খাজার প্রতি কামিন্স ও সতীর্থদের সৌজন্যবোধে মুগ্ধ ক্রিকেট দুনিয়া

হোবার্টেও ইংলিশরা কুপোকাত, অ্যাশেজে ৪-০'তে অস্ট্রেলিয়ার বাজিমাত
Vinkmag ad

‘মহারাজা! তোমারে সেলাম।’ নেতা তো এমনই হওয়া উচিৎ, যেমনটা দেখালেন প্যাট কামিন্স!

হোবার্টে অ্যাশেজের শেষ টেস্ট জয়ের পর সেলিব্রেশনে মেতে উঠেছিলেন অজি ক্রিকেটাররা। গোটা দল যখন সেলিব্রেশনে মেতে তখন কিছুটা দূরে দাঁড়িয়ে ছিলেন উসমান খাজা। সেটা লক্ষ্য করেই অধিনায়ক প্যাট কামিন্স বাকি সতীর্থদের বলেন, শ্যাম্পেইন দূরে সরিয়ে রাখতে। তার পরে তিনি সেই সেলিব্রেশনে ডেকে নেন খাজাকে। কামিন্স ও অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের এই সৌজন্যবোধে মুগ্ধ ক্রিকেট বিশ্ব।

ঐতিহ্যের মহারণে জয়ী অস্ট্রেলিয়া, ৪-০ ব্যবধানের বড় জয়ে অ্যাশেজ ধরে রাখল প্যাট কামিন্সের দল। ট্রফি হাতে মঞ্চের ওপর শুরু হয় অজি ক্রিকেটারদের সেলিব্রেশন। খোলা হয় শ্যাম্পেইনের বোতলও। পুরো ছবিটাই ছিল চেনা ছকে বাঁধা। কিন্তু এই চেনা দৃশ্যের বিপরীতে ব্যাটসম্যান উসমান খাজার অনুপস্থিতি। কারণ, উসমান একজন মুসলিম, তাই তিনি শ্যাম্পেইন নিক্ষেপ করা পছন্দ করেন না। খাজা তার ধর্মীয় বিশ্বাসের সাথে সঙ্গতি রেখে অ্যালকোহল স্প্রে করা এড়াতে একপাশে চলে যান।

আর তাই শ্যাম্পেইন ওড়ানো শুরু হওয়ার ঠিক আগেই নীরবে মঞ্চ থেকে নেমে যান তিনি। যার ফলে শুরুর দিকে জয় উদযাপনের বেশ কিছু ছবি থেকে বাদও পড়ে যান উসমান। অধিনায়ক প্যাট কামিন্স এ বিষয়টি দ্রুত লক্ষ্য করলেন এবং তার সতীর্থদের বোতলগুলি একপাশে রাখতে বললেন এবং খাজাকে মঞ্চে পুনরায় যোগ দেওয়ার ইঙ্গিত দিলেন। উসমান খাজা বিনা দ্বিধায় মঞ্চে ফিরে আসেন এবং কামিন্সের পাশে হাঁটু গেড়ে বসেন। বিজয়ী বেশে ক্যামেরার সামনে গর্জন করেন।

অ্যাশেজ সিরিজ জয়ের পরও প্যাট কামিন্সের নেতৃত্বের গুণাবলী পুরোদমে ছিল। আর তাতেই যেন মুগ্ধ পুরো ক্রিকেট বিশ্ব। প্রাক্তন ক্রিকেটার থেকে শুরু করে ভক্তদের প্রশংসায় ভাসছেন কামিন্স।

পাকিস্তানের প্রাক্তন পেসার উমর গুল টুইটারে বলেছেন,

‘ভালো নেতা সর্বদা পুরো দলের দেখাশোনা করেন এবং সবাইকে সমানভাবে সম্মান করেন এবং প্যাট কামিন্স সেই নেতা হিসেবে নিজেকে দেখিয়েছেন।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

নিজেকে সরিয়ে নিলেন নবি, আফগান দলে ৪ নতুন মুখ

Read Next

নারীদের মাঠের বাইরের বিতর্ক প্রভাব ফেলেনি মাঠের খেলায়

Total
1
Share