে জায়গা করে নিয়েছে।’

খুলনা টাইগার্স এবারের বিপিএল খুব বড় কোনো নাম ছাড়াই দল গুছিয়েছে। তবে মুশফিকের সাথে শেখ মেহেহদী হাসান, সৌম্য সরকার, ইয়াসির আলি রাব্বি, সিকান্দার রাজা, থিসারা পেরেরার, নাভিন উল হকদের নিয়ে গড়া দলকে ফেলনা ভাবারও উপায় নেই।

তবে দলটির কোচ বিপিএলে সফল হতে পূর্ণ মনোযোগ দিচ্ছেন স্থানীয়দের সেরাটার দিকে। বিদেশীদের বলছেন কেবল স্থানীয়দের সহায়ক।

তিনি বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করিনা যে বাংলাদেশে বিপিএল বিদেশী নির্ভর টুর্নামেন্ট, এটা এমন একটা টুর্নামেন্ট যেটা স্থানীয় ক্রিকেটারদের দাপট বেশি বলা যায়। সুতরাং আমাদের লক্ষ্য হলো স্থানীয় ক্রিকেটারদে রযতটা সম্ভব কাজে লাগানো যায়, অন্তত গত ৪-৫ বছরের ইতিহাস এটাই বলে।’

‘আর এটাই আমাদের মূল নজর, বড় নামগুলো নিয়ে আমরা খুব চিন্তিত নই। আমাদের পরিকল্পনাটাই এভাবে সাজানো যে মূল ভূমিকা রাখবে স্থানীয় ক্রিকেটাররা আর তাদের সহায়ক হিসেবে কাজ করবে বিদেশীরা।’

স্থানীয়দের মধ্যে মুশফিকের সাথে কাজ করা দারুণভাবে রোমাঞ্চিত করেছে সাবেক এই প্রোটিয়াকে।

মুশফিক প্রসঙ্গে তার ভাষ্য, ‘আমি মুশফিকের সাথে কাজ করতে মুখিয়ে আছি। এর আগে আমার এই সুযোগ হয়নি, তবে সম্ভবত সে বাংলাদেশের সবচেয়ে স্মার্ট ও কঠিন ক্রিকেট মস্তিষ্কের অধিকারী। সুতরাং আমার জন্য এটা অবশ্যই সম্মানের যে তার মতো একজনের সাথে কাজ করা। আমি এই সম্পর্কের দিকে তাকিয়ে আছি, পাশাপাশি আমি তাকে সমর্থন দিতে চাই এটা নিশ্চিত করতে যে আগামী ৩ সপ্তাহ আমরা এখানে শিরোপা জয়ের জন্যই কাজ করবো।’

‘আমি তার মস্তিষ্কের সুবিধা নিতে অপেক্ষায় আছি, কারণ বাংলাদেশ এমন একটা জায়গা যেখানে ক্রিকেট খেলার জন্য বিশ্বের সবচেয়ে কঠিন জায়গা, বিদেশী দলগুলো বাংলাদেশে সফরে এসে যা অনুধাবন করে। আর এ কারণেই আমি আগে যা বলেছি এখানে স্থানীয় ক্রিকেটারদের কাছ থেকে সেরাটা বের করে আনাতেই আমাদের যতো মনযোগ।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ইয়র্কশায়ারের নতুন হেড কোচ ওটিস গিবসন

Read Next

অতিমানবীয় ম্যাক্সওয়েল-বয়েস, বিগ ব্যাশে রেকর্ডময় এক দিন

Total
16
Share