নিউজিল্যান্ডে টেস্ট জিততে কোনো কারিশমা বা জাদুমন্ত্র লাগেনি বাংলাদেশের

নিউজিল্যান্ডে সিরিজ ড্র, মুমিনুলের মতে এখন বাড়তি সতর্ক থাকবে প্রতিপক্ষ
Vinkmag ad

২০১১ সালের পর এশিয়ার কোনো দল হিসেবে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে টেস্ট জিতলো বাংলাদেশ। যেকোনো ফরম্যাটে কিউই মুল্লুকে বাংলাদেশের প্রথম জয়। জয়টা এসেছে এমন সময় যখন টানা টেস্ট হারের ধকলে বাংলাদেশ। অধিনায়ক হিসেবে এই প্রথম স্বস্তি নিয়ে দেশে ফিরলেন মুমিনুল হক। তবে গত এক দশকের বেশি সময় এশিয়ার অন্য দলগুলো যা পারেনি তা বাংলাদেশ করেছে নিজেদের প্রক্রিয়া ঠিক রেখে। কোনো জাদুমন্ত্রে আসেনি এমন জয় বলছেন মুমিনুল।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্ট জিতলেও ক্রাইস্টচার্চে ৩ দিনের কম সময়েই হেরেছে বাংলাদেশ। তবে সব ছাপিয়ে এই প্রথম নিউজিল্যান্ড থেকে সিরিজ না হেরে দেশে ফিরলো টাইগাররা। বিদেশ সফর থেকে এমন হাসিমুখে ফেরার রেকর্ডই যে খুব কম।

আজ (১৫ জানুয়ারি) বিকেলে দেশে ফেরে বাংলাদেশ দল, যদিও আগেই ফিরেছেন টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন ও অভিজ্ঞ ব্যাটার মুশফিকুর রহিম।

নিউজিল্যান্ডে বাংলাদেশের আগে ২০১১ সালে এশিয়ার কোনো দল হিসেবে সর্বশেষ টেস্ট জিতেছিলো পাকিস্তান। এরপর বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা, ভারত ও পাকিস্তান দুইবার করে নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়েও খালি হাতে ফেরে। এবার তৃতীয় দফায় বাংলাদেশ পেলো কাঙ্খিত সেই জয়।

কীভাবে টাইগাররা এমন অসাধ্য সাধন করেছেন জানাতে গিয়ে বিমানবন্দরে মুমিনুল বলেন,

‘কোনো কারিশমা না, কোনো জাদুমন্ত্র ছিলো না। আমরা আমাদের প্রক্রিয়া ঠিক রাখার চেষ্টা করেছি। আমরা যে জায়গাটা উন্নতি করা দরকার সে জায়গাটা চেষ্টা করছি অনেকদিন ধরে আপনারা জানেন। দল হিসেবে ভালো খেলার, বাংলাদেশ দল তখনই ভালো করে যখন সবাই পারফর্ম করে।’

‘একজন দুইজন ভালো করলে বাংলাদেশ দল ভালো করেনা, বিশেষ করে টেস্টে। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি আমরা বলতে পারবো না। টেস্টে আমরা তখনই ভালো করি যখন ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং তিন বিভাগেই আমরা দল হিসেবে ভালো করি।’

এবারের নিউজিল্যান্ড সফরের আগে মুমিনুল দেশের বাইরে টেস্ট নেতৃত্ব দিয়েছেন ৬ ম্যাচে। যেখানে জিম্বাবুয়েতে এক জয় ও শ্রীলঙ্কায় এক ড্র ছিলো সাফল্য। সে জায়গায় এবার নিউজিল্যান্ডের মতো দলের বিপক্ষে তাদের মাটিতেই জয় নিয়ে দেশে ফেরা। কতটা স্বস্তি মুমিনুলের জন্য?

এমন প্রশ্নের জবাবে মুমিনুল বলেন,

‘স্বস্তি বলতে কিছু নেই, ক্রিকেট খেলায় স্বস্তি বলতে কিছু নেই। কোনো সময় ভালো খেলবেন কোনো সময় খারাপ খেলবেন। কোনো সময় প্রক্রিয়া ঠিক থাকবে কোনো সময় থাকবে না।’

‘আমার কাছে মনে হয় আলহামদুলিল্লাহ ভালো যে আমরা একটা ম্যাচ জিতেছি। তবে শেষ ম্যাচে যেভাবে খেলেছি একজন অধিনায়ক হিসেবে আমি খুব একটা খুশি না। আমাদের দ্বিতীয় টেস্ট টা আরও ভালো খেলা উচিৎ ছিলো।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

টেস্ট অধিনায়কের পদ থেকেও সরে দাঁড়ালেন কোহলি

Read Next

রিজওয়ানের ব্যাকআপ খুজতে বলছেন কামরান আকমল

Total
8
Share