বাংলাদেশকে বিপাকে ফেলে স্বস্তির ঘুম দিবেন বোল্ট-সাউদিরা

বাংলাদেশকে বিপাকে ফেলে স্বস্তির ঘুম দিবেন বোল্ট-সাউদিরা
Vinkmag ad

ক্রাইস্টচার্চ টেস্টের দ্বিতীয় দিন শেষেই জয়ের পথে নিউজিল্যান্ড। ব্যাট হাতে টম ল্যাথাম, ডেভন কনওয়েরা নেতৃত্ব দিয়েছেন, বল হাতে রাজত্ব করেছেন ট্রেন্ট বোল্ট, টিম সাউদিরা। প্রথম ইনিংসে কিউইদের ৫২১ রানের জবাবে ১২৬ রানেই গুটিয়ে গেলো বাংলাদেশ। একাই ৫ উইকেট নিলেন বোল্ট, এ দিন গড়েছেন চতুর্থ কিউই বোলার হিসেবে টেস্টে ৩০০ উইকেটের কীর্তিও। দিন শেষে জানালেন বাংলাদেশকে ফলো অনে ফেলে আজ রাতে স্বস্তিতে ঘুমাবে কিউইরা।

ল্যাথামের ২৫২, কনওয়ের ১০৯, উইল ইয়াংয়ের ৫৪ ও ড্যারিল মিচেলের ৫৭ রানে ভর করে ৬ উইকেটে ৫২১ রানে ইনিংস ঘোষণা করে নিউজিল্যান্ড। দ্বিতীয় দিন চা বিরতির আগে বাংলাদেশ ব্যাট করতে নেমে বোল্ট-সাউদি তোপে দিশেহারা। ১১ রান তুলতেই হারায় ৪ উইকেট, ২৭ রানে নেই ৫ টাইগার ব্যাটার।

সেখান থেকে ইয়াসির আলি রাব্বি (৫৫) ও নুরুল হাসান সোহানের (৪১) ব্যাটে ১২৬ পর্যন্ত যেতে পারে সফরকারীরা। ফলো অনে পড়ে প্রথম ইনিংস শেষেই পিছিয়ে আছে ৩৯৫ রানে। আগামীকাল (তৃতীয় দিন) সকালে উইকেটের সুবিধা নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশকে আবারও বিপাকে ফেলতে চায় বোল্টরা।

সংবাদ সম্মেলনে বাঁহাতি পেসার বোল্ট বলেন, ‘সকাল বেলা উইকেট থেকে বাড়তি সুবিধা এবং নতুন বল হাতে থাকা সবসময়ই একটি সুন্দর জিনিস। আমি নিশ্চিত সবাই (কিউই পেসাররা) স্বস্তিতেই ঘুমাবে এবং সকালে এই সুবিধা কাজে লাগাবে।’

প্রথম ইনিংসে ৪৩ রানে বোল্টের শিকার ৫ উইকেট, মেহেদী হাসান মিরাজকে বোল্ড করে ছুঁয়েছেন ৩০০ উইকেটের মাইলফলক। স্যার রিচার্ড হ্যাডলি, ড্যানিয়েল ভেট্টোরি ও টিম সাউদির পর চতুর্থ কিউই বোলার হিসেবে করলেন এমন কিছু।

এই কীর্তি নিয়ে বোল্ট যোগ করেন, ‘এটি অবশ্যই অনেক বেশি তাৎপর্যপূর্ণ। তবে, আমি নিশ্চিত যে এটি আগামী দিনে হারিয়ে যাবে। এটি আপনার পারফরম্যান্সে কিছুটা কঠোর পরিশ্রম, ফিটনেস এবং গর্ব নিয়ে আসে। আজ বিকেলে টিমিকে (সাউদি) আমার সাথে পাওয়া খুব বিশেষ কিছু।’

‘পাশাপাশি ড্যানিয়েল (ভেট্টোরি) এবং স্যার রিচার্ড (হ্যাডলি) এর মতো নামের সাথে যুক্ত হওয়াও বিশেষ কিছু। টেস্ট ম্যাচ জেতা এবং সিরিজে ফেরাটাও বিশেষ কিছুই হবে। এবং অবশ্যই এই মুহূর্তে এটাই আমাদের মূল লক্ষ্য।’

তার আগে এমন কীর্তি গড়া একজন ছিলেন মাঠেই, সতীর্থ হয়ে মাঠেই যে পিঠ চাপড়ে দিয়েছেন টিম সাউদি।

সাউদির অভিনন্দ বার্তা নিয়ে বোল্ট বলেন, ‘তিনি (সাউদি) আমাকে নিয়ে বেশ গর্বিত। তার সাথে যোগ দিতে ভালো লাগছে। আজ বিকেলে তাকে সেখানে পাওয়া খুব বিশেষ কিছু। আমি নিশ্চিত আমরা একসঙ্গে আরও কয়েকটি উইকেট উপভোগ করতে পারব। কিন্তু হ্যাগলিতে এখনো কাজ শেষ হয়নি।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

লজ্জা থেকে বাঁচানো সোহান-রাব্বিকে প্রশংসায় ভাসালেন অ্যাশওয়েল প্রিন্স

Read Next

বাংলাদেশকে টেইলরের ধন্যবাদ, বলছেন ‘কখনও ভুলব না’

Total
1
Share