ইমরুলে ম্লান মাহমুদউল্লাহর অলরাউন্ড নৈপুণ্য

ইমরুলে ম্লান মাহমুদউল্লাহর অলরাউন্ড নৈপুণ্য

ইন্ডিপেন্ডেন্স কাপ ২০২১-২২ এ টানা দুই ম্যাচ হারার পর অবশেষে জয়ের মুখ দেখেছে ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোন। বিসিবি নর্থ জোনের হয়ে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের অলরাউন্ড নৈপুণ্য ম্লান হয়েছে ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোন অধিনায়ক ইমরুল কায়েসের ব্যাটে, রান পেয়েছেন বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়ক তামিম ইকবালও।

সিলেট একাডেমি মাঠে আজ টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নামে বিসিবি নর্থ জোন। শুরুটা হয় বেশ নড়বড়ে। দুই ওপেনার পারভেজ হোসেন ইমন ও মাহিদুল ইসলাম অঙ্কনই ফেরেন ১১ রান করে। আগের দুই ম্যাচে ফিফটি পাওয়া নাইম ইসলাম এদিন রুবেল হোসেনের বলে বোল্ড হবার আগে খুলতে পারেননি রানের খাতা।

২৫ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর চারে নামা অধিনায়ক মার্শাল আইয়ুব পাঁচে নামা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে নিয়ে বড় জুটি গড়েন। এই দুজনের জুটিতে আসে ১২০ রান। দারুণ খেলতে থাকা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ রান আউটে কাটা পড়েন ৬৬ রান করে। ফিফটি (৫৪) করা মার্শাল আইয়ুব ও এরপর দ্রুত ফেরেন সাজঘরে।

বাকিটা সময়ে সেভাবে কেউ রান করতে না পারলে ৪৯.৫ ওভারে ২১৬ তেই গুটিয়ে যায় নর্থ জোনের ইনিংস। ইস্ট জোনের পক্ষে ৩ উইকেট নেন নাইম হাসান, ২ টি নেন তানভীর ইসলাম। ১ টি করে উইকেট নেন রুবেল হোসেন, আলাউদ্দিন বাবু।

জবাব দিতে নেমে ৩য় ওভারেই ওপেনার প্রীতম কুমার (০) এর উইকেট হারায় ইস্ট জোন। তাকে বোল্ড করে ফেরান শফিউল ইসলাম। এই ধাক্কা বুঝতেই দেননি অপর ওপেনার তামিম ইকবাল ও তিনে নামা অধিনায়ক ইমরুল কায়েস।

২য় উইকেট জুটিতে আসে ৫৩ রান। ৩৮ বলে ৩ চার ও ১ ছয়ে ৩৫ রান করে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের বলে বোল্ড হন তামিম ইকবাল। তবে ঠিকই ফিফটি তুলে নেন ইমরুল কায়েস। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দ্বিতীয় শিকার হবার আগে করেন ৭১ রান। ৮১ বল স্থায়ী ইনিংসে ছিল ৮ টি চার।

মাহমুদউল্লাহ পরে ফিরিয়েছেন নাদিফ চৌধুরীকেও। তবে তা যথেষ্ট হয়নি, ১২.১ ওভার ও ৪ উইকেট হাতে রেখেই জয় নিশ্চিত করে ফেলে ইস্ট জোন।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

বিসিবি নর্থ জোন ২১৬/১০ (৪৯.৫), ইমন ১১, অঙ্কন ১১, নাইম ০, মার্শাল ৫৪, মাহমুদউল্লাহ ৬৬, শামীম ১৯, আরিফুল ৪, বিপ্লব ২০*, সানজামুল ০, শফিউল ১২, শফিকুল ০; রুবেল ৯-১-৩১-১, নাইম ১০-০-৪৭-৩, তানভীর ১০-০-৩৪-২, বাবু ৭.৫-০-৩৯-১

ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোন ২১৭/৬ (৩৭.৫), তামিম ৩৫, প্রীতম ০, ইমরুল ৭১, আফিফ ২৬, দিপু ২৬, নাদিফ ১০, বাবু ১৭*, শুভ ১৫*; শফিউল ৫-০-৪১-১, মাহমুদউল্লাহ ৯.৫-০-৫৬-৩, শফিকুল ৪-০-৩০-১, সানজামুল ৪-০-২৭-১

ফলাফলঃ ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোন ৪ উইকেটে জয়ী

ম্যাচসেরাঃ ইমরুল কায়েস (ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোন)।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

১০ দিন বাদেই অবসর ভেঙে ফিরলেন ভানুকা রাজাপাকশে

Read Next

সেন্ট্রাল জোনকে হারিয়ে তাদেরকে সাথে নিয়ে ফাইনালে সাউথ জোন

Total
21
Share